BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘তুফানের পর তুফান আসুক, বাংলা বাঁচতে জানে’, দুর্দিনে বেঁচে থাকার গান ধরলেন কবীর সুমন

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: May 27, 2020 1:07 pm|    Updated: May 27, 2020 1:07 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ঝড় চলে গিয়েছে ঠিকই, কিন্তু তাণ্ডবের প্রভাব ভুগছে সারা বাংলা। একে করোনা আবহ, উপরন্তু গোদের উপর বিষফোঁড়ার মতো সুপার সাইক্লোন আমফান। যে ঝড়ে কেউ মাথা গোজার ঠাঁই হারিয়ে এক টুকরো ত্রিপল-প্লাস্টিকের আশায় সাহায্যের জন্য অপেক্ষা করছেন। আবার কেউ বা খিদের জ্বালায় দিশাহীন। শুধু যে আজকের খিদে মেটানোর তাগিদে তাঁদের মাথায় হাত পড়েছে এমনটা নয় কিন্তু! চিন্তার ভাঁজ পড়েছে অদূর ভবিষ্যতের কথা ভেবেও। নোনা জল ঢুকে নষ্ট হয়েছে ফসলি জমি। খাব কী? আবার দুর্যোগ এলে মাথা গুঁজব কোথায়? একরাশ চিন্তা নিয়ে অসহায় মুখেদের ভীড় চতুর্দিকে। এই কঠিন পরিস্থিতিতে তাই কবীর সুমন গান বেঁধেছেন ‘থেকো বাংলার পাশে’।

[আরও পড়ুন: যোগীর রাজ্যের পরিযায়ী শ্রমিকদের বাড়ি ফেরাতে উদ্যোগী, বাসের বন্দোবস্ত করলেন অমিতাভ]

সোনার বাংলার ঘরে ঘরে যেখানে শস্য-ফসল ঘরে তোলার বারোমাস্যাই প্রান্তিক মানুষগুলোর ভরসা, সেই শস্য-শ্যামলা ক্ষেত একেবারে উৎখাত করে গিয়েছে দৈত্য আমফান। এমন দুর্দিনে তাই বাংলার মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আরজি জানিয়েছেন কবীর সুমন। আবারও নিজস্ব ভঙ্গীতেই দুস্থ-প্রান্তিক মানুষগুলির হয়ে গান গাইলেন। সুরে সুরে বললেন, “থেকো বাংলার পাশে, সুখে বা যে-কোনও সর্বনাশে/ থেকো বাংলার পাশে, দিনেরাতে আর বারো মাসে।”

কবীরের গান আজও প্রাসঙ্গিক জীবনের কথা বলে। রোজনামচার এক জীবন্ত দলিলই যেন তাঁর সম্ভার। এবার আমফান বিধ্বস্ত বাংলার জন্যে কলম ধরলেন কবীর সুমন। ভুলে যাও জাতিভেদ, তোমার আমার ভাষার পার্থক্য। সব ভুলে গিয়ে বাংলার পাশে দাঁড়াও। ঠিক এই বার্তাই হয়তো কবীর সুমন তাঁর গানের মধ্য দিয়ে দিতে চেয়েছেন। বলেছেন, “তোমার আমার ভাষার কসম, কথার কসম সুরের টানে…।” কবীর গাইলেন। আশা জাগালেন। বঙ্গবাসীদের আবারও মনে করিয়ে দিলেন যে, “তুফানের পর তুফান আসুক… আমার বাংলা বাঁচতে জানে…।”

গানের কথা কবীর সুমনের। আর সুর দিয়েছেন বাংলার খ্যাতনামা সেতার বাদক হরশঙ্কর ভট্টাচার্য। তিনিই গানের কথা শুনে কবীর সুমনকে একটি ‘গৎ’ পাঠিয়েছিলেন হোয়াটসঅ্যাপ করে। সেই সুরের ভিত্তিতেই কবীর গলা ছাড়লেন ‘থেকো বাংলার পাশে’… এই মর্মে।

[আরও পড়ুন: লকডাউনের মধ্যেই শুরু শুটিং! মাস্ক পরে কাজ করলেন অক্ষয়]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement