BREAKING NEWS

৫ মাঘ  ১৪২৮  বুধবার ১৯ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

‘কেউ যেন অভুক্ত না থাকে’, লকডাউনে ১.২ লক্ষ মানুষের খাবারের দায়িত্ব নিলেন হৃতিক

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: April 8, 2020 3:19 pm|    Updated: April 8, 2020 3:19 pm

Hrithik Roshan to provide meals for 1.2 lakh old age people, wage workers

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আর্থিকভাবে না হলেও দিন কয়েক আগেই বৃহন্মুম্বই মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশনের কর্মীদের মাস্ক কিনে দিয়ে সাহায্য করেছিলেন হৃতিক রোশন। এবার করোনা মোকাবিলায় নয়া উদ্যোগ নিলেন বলিউড অভিনেতা। কাউকে যেন অভুক্ত থেকে পেটে খিদে নিয়ে রাতে ঘুমোতে যেতে না হয়, সেই ভাবনা থেকেই ১.২ লক্ষ মানুষের খাবারের দায়িত্ব নিলেন হৃতিক রোশন।

লকডাউন পরিস্থিতিতে অনেকেই এখন অর্থ সংকটে ভুগছেন। কারও বাড়িতে চাল-ডাল তথা অত্যাবশকীয় সামগ্রী নেই। কারও কাছে বা অর্থ থাকলেও বয়সের ভারে রাস্তায় বেরতে পারছেন না প্রয়োজনীয় জিনিস ক্রয় করার জন্য। সেসমস্ত মানুষগুলির কথা ভেবেই ‘অক্ষয় পাত্র ফাউন্ডেশন’ নামে এক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার তহবিলে অনুদানের ভার নিয়েছেন হৃতিক রোশন। এই সংস্থার তরফে রান্না করা পুষ্টিসমৃদ্ধ খাবার পৌঁছে দেওয়া হবে একাধিক বৃদ্ধাশ্রমের মানুষদের কাছে। পাশাপাশি দারিদ্রসীমার নিচে থাকা মানুষগুলির মুখেও দুবেলা অন্ন তুলে দেওয়ার ভার নিয়েছে এই সংস্থা। এবার তাদের সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধেই এই মানুষগুলি যাতে অন্তত দু’বেলা পেট ভরে খেতে পারেন, সেই দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নিলেন হৃতিক রোশন। হৃতিকের এমন উদ্যোগে আপ্লুত অনুরাগীরা।

[আরও পড়ুন: কথা রাখলেন, প্রতিশ্রুতিমতো বলিউডের দিনমজুরদের অ্যাকাউন্টে পৌঁছচ্ছে সলমনের অনুদান]

অক্ষয় পাত্র ফাউন্ডেশনের (Akshay Patra) তরফে দেশব্যাপী আর্থিক অনটনের সঙ্গে যুঝে চলা পরিবারগুলির একাংশ রোজ উপকৃত হচ্ছেন। তাদের উদ্যোগের সঙ্গেই এবার শামিল হলেন হৃতিক রোশন। মঙ্গলবারই একটি টুইট করে সংশ্লিষ্ট ফাউন্ডেশনের তরফে হৃতিক রোশনকে (Hrithik Roshan) ধন্যবাদ জানানো হয়েছে। সেই টুইটেই বলা হয়েছে যে “দেশে স্বাভাবিক পরিস্থিতি ফিরে না আসা পর্যন্ত দরিদ্র মানুষদের ঘরে ঘরে তাঁরা খাবার পৌঁছে দেবেন। তাঁদের তৈরি করা খাবার প্রতিদিন পৌঁছে যাবে ১ লক্ষ ২০ হাজার মানুষের কাছে।” যার খরচ পুরোটাই ব্যয় হবে হৃতিকের দেওয়া অনুদান থেকে। অক্ষয় পাত্র ফাউন্ডেশনের টুইটের পালটা হৃতিক লেখেন, “প্রার্থনা করি, সারা দেশে কাউকে যেন পেটে খিদে নিয়ে না ঘুমোতে হয়, কেউ যেন অভুক্ত না থাকে। আপনারাই দেশের সত্যিকারের সুপারহিরো।”

[আরও পড়ুন: লকডাউনে গর্ভবতী ও সদ্যোজাতদের জন্য বিশেষ অ্যাম্বুল্যান্সের ব্যবস্থা করলেন সাংসদ মিমি]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে