২  ভাদ্র  ১৪২৯  বুধবার ১৭ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

আততায়ীদের ফাঁসি চাই, মুখ্যমন্ত্রীকে কাছে পেয়ে দাবি উদয়পুর কাণ্ডে নিহতের পরিজনদের

Published by: Kishore Ghosh |    Posted: June 30, 2022 3:54 pm|    Updated: June 30, 2022 6:33 pm

After Meeting with Ashok Gehlot Udaipur Tailor's Family say

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রাজস্থানে (Rajashtan) নৃশংস হত্যাকাণ্ডের পর বৃহস্পতিবারও থমথমে পরিবেশ। রাজ্যের অধিকাংশ জায়গাতেই কারফিউ বহাল রয়েছে। পুলিশি অনুমতি নিয়ে এদিন কানহাইয়া লালের খুনের প্রতিবাদে উদয়পুরে (Udaipur) মিছিল করে বেশ কয়েকটি হিন্দুত্ববাদী সংগঠন। ওই মিছিল পাথর ছোড়া হয় বলে খবর। তবে বড় অশান্তি হয়নি। এই পরিবেশেই আজ কানহাইয়া লালের পরিবারের সঙ্গে দেখা করলেন মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট (Ashok Gehlot)। পরিবারের হাতে তুলে দিলেন মোটা অঙ্কের আর্থিক সাহায্য। পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দিলেন। অন্য দিকে নিহতের পরিবার অপরাধীদের ফাঁসির দাবি জানাল।  

গেহলটের সঙ্গে এদিন ছিলেন ছিলেন মুখ্যসচীব উষা শর্মা ও ডিজিপি এমএল লাথার। গতকাল রাজস্থানের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে সর্বদলীয় বৈঠকের পরেই নিহতের পরিবারের জন্য ৫১ লক্ষ টাকা আর্থিক সাহায্যের কথা ঘোষণা করেন গেহলট। এছাড়াও পরিবারের একজনকে চাকরি দেওয়া হবে বলেও জানান। এরপর আজ উদয়পুরে কানহাইয়া লালের পরিবারের সঙ্গে দেখা করেন।

পরিবারের হাতে চেক তুলে দেওয়ার পর গেহলট বলেন, আমি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর (Amit Shah) সঙ্গে কথা বলব, যাতে এক মাসের মধ্যে ঘটনার তদন্ত শেষ হয়। অন্যদিকে কানহাইয়ালের পরিবার মুখ্যমন্ত্রীর কাছে দাবি করলেন, অপরাধীদের ফাঁসির শাস্তি চাই। উল্লেখ্য, এদিন রাজসমন্দের ভিম শহরতলিতে অশান্তি থামাতে গিয়ে জখম হওয়া পুলিশ কনস্টেবলের সঙ্গেও দেখা করেন গেহলট।

[আরও পড়ুন: জুবেইরের বিরুদ্ধে অভিযোগ করা টুইটার অ্যাকাউন্টটি উধাও, ভয় দেখানো হয়েছে, দাবি পুলিশের]

এদিকে রাজ্যে নতুন করে অশান্তি না ছড়ালেও পরিবেশ থমথমে। বহু শহরে হিন্দু সংগঠনগুলি হত্যার প্রতিবাদ মিছিল করছে। উদয়পুরে মিছিল বার করে ‘সর্ব হিন্দু সমাজ’। সেখান পাথরবৃষ্টির অভিযোগ ওঠে। যদিও পুলিশ পরিস্থিতি সামাল দেয়। পুলিশের অনুমতি নিয়েই হিন্দুত্ববাদী সংগঠনটি মিছিল বার করেছিল। এর জন্য কিছুক্ষণের জন্য কারফিউ শিথিল করা হয়। জয়পুরের স্কুল, বাজার-দোকান বন্ধ। পরিস্থিতি এমন যে লোকে খাবার আনতেও বাড়ি থেকে বেরোতে ভয় পাচ্ছে। অন্যদিকে কারফিউ এবং বর্তমান উত্তেজনার কারণে দিনমজুরদের উপার্জন বন্ধ হয়ে গিয়েছে। সব মিলিয়ে সাধারণ জনজীবন স্তব্ধ।

[আরও পড়ুন: শুক্রবার থেকেই বড় পরিবর্তন আয়করে, জেনে নিন নয়া নিয়মগুলি]

এদিকে কানহাইয়া লালের মৃত্যুর পরে তাঁর পরিবারকে সাহায্য করার জন্য একটি তহবিল গঠন করেছিলেন বিজেপি নেতা কপিল মিশ্র। বিজেপি নেতা জানিয়েছেন, ওই তহবিলে ২৪ ঘন্টার মধ্যে ১২ হাজারের বেশি মানুষ অর্থ সাহায্য করেছেন। এখনও অবধি মোট অর্থের পরিমাণ ১ কোটি ৩৫ লক্ষ। সময় মতো ওই টাকা কানহাইয়া লালের পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হবে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে