BREAKING NEWS

১৩ মাঘ  ১৪২৭  বুধবার ২৭ জানুয়ারি ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

‘আমার শিক্ষা নিয়ে প্রশ্ন করার অধিকার ওঁর নেই’, বাবাকে বিঁধে মন্তব্য জান কুমার শানুর

Published by: Suparna Majumder |    Posted: November 24, 2020 3:02 pm|    Updated: November 24, 2020 3:02 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ‘বিগ বসে’র (Bigg Boss 14) ঘর থেকে বেরিয়েই বাবা কুমার শানুর (Kumar Sanu) মন্তব্যের জবাব দিলেন জান কুমার শানু। উগরে দিলেন ক্ষোভ। জানালেন, তাঁর শিক্ষাদীক্ষা নিয়ে মন্তব্য করার অধিকার কারও নেই। এ নিয়ে কাউকে জবাবদিহি করবেন না বলেই জানিয়ে দেন শানুপুত্র।

শোয়ের প্রতিযোগী নিকি তাম্বোলির সঙ্গে বাদানুবাদের সময় জান বলেছিলেন, মারাঠি ভাষা শুনলে তাঁর বিরক্ত লাগে। এতেই রুষ্ট হয় শিব সেনা ও MNS। রিয়ালিটি (BB14) শো বন্ধের হুমকি দেওয়া হয়। সেই ঘটনার প্রেক্ষিতেই একটি ভিডিও আপলোড করেছিলেন কুমার শানু। ছেলের পক্ষ থেকে ক্ষমা চাওয়ার পরই তিনি ভিডিওতে তাঁর লালনপালন নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। জানান, ২৭ বছর ধরে তিনি প্রথম স্ত্রী রীতা ভট্টাচার্য ও ছেলের থেকে আলাদা থাকেন। এরপরই পালটা মন্তব্যে রীতা ভট্টচার্য জানান, যাঁরা জান কুমার শানুকে (Jaan Kumar Sanu) ‘নেপো কিড’ বলে কটাক্ষ করছেন তাঁরা নিশ্চয়ই বুঝতে পারছেন এবার গোটা বিষয়টা। ভিডিওয় যেকথা শানু বলেছেন, তা তাঁর ব্যক্তিগত মতামত বলেও জানান তিনি।

[আরও পড়ুন: এমি অ্যাওয়ার্ডসে ভারতের সাফল্য, বেস্ট ড্রামা সিরিজ নির্বাচিত ‘দিল্লি ক্রাইম’]

এই বিষয় নিয়ে কথা বলতে গিয়ে জান বলেন, “আমার মা-ই একা আমাদের তিন ভাইকে মানুষ করেছেন। আমি জানি না কেন উনি কখনও আমাকে গায়ক হিসেবে প্রমোট করেননি। আপনারা প্রশ্ন করতে পারেন। ইন্ডাস্ট্রিতে এমন অনেক তারকা রয়েছে যাঁদের ডিভোর্স হয়েছে, আবার বিয়েও করেছেন। কিন্তু সন্তানদের কখনও এতদিন ধরে অবহেলা করেননি। আমি ভিডিওটি দেখিনি। তবে, আমার লালন-পালন, শিক্ষা নিয়ে প্রশ্ন করার অধিকার কারও নেই। শোয়ে সবাই আমাকে মানুষ হিসেবে দেখেছেন। আমি কাউকে এনিয়ে জবাবদিহি করব না।”  উল্লেখ্য, ৫০ দিনের মাথায় রিয়ালিটি শো ‘বিগ বস’ থেকে বেরিয়ে যান জান কুমার শানু। সবার প্রথমে প্রতিযোগী হিসেবে শোয়ে গিয়েছিলেন তিনি।

[আরও পড়ুন: আর্থিক সমস্যায় হয়নি চিকিৎসা, প্রয়াত ‘সসুরাল সিমর কা’ খ্যাত অভিনেতা আশিস রায়]

 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement