৩ শ্রাবণ  ১৪২৬  শুক্রবার ১৯ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এনআরএস কাণ্ডের জেরে অচল চিকিৎসা ব্যবস্থা। বিনা চিকিৎসায় হাহাকার করছেন রাজ্যবাসী। নজিরবিহীনভাবে যদিও, দু-একজন ডাক্তার পাশে দাঁডিয়েছেন রোগীদের, তবুও সমস্যার সুরাহা এখনও অধরাই। রাজ্যের এহেন চরম পরিস্থিতিতে মানবতার নজির গড়তে ফের এগিয়ে এলেন বুদ্ধিজীবী মহল। অপর্ণা সেনের নেতৃত্বে সম্প্রীতি মঞ্চ গড়ার কথা ভাবছেন।

[আরও পড়ুন:  NRS কাণ্ডের প্রতিবাদ, ডাক্তারদের সঙ্গে পথে নামলেন রূপম-অনুপম]

প্রসঙ্গত, এনআরএস হাসপাতালে ৬ দিন আগে ওঠা উত্তেজনার স্ফুলিঙ্গ আরও বড় আকার ধারণ করেছে বর্তমানে। ইতিমধ্যে দাবানলের মতো তা ছড়িয়ে পড়েছে সমগ্র দেশে৷ রবিবার সকাল ১০ টায় ফের জিবি বৈঠকে বসেছেন বিক্ষোভরত চিকিৎসকরা৷ সেখানেই চূড়ান্ত হবে তাঁদের পরবর্তী পদক্ষেপ। বৈঠকের দিকে তাকিয়ে রয়েছেন শহর তথা রাজ্যের অন্যান্য হাসপাতালের আন্দোলনরত চিকিৎসকরাও৷ রাজ্যের এহেন চরম পরিস্থিতে চিকিৎসকদের পাশে থাকতে শুক্রবার সকালে এনআরএস হাসপাতাল চত্বরে পৌঁছে গিয়েছিলেন অপর্ণা সেন, দেবজ্যোতি মিশ্র, কৌশিক সেন, অনুপম রায়, অনীক দত্ত, শ্রীলেখা মিত্র-সহ বুদ্ধিজীবী মহলের একাংশ। ডাক্তারদের সঙ্গে বিক্ষোভ মিছিলেও হেঁটেছিলেন। শনিবার বিকেল নাগাদ এই বুদ্ধিজীবী মহলের একাংশই পৌঁছে যান অপর্ণা সেনের বাড়িতে। সেখানে অভিনেত্রীর নেপথ্যে সম্প্রীতি মঞ্চ গড়ার জন্য বৈঠকের আয়োজন করা হয়েছিল। অপর্ণা সেন ছাড়াও বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন দেবজ্যোতি মিশ্র, কৌশিক সেন, অনুপম রায়, পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়, উষা উত্থুপ, সস্ত্রীক গায়ক রূপম ইসলাম। শনিবারের বৈঠকে সম্প্রীতি মঞ্চের আলোচ্য বিষয় ছিল রাজ্যের উত্তপ্ত পরিস্থিতি তথা এনআরএস ইস্যু।

[আরও পড়ুন:  অশান্ত হচ্ছে বাংলা, সাম্প্রদায়িক হিংসার প্রতিবাদে সভা নাট্যব্যক্তিত্বদের]

এপ্রসঙ্গে অভিনেতা  কৌশিক সেন বলেন, “আমরা বন্ধুরা পরস্পর আলোচনা করতে জড়ো হয়েছি আজ এখানে। এতদিন ধরে রাজ্যের স্বাস্থ্য পরিষেবা অচল৷ তবে সমস্যার সমাধান এখনও হয়নি। বরং, ক্রমশ তা বড় আকার ধারণ করছে। হিংসা-মারামারি নষ্ট করছে রাজ্যের মানুষের সম্প্রীতি। তাই সম্প্রীতি মঞ্চের তরফে আমাদের পরবর্তী পদক্ষেপ কী হবে, তা নিয়েই আমরা আলোচনা করব আজ।” উল্লেখ্য, রাজ্যের বুদ্ধিজীবী মহলের এই মানুষগুলোই সিঙ্গুর-নন্দীগ্রাম ইস্যুর সময়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পাশে দাঁড়িয়ে হাতে হাত রেখে সরব হয়েছিলেন অন্যায়ের বিরুদ্ধে। অন্যদিকে, শনিবার সাম্প্রদায়িক বিদ্বেষ ও হিংসার বিরুদ্ধে প্রতিবাদে শামিল হয়ে বিশিষ্টজনেরা ১৮ জুন সভার ডাক দিয়েছেন। উদ্যোক্তাদের মধ্যে রয়েছেন বিভাস চক্রবর্তী, সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, রুদ্রপ্রসাদ সেনগুপ্ত ও শঙ্খ ঘোষের মতো মানুষ।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং