BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  শুক্রবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

করোনা নিয়ে ব়্যাপ বাঁধলেন সলমন, দিলেন স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার বার্তা

Published by: Bishakha Pal |    Posted: April 20, 2020 6:23 pm|    Updated: April 20, 2020 7:01 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা সম্পর্কে দেশবাসীকে সচেতন করতে ফের ময়দানে নেমে পড়লেন সলমন খান। তবে এবার একটু অন্যভাবে। ঘরে থেকে সামাজিক দূরত্ব মেনে চলার বার্তা তিনি দিলেন নিজের গানের মাধ্যমে। সোমবার ইউটিউবে মুক্তি পেয়েছে সলমনের সেই ভিডিও। ভাইজানের গানের প্রশংসা করেছেন শাহরুখও।

গানের নাম সলমন দিয়েছেন ‘পেয়ার করোনা’। মজার ছলে এমন না দিলেও গানের মধ্যে গূঢ় বার্তা দিয়েছেন সল্লু মিঞা। বারবার বলেছেন, এই সময়টা প্রিয়জনদের সঙ্গে কাটানোর সময়। নিজের জন্য, নিজের পরিবারের জন্য একটু স্বার্থপর হওয়া প্রয়োজন। বাড়ি থেকে না বেরিয়ে বাড়িতে থেকে সবার উপকার করার আবেদন করছেন তিনি। বলেছেন, একটু ধৈর্য ধরে অপেক্ষা করতে হবে। তাহলেই সম সংকচ কেটে যাবে। এর জন্য কিছু নিয়ম মানার কথাও বলেন সলমন। ব়্যাপের মাধ্যমে তিনি বলেন, পরিবারের লোকেদের সঙ্গে খানাপিনা করুন, আরাম করুন। বাহাদুরি দেখিয়ে বাইরে বেরোনোর দরকার নেই। ‘আমার করোনা হবে না’, এই ধারণাটাই তো ভ্রান্ত। বাড়িতে বসে বরং গান বাজনা করুন, শায়েরি লিখুন, নিজের সুপ্ত প্রতিভাকে খুঁজে বের করুন। চিকিৎসক, পুলিশ যা বলছে, তা শুনুন। যদি সত্যিই আপনি কিছু উপকার করতে চান, হবে বাড়িতে বসে থাকুন। তবেই করোনা ভাইরাস ধনী-দরিদ্র দেখে না। এই সময় ভয় পেয়ে বাড়িতে থাকলেই আগামী দিনে সব সংকট কেটে যাবে।

[ আরও পড়ুন: করোনায় আক্রান্ত অস্কারজয়ী অভিনেতা শন পেন, ভরতি হাসপাতালে ]

সলমনের এই গানের প্রশংসা করেছেন শাহরুখ খান। এক অনুরাগীর প্রশ্নের উত্তরে তিনি টুইটারে লিখেছেন, সলমন অসাধারণ গায়ক।

কিছুদিন আগে একটি ভিডিও পোস্ট করে সচেতনতার বার্তা দিয়েছিলেন সলমন। সেখানে তিনি বলেছিলেন, “ডাক্তার-নার্সরা আপনাদের জীবন বাঁচানোর জন্য প্রাণপাত করে চেষ্টা করে চলেছেন, আর আপনারা ওঁদের উপর পাথর ছুঁড়ছেন। এরই মাঝে করোনা সংক্রামিত ব্যক্তিরাও হাসপাতাল থেকে পালাচ্ছেন। আরে পালিয়ে বাঁচবেন কোথায়? যদি চিকিৎসকরা অই কঠিন পরিস্থিতিতে এগিয়ে না আসতেন, কিংবা পুলিশরা রাস্তায় না নামতেন, তাহলে ওই কয়েকটা লোকের জন্য দেশের অর্ধেক লোক সংক্রামিত হয়ে মরতে পারত। যাঁরা নিজেদের পরিবারকে মারতে চান, তাঁরা বাইরে বেরতেই পারেন! ভারতের বাড়ির লোকদের সঙ্গে জনসংখ্যা কমাতে চান, আর সেটা কি নিজের পরিবারের লোক মেরেই শুরু করবেন? আপনি নিজে যদি এই লকডাউনের মাঝেও বন্ধুবান্ধব, রাস্তায় না বেরতেন, তাহলে পুলিশের লাঠিও আপনার গায়ে পড়ত না! আপনাদের কি মনে হয়, পুলিশদেরও এসব করতে খুব মজা লাগছে?”

[ আরও পড়ুন: ‘এই বাংলা আমার হাসবে আবার’, মুখ্যমন্ত্রীর উদ্যোগে করোনা সচেতনতায় তৈরি মিউজিক ভিডিও ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement