১৫ চৈত্র  ১৪২৬  রবিবার ২৯ মার্চ ২০২০ 

Advertisement

পাচ্ছিলেন না মনের মতো চরিত্র, মানসিক অবসাদে আত্মঘাতী উদীয়মান অভিনেত্রী

Published by: Bishakha Pal |    Posted: February 10, 2020 8:14 pm|    Updated: February 10, 2020 8:14 pm

An Images

সৌরভ মাজি, বর্ধমান: রুপোলি জগতে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে কলকাতায় পা রেখেছিলেন। কিন্তু টলিপাড়ায় তেমন বড় সুযোগ কিছুতেই মিলছিল না। গ্রাস করছিল হতাশা, মানসিক অবসাদ। স্বপ্নভঙ্গে জীবন দুর্বিষহ হয়ে উঠেছিল। শেষ পর্যন্ত করুণ পরিণতি ঘটল উদীয়মান অভিনেত্রীর। রবিবার রাতে বাড়িতেই গলায় ওড়নার ফাঁস লাগিয়ে ঝুলে পড়েন বর্ধমান শহরের মোহনবাগের বাসিন্দা সুবর্ণা যশ (২৩)। পরিবারের লোকজন তাঁকে উদ্ধার করে বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলেও শেষ রক্ষা হয়নি। চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন তাঁকে।

সোমবার বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে এসেছিলেন সুবর্ণার বাবা নিখিল যশ। তিনি জানান, শহরের বিদ্যার্থীভবন গার্লস স্কুল থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পাস করার পর কলকাতায় সাংবাদিকতা নিয়ে পড়াশোনা করতে যান সুবর্ণা। তিন বছরের কোর্স। তারই ফাঁকে মডেলিংও শুরু করেন। টালিগঞ্জে যাতায়াত বাড়ে। মেগা সিরিয়ালে অভিনয়ের সুযোগও পান তিনি। কয়েকটি সিরিয়ালে পার্শ্বচরিত্রে অভিনয় শুরু করেন। মেগাতেও সুযোগ মেলে। তবে নায়িকার বান্ধবীর চরিত্রে। নিখিলবাবু জানান, ‘ময়ূরপঙ্খী’ সিরিয়ালে নায়িকার বান্ধবীর চরিত্র পেয়েছিলেন সুবর্ণা। কিন্তু কিছু লিড কোনও রোল পাচ্ছিলেন না। বছর দুয়েক ধরে টলিপাড়ায় যাতায়াত করেও ভাল রোল না মেলায় হতাশা ভুগতে শুরু করেন এই তরুণী। মানসিক অবসাদ গ্রাস করে তাঁকে।

[ আরও পড়ুন: ছোটপর্দায় নতুন এক গুণের আত্মপ্রকাশ প্রিয়াঙ্কার, জানেন কী? ]

মাস চারেক আগে এই কারণে শারীরিকভাবে অসুস্থও হয়ে পড়েন। তাঁকে বর্ধমানের বাড়িতে ফিরিয়ে নিয়ে আসেন পরিবারের লোকজন। কিন্তু তারকা হওয়ার স্বপ্ন ছাড়তে পারেননি। ফলে অবসাদ বাড়তে থাকে। সেই কারণের সুবর্ণা আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছেন বলে মনে করছে পরিবারের লোকজন। সুবর্ণার বাবা একটি বেসরকারি সংস্থায় কাজ করেন। মধ্যবিত্ত পরিবার। সেখান থেকে অভিনয় জগতে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার স্বপ্নে বিভোর ছিলেন। কিন্তু আশানুরূপ রোল না মেলায় অবসাদের শিকার হন তিনি। কয়েকমাস আগে অসুস্থ হলে তাঁকে বাড়িতে ফিরিয়ে এনে চিকিৎসা করানো হয়। মন ভাল করতে আত্মীয়দের বাড়িতেও ঘুরতে নিয়ে যাওয়া হয়। কয়েকদিন আগে ফের বর্ধমানের বাড়ি ফেরেন। রবিবার বিকেলে নিখিলবাবু বাড়িতে ছিলেন না। মায়ের সঙ্গে সুবর্ণা বাড়িতে ছিলেন। নিজের ঘরে ছিলেন সুবর্ণা। মা অন্য কাজে ব্যস্ত ছিলেন। আচমকাই সেই সুযোগে সুবর্ণা গলায় ওড়নার ফাঁস লাগিয়ে সিলিং থেকে ঝুলে পড়েন। স্থানীয়দের সহায়তায় তাঁকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলেও বাঁচানো যায়নি। স্বপ্নভঙ্গের যন্ত্রণা নিয়ে বিদায় নিলেন উদীয়মান অভিনেত্রী।

[ আরও পড়ুন: রূপকথার ধারাবাহিকে আবারও নতুন অবতারে চান্দ্রেয়ী ঘোষ, উচ্ছ্বসিত অভিনেত্রী ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement