৪ কার্তিক  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২২ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ময়দানে বাবার সাফল্যের নেপথ্যে তৈরি হচ্ছে ছবি। আর সেই ছবিতে কিনা মেয়ে রয়েছেন পরিচালকের সহকারীর ভূমিকায়। বলছি ‘৮৩’-র কথা। ১৯৮৩ সালে কপিল দেবের অধিনায়কত্বে সেই বিশ্বসেরা হওয়ার মুহূর্তই ফিরছে কবীর খান পরিচালিত এই ছবির হাত ধরে। আর এই ছবিতেই কবীরের তত্ত্বাবধানে সহকারী-পরিচালক হিসেবে ‘৮৩’ টিমে যোগদান করলেন কপিল-কন্যা অমিয়া দেব।

গতবছরই ছবি ঘোষণার হপ্তাখানেকের মধ্যে শুরু হয়ে গিয়েছিল প্রি-প্রোডাকশনের কাজ। রেইকির জন্য পরিচালক-অভিনেতা জুটি ইতিমধ্যে লর্ডস-যাত্রাও সেরে ফেলেছেন। রণবীর সিংয়ের মেন্টর হিসেবে কপিল দেব আপাতত ব্যস্ত। আর একদিকে যখন ‘৮৩’ ছবির জন্য রণবীরের প্রশিক্ষক হিসেবে ব্যস্ত ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রাক্তন এই অধিনায়ক, তাঁর মেয়ে প্রবেশ করলেন পরিচালক কবীর-শিবিরে। আরেকটু পরিষ্কার করে বললে, সিনেমা জগতে সহকারী-পরিচালক হিসেবে অমিয়ার হাতখড়ি হল এই ছবি দিয়েই।

[আরও পড়ুন: প্রেমের গল্পে ঋত্বিক-শুভশ্রী জুটি, মহরৎ সারলেন রাজ চক্রবর্তী]

২৩ বছর বয়সি অমিয়া সিনেমা জগতে কেরিয়ার গড়ার ব্যাপারে বেশ উৎসাহী। আপাতত দিল্লিবাসী হলেও ভবিষ্যতে মুম্বইয়ের ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে প্রতিষ্ঠিত হতে চান। আর সেই জন্যই সিনেমা জগতে প্রবেশ করার আগে কবীর খানের ‘৮৩’ দিয়েই নিজেকে ঝালিয়ে নিতে চান কপিল-কন্যা অমিয়া। ছবির প্রস্তুতি নেওয়ার জন্য মুম্বইয়ের এক খ্যাতনামা ক্রিকেট ময়দানে প্রত্যেকদিন সকালে হাজির হন রণবীর-ব্যতীত ছবির অন্যান্য অভিনেতারা। যাদের প্রশিক্ষণের দায়িত্বে রয়েছেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রাক্তন পেসার বলবিন্দর সিং সান্ধু। রোজ সকালে ক্রিকেট প্র্যাকটিসের খুঁটিনাটি জানতে এবং টিমের প্রশিক্ষণ ঠিকঠাক এগোচ্ছে কিনা, তার ওপর নজর রাখতে এই ময়দানেই গোটা টিমের সঙ্গে হাজির থাকেন অমিয়া। এটাই নাকি এখন অমিয়ার প্রতি সকালের রুটিন হয়ে দাঁড়িয়েছে।

এপ্রসঙ্গে প্রাক্তন ক্রিকেটার সন্দীপ পাটিলের ছেলে চিরাগ জানিয়েছেন, “যদিও আমাদের বাবারা একসঙ্গে ‘৮৩’-এর বিশ্বকাপ ম্যাচ খেলেছিলেন, অমিয়ার সঙ্গে আমার আলাপ এর আগে ছিল না। ও দিল্লিতে থাকে এবং আমি থাকি মুম্বইতে। অমিয়া অনেকটাই ছোট আমার থেকে। এই ছবির দৌলতেই ওর সঙ্গে আমার আলাপ গড়ে ওঠে।” প্রসঙ্গত, চিরাগ নিজে এই ছবিতে বাবা সন্দীপ পাটিলের ভূমিকায় অভিনয় করছেন। “যেহেতু অমিয়া এই ছবির সহ-পরিচালক, আমাদের প্রত্যেকদিনের প্রশিক্ষণ পিরিয়ডের একটা অংশ হয়ে গিয়েছে ও। কখন, কোথায়, ছবির কোন বিষয় সংক্রান্ত মিটিং রয়েছে সব ওর নখদর্পণে। কবীর অফিসে গেলেই ওকে দেখেছি সবসময়ে কাজের মধ্যে রয়েছে। এই কস্টিউম নিয়ে ছোটাছুটি করছে তো ওই কারও শিডিউল তৈরিতে ব্যস্ত হয়ে গেল। খুব মন দিয়ে কাজটা করছে।” এও জানান চিরাগ। 

[আরও পড়ুন: কংগ্রেসের টিকিটে ভোটে লড়ছেন উর্মিলা! জোর জল্পনা মুম্বইয়ে]

প্রসঙ্গত, মুম্বইয়ে প্রশিক্ষণের পর গোটা ‘৮৩’ টিম রওনা দেবে ধরমশালার উদ্দেশে। ১০ দিনের এই শিডিউলে রণবীর সিংও তাঁদের সঙ্গী হচ্ছেন। চলতি বছরের ১৫ মে থেকে লন্ডন এবং স্কটল্যান্ডে শুরু হবে ছবির শুটিং। শিডিউল ১০০ দিনের। কপিল দেবের ভূমিকায় অভিনয় করার আগে দিন কয়েক তাঁর সঙ্গে সময় কাটাবেন রণবীর। এছাড়াও, অভিনয়ে রয়েছেন পঙ্কজ ত্রিপাঠী, শাকিব সালিম, হার্ডি সান্ধু, অ্যামি ভির্ক, সাহিল খাট্টার এবং তাহির রাজ বসিন-এর মতো একঝাঁক অভিনেতা।

 

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং