২২  শ্রাবণ  ১৪২৯  সোমবার ৮ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

এক ফ্রেমে রাজ ও সৃজিত! বক্স অফিসের লড়াই ভুলে দুই পরিচালককে মেলালেন রুদ্রনীল ঘোষ!

Published by: Akash Misra |    Posted: June 30, 2022 2:49 pm|    Updated: June 30, 2022 2:51 pm

Rudranil Ghosh shares photo of Srijit Mukherji and Raj Chakraborty | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কয়েকদিন আগেই ‘হাবজি গাবজি’ ও ‘x= প্রেম’ ছবির নন্দনে শো পাওয়া নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় বাকযুদ্ধে মেতে উঠেছিলেন সৃজিত মুখোপাধ্য়ায় (Srijit Mukherji) ও রাজ চক্রবর্তী (Raj Chakraborty)। নিন্দুকরা ভেবেছিল টলিপাড়ায় বুঝি তৈরি হল নতুন শত্রুতা। তবে সেই জল্পনায় আপাতত জল ঢাললেন রাজ ও সৃজিত নিজেই। সম্প্রতি এক ঘরোয়া আড্ডায় অংশ নিয়ে টলিউডের দুই পরিচালক বুঝিয়ে দিলেন তাঁদের মধ্যে সম্পর্ক বেশ ভালই! অন্যদিকে, রাজনৈতিক মতাদর্শের তফাৎ থাকলেও, রুদ্রনীল ও রাজের বন্ধুত্ব টলিপাড়ায় বেশ বিখ্যাত। আর সেই বন্ধুত্বকে সঙ্গে নিয়েই সৃজিত ও রাজের মধ্যে ঢুকে পড়লেন রুদ্রনীল ঘোষ (Rudranil Ghosh)। ইনস্টাগ্রামে রুদ্র শেয়ার করলেন সেই পার্টির ছবি। তবে শুধুই সৃজিত, রাজ ও রুদ্র নয়। পার্টিতে হাজির ছিলেন শুভশ্রী গঙ্গোপাধ্যায়, সোহিনী সরকার ও দেবালয় ভট্টাচার্য। এই পার্টির ছবি ইনস্টাগ্রামে শেয়ার করে রুদ্রনীল লিখলেন, ‘জাস্ট আড্ডা!’

ঠিক কী ঘটেছিল সৃজিত ও রাজের মধ্যে?

একই দিনে মুক্তি পেয়েছিল রাজ চক্রবর্তীর ‘হাবজি গাবজি ‘ও সৃজিতের ‘x= প্রেম’। ছবি মুক্তির দিন সোশ্যাল মিডিয়ায় সৃজিত লিখেছিলেন “একই দিনে মুক্তি পাচ্ছে দু’টি ছবি। দু’জনই নন্দন ১-এর জন্য আবেদন করেছিলাম। কিন্তু মাত্র একজন ছাড়পত্র পেয়েছেন। আদর্শগত ও ন্যায়সঙ্গত কারণে দু’টি ছবিরই ছাড়পত্র পাওয়া উচিত ছিল। না হলে একজনও পাবেন না।” তার উত্তরে রাজ লিখেছিলেন, “হাবজি গাবজি’ নিয়ে কন্ট্রোভার্সি করে লাভ নেই।” পরবর্তীকালে আবার এক সংবাদমাধ্যমকে প্রতিক্রিয়া দিতে গিয়ে রাজ বলেন, “শুধু নন্দন নয়, প্রিয়া, স্টারের মতো কিছু হলেও থাকছে না সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের ছবি। সেটাও কি আমার কারসাজি? আমি চাই দু’ জনের ছবিই মানুষ দেখুক।”

 

 
 
 
 
 
View this post on Instagram
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 

A post shared by Rudranil Ghosh (@rudranilrudy)

[আরও পড়ুন: এবার বলিউডের পর্দায় আসছে অটল বিহারী বাজপেয়ীর বায়োপিক! প্রকাশ্যে ছবির প্রথম ঝলক ]

এই বিতর্কের জেরেই ফেসবুক লাইভে এসেও নিজের বক্তব্য জানান সৃজিত। ভিডিওয় সৃজিত জানান, কোনও বিশেষ ছবি বা বিশেষ মানুষের বিরুদ্ধে তিনি কিছু লেখেননি বা বলেননি। বন্ধু রাজ চক্রবর্তী (Raj Chakraborty) বা তাঁর ছবি ‘হাবজি গাবজি’র বিরুদ্ধে তো নয়ই। “রাজ আমার খুবই ভাল বন্ধু এবং ওর ‘হাবজি গাবজি’ নন্দনে রিলিজ হচ্ছে এটা খুব ভাল কথা, খুবই আনন্দের কথা। তাতে কোনও অসুবিধা, কোনও বক্তব্য নেই। একথা ভুল যে আমি চাই না রাজের ছবি নন্দনে মুক্তি পাক।”

এরপরই সৃজিত জানান, নন্দন কর্তৃপক্ষের থেকে যখন জানতে পারেন তাঁর ‘X=প্রেম’ সেখানে শো পায়নি, সঙ্গে সঙ্গে রাজের কাছে ফোন করে জানতে চান কেন এমনটা হল? সেই সময়ে রাজ বলেছিলেন, তিনি এর কারণ জানেন না। সৃজিতের ‘X=প্রেম’ যাতে শো পায় তার জন্য নন্দন থেকে ‘হাবজি গাবজি’ সরিয়ে নেওয়ার প্রস্তাবও দিয়েছিলেন রাজ। কিন্তু সৃজিতের বক্তব্য, “সেটাও তো ভুল। ‘X=প্রেম’ চললে ‘হাবজি গাবজি’ও চলা উচিত। না চললে দু’টোর কোনওটাই চলা উচিত নয়।”

সৃজিত জানান, ‘X=প্রেম’ কেন নন্দনে শো পেল না। তিনি শুধু সেই কারণটি জানতে চেয়েছিলেন মাত্র। এই সংক্রান্ত কোনও নির্দিষ্ট নিয়ম থাকলে, সেই সম্পর্কে সকলের জানা প্রয়োজন বলেই মনে করেন পরিচালক। তরুণদের জন্য ‘X-প্রেম’ ছবিটি তৈরি করেছেন। সেই কারণেই নন্দনে তা মুক্তি পাওয়া গুরুত্বপূর্ণ ছিল বলে মনে হয়েছিল সৃজিতের। ছবির ‘A’ সার্টিফিকেট যদি নন্দনে শো না পাওয়ার কারণ হয়ে থাকে, তাও জানা প্রয়োজন বলে মনে করেন পরিচালক। পরিচালক রাজ বোধহয় অভিমান করেছেন। তাঁরও খারাপ লেগেছে বলে জানান সৃজিত। তবে বাংলা ছবির ভাল হোক, এমনটাই চান তিনি। 

তবে এসব যে যার মনে রাখনেনি দুই পরিচালক তা স্পষ্ট রুদ্রনীলের শেয়ার করা এই পার্টির ছবি থেকেই। অনুরাগীরা বলছেন, রাজ ও সৃজিতের বন্ধুত্বের সেতুই হলেন রুদ্রনীল ঘোষ!

[আরও পড়ুন: ‘কফি উইথ করণে’ আসতে চাইছেন না কেউ! ফোন করে তারকাদের হাজার অনুরোধ করণ জোহরের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে