১৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

সুপার সিঙ্গারের খোঁজে ছোট পর্দায় নতুন রিয়ালিটি শো

Published by: Bishakha Pal |    Posted: June 2, 2019 4:43 pm|    Updated: June 2, 2019 4:43 pm

An Images

আরাত্রিকা দে: ঝিনুক থেকে মুক্ত খোঁজার দিন উপস্থিত। কথায় বলে ভারতবর্ষের কোনায় কোনায় শিল্পের খোঁজ মেলে। আর এই শিল্পের ধারকদের অধিকাংশই নাকি রয়েছে এই বাংলায়। শিল্পের একটা বিরাট অংশ অধিকার করে আছে সংগীত। যুগ যুগ ধরে বাংলা গানের সিংহাসনের উত্তরাধিকারী আমাদের মুগ্ধ করে গেছেন। তাঁদের সুরের সাগরে ভেসেছে শ্রোতা দর্শকেরা। ঋদ্ধ হয়েছি আমরা সকলে। ধারাবাহিকতা বজায় আছে আজও। তবে চিত্র বদল হয়েছে বিস্তর।

বিগত বেশ কিছু বছর ধরে তৈরি হয়েছে বেশ কিছু মঞ্চ। তার মধ্যে অন্যতম হল এই কুড়ি বছরে যে কত প্রতিভা উঠে এসেছে রিয়ালিটি শোর হাত ধরে, তার ইয়ত্তা নেই। আবারও স্টার জলসার প্রয়াসে ঝিনুক থেকে মুক্ত খোঁজার দিন উপস্থিত। শনিবার থেকে শুরু হয়েছে নতুন রিয়ালিটি শো ‘সুপার সিঙ্গার জুনিয়র’। আরও একবার ছোটে ওস্তাদদের গানে মন মাতবে সকলের। জলপাইগুড়ি, মালদা, মেদিনীপুর, কলকাতা, শিলিগুড়ি, নবদ্বীপ, দুর্গাপুর, চন্দননগরে হয়েছে অডিশন।

এই অনুষ্ঠানের বিচারকের আসনে রয়েছেন, কুমার শানু, জিৎ গঙ্গোপাধ্যায়, কৌশিকী চক্রবর্তী। আর সঞ্চালনার দায়িত্বে রুক্মা রায়। ছোটে ওস্তাদদের গ্রুমিং-এর দিকটি সামলাবেন রেশমি, কিঞ্জল, শোভন, অঙ্কন, তৃষা। বিচারক এবং গ্রুমাররাই ওদের মেন্টরের দায়িত্ব সামলাবেন। শোয়ের প্রযোজক শুভঙ্কর চট্টোপাধ্যায় জানান- “শিশুগুলোর উৎসাহ দেখে আমরা অবাক হয়ে গিয়েছিলাম। কী প্রচণ্ড শিল্পী হওয়ার ইচ্ছা ওদের মনে। মাথার উপর চড়া রোদ, ঘেমে নেয়ে অস্থির হয়ে যাচ্ছিল বাচ্চাগুলো। তবু উৎসাহে এতটুকু ভাটা নেই ওদের।”

[ আরও পড়ুন: করিনাই নাকি ছোটপর্দার সবচেয়ে দামি অভিনেত্রী! ]

চ্যানেল আয়োজিত সাংবাদিক সম্মেলনে এসে জিৎ গঙ্গোপাধ্যায়- “বাংলা হল সংগীতের পীঠস্থান। আর আমরা যারা সংগীত পরিচালনা করি তাদের একটা খিদে থাকে ভাল সিঙ্গার খুঁজে পাওয়ার। এই সব রিয়ালিটি শো গুলো আমাদের সেই খিদে মেটায়। আশা করি স্টার জলসার সুপার সিঙ্গার জুনিয়রও আমাদের সেই খিদে মিটিয়ে দিতে পারবে। অডিশনে কিছু শিশুশিল্পীর পারফরম্যান্স দেখে আমি অবাক হয়ে গেছি।”

কুমার শানু বলেন, “বাচ্চাদের গানের বিচার করা বড় কঠিন কাজ। ওদের বকুনি দিলেই ওরা কেঁদে ফেলে। ওদের গান খুব একটা ভাল হয়নি বললেও বিপদ! ওরা কষ্ট পাবে। তাই ওদের সঙ্গে ওদের মতো করেই মিশতে হবে। এমন কোনও কথা ওদের আমরা বলব না যাতে ওরা কষ্ট পায়। ওদের ভালটা বা খারাপটা আমরা আমাদের মনের ভিতরেই রাখব।” নতুন এই ট্যালেন্টদের উদ্দেশে তিনি বলেন, নাম হয়ে গেলেই পায়ের চলা থেকে মাটি সরে যায় এই প্রজন্মের, তবে মাথা ঠান্ডা রাখতে পারলে অনেক দূর পর্যন্ত পথ হাঁটবে এই উজ্বল প্রতিভারা।

কৌশিকী চক্রবর্তী জানান- “বাচ্চাদের সঙ্গে সময় কাটাতে তো আমার দারুণ লাগে। ওদের থেকে অনেক কিছু শেখা যায়। আর ওদেরকে শেখানোর তো মজাই আলাদা।” আজ থেকে শনি ও রবি ঠিক রাত সাড়ে ৮ টায় সম্প্রচারিত হবে ‘সুপার সিঙ্গার জুনিয়র’ শুধুমাত্র স্টার জলসায়।

[ আরও পড়ুন: মুখে অক্সিজেন মাস্ক নিয়ে এজলাসে, নেটদুনিয়ায় ট্রোলড ‘জবা’ ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement