৩২ শ্রাবণ  ১৪২৬  রবিবার ১৮ আগস্ট ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

৩২ শ্রাবণ  ১৪২৬  রবিবার ১৮ আগস্ট ২০১৯ 

BREAKING NEWS

স্টাফ রিপোর্টার: চরম অস্বস্তিকর পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে রাজ্য। প্রায় ভেঙে পড়েছে চিকিৎসা ব্যবস্থা। সোমবার রাত থেকে এখনও অব্যাহত রয়েছে চিকিৎসকদের কর্মবিরতি। অন্যদিকে, নাস্তানাবুদ রোগীর আত্মীয়-স্বজনরা। শুক্রবার সকাল থেকে চিকিৎসকদের পাশে থাকতে এনআরএস হাসপাতাল চত্বরে উপস্থিত ছিলেন অপর্ণা সেন, দেবজ্যোতি মিশ্র, কৌশিক সেন-সহ বুদ্ধিজীবী মহলের একাংশ। বেলা বাড়তেই গায়ক রূপম ইসলাম, পরিচালক অনীক দত্ত, শ্রীলেখা মিত্র-সহ আরও অনেক শিল্পীরাই সেই আন্দোলনে শামিল হতে পৌঁছে যান এনআরএস হাসপাতালে। এমতাবস্থায়, এনআরএস ইস্যু নিয়ে মুখ খুলে সোশ্যাল
মিডিয়ায় আক্রমণের স্বীকার হলেন কবি শঙ্খ ঘোষ।

[আরও পড়ুন: NRS কাণ্ডের প্রতিবাদ, ডাক্তারদের সঙ্গে পথে নামলেন রূপম-অনুপম ]

“যত দ্রুত সম্ভব অচলাবস্থা কাটিয়ে কাজে ফিরুন”, এনআরএস কাণ্ডে আন্দোলনরত জুনিয়র ডাক্তারদের উদ্দেশে এই বার্তা দিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় নেটিজেনদের রোষানলের মুখে পড়তে হয় কবি শঙ্খ ঘোষকে। আরেক সাহিত্যিক হিমাদ্রিকিশোর দাশগুপ্ত নিজে ফেসবুক পোস্টে এমনই কথা জানিয়েছেন। জুনিয়র ডাক্তারদের একরকম পাশে দাঁড়িয়েই তাঁদের কাজে ফিরতে অনুরোধ করেছিলেন মাত্র কবি। আর সে কারণেই কবির দিকে ধেয়ে এসেছে গালিগালাজ, সে উল্লেখও হিমাদ্রিকিশোর তাঁর পোস্টে করেছেন। আর প্রতি এই আক্রমণ ডাক্তারদের মধ্যে থেকেই উড়ে আসছে কি না, তা নিয়ে তর্ক-বিতর্কে জড়াচ্ছেন নেটদুনিয়ার
মানুষজন, কমেন্টে সেরকম আভাসই মিলেছে। নিজের সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি চিঠির মাধ্যমে আন্দোলন তুলে নিতে অনুরোধ করেছিলেন কবি শঙ্খ ঘোষ। এর পাশাপাশি কেন তিনি চিকিৎসকদের সঙ্গে দেখা করেননি, তার কারণও উল্লেখ করেছিলেন। তিনি জানান যে, শরীরিক অবস্থা খারাপ হওয়ার কারণেই তিনি জুনিয়র ডাক্তারদের সঙ্গে দেখা করতে যেতে পারেননি।

[আরও পড়ুন: ‘উনি শুধু তৃণমূলের নন, গোটা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী,’ মমতাকে তোপ অগ্নিমিত্রার ]

এনআরএস কাণ্ডের পর আন্দোলনকারীদের উদ্দেশে কবি শঙ্খ ঘোষ লিখেছিলেন যে, “নানা কারণে, নানা অজুহাতে ডাক্তারদের গায়ে হাত তোলা হচ্ছে। লজ্জাজনক এই ঘটনা আবারও একবার প্রমাণ করে দিল যে, রাজ্যের অবস্থা কতটা ভয়াবহ দিকে মোড় নিচ্ছে। তবে ধর্মঘট চলুক।” কিন্তু তার পাশাপাশিই সাধারণ মানুষের কথা ভেবে যেন চিকিৎসা ব্যবস্থা দ্রুত চালু করা যায়, সে দিকটাও দেখতে বলেছিলেন কবি। আর সেই কারণে কবির দিকে ধেয়ে এসেছে নেটিজেনদের কটুবাক্য। অভিযোগ, জুনিয়র ডাক্তারদের সমর্থনকারী কিছু মানুষজনই কবি শঙ্খ ঘোষকে এই বেনজির আক্রমণ করেছেন।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং