BREAKING NEWS

১৩ কার্তিক  ১৪২৭  শুক্রবার ৩০ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

বাঁচল আরে বনভূমি, বিতর্কিত মেট্রো কারশেড সরানোর নির্দেশ মহারাষ্ট্র সরকারের

Published by: Paramita Paul |    Posted: October 11, 2020 8:04 pm|    Updated: October 11, 2020 10:19 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অবশেষে দীর্ঘ লড়াইয়ে জয়। বিতর্কিত মেট্রো কারশেড প্রকল্পকে স্থানান্তরিত করল মহারাষ্ট্র সরকার। রবিবার মুম্বইয়ের আরে অঞ্চলের ৮০০ একর জমিকে সংরক্ষিত অরণ্য হিসেবে ঘোষণা করলেন উদ্ধব ঠাকরে।

আরে অঞ্চলে মেট্রো কারশেড করার বিপক্ষে আন্দোলনে নেমেছিলেন পরিবেশপ্রেমীরা। এদিন তাঁদের সেই আন্দোলনের জয় হল বলেই মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল। এদিন এক ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে ঘোষণা করেন, “মেট্রো কারশেড প্রকল্পটিকে মুম্বইয়ের আরে কলোনি থেকে কঞ্জুরমার্গের একটি সরকারি জমিতে স্থানান্তরিত হবে। এই কাজে কোনও বাড়তি ব্যয় হবে না। কারণ জমিটি বিনামূল্যে পাওয়া যাবে।” আরেতে ইতিমধ্যে একটি ভবন তৈরি হয়েছে। তার কী হবে? জবাব উদ্ধব জানান, “আরে এলাকায় গড়ে ওঠা ভবনটি জনসাধারণের কাজে ব্যবহার করা হবে। ফলে এখানে যে ১০০ কোটি টাকা খরচ হয়েছিল, তাও জলে যাবে না।”

[আরও পড়ুন : এবার থেকে হাই স্পিড ট্রেনের সব কোচই এসি! ভাড়া কত বাড়বে, জানাল রেল]

উল্লেখ্য, ইতিমধ্যেই আরে (Aarey) এলাকার ছ’শো একর জমিকে সংরক্ষিত অরণ্য হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। এদিন তার পরিমাণ বাড়িয়ে ৮০০ একর করা হল। অ্যারের বনাঞ্চলে বসবাসকারী আদিবাসীদের অধিকার যাতে কোনও ভাবেই লঙ্ঘিত না হয়, তার দিকে কড়া নজর রাখারও আশ্বাস দিয়েছেন মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী।

২৩ হাজার ১৩৬ কোটি টাকার কোলাবা-বান্দ্রা মেট্রো প্রকল্পের কাজ শুরু হয়েছে। এই প্রকল্পের কারশেড তৈরি করার জন্য এই আরে অঞ্চলটিকে বেছে নেওয়া হয়েছিল। সেই উদ্দেশ্যে ৩০ একর জমির গাছ কাটা হচ্ছিল। এদিকে মুম্বইয়ের আরে অঞ্চলটি ‘গ্রিন ট্র্যাক্ট’ হিসেবে পরিচিত। প্রতিবাদে কয়েক বছর ধরে প্রতিবাদ-আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছিলেন পরিবেশ প্রেমীরা। সেই লড়াইয়ে শেষমেশ জয় মিলল!রাজ্যের পরিবেশমন্ত্রী আদিত্য ঠাকরেও আরের গাছগুলি রক্ষার লড়াইয়ে অংশ নিয়েছিলেন। এ দিন সংরক্ষিত অরণ্য ঘোষণার পর আদিত্য টুইট করেন, আরে বাঁচল!

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement