৫ মাঘ  ১৪২৬  রবিবার ১৯ জানুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo ফিরে দেখা ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের বিতর্কে এআইএমআইএম (AIMIM) সাংসদ আসাদুদ্দিন ওয়েইসি (Asaduddin Owaisi)। তেলেঙ্গানায় এক নির্বাচনী জনসভায় ভোটারদের ঘুষ নিতে উৎসাহ দেওয়ার অভিযোগ তাঁর বিরুদ্ধে। নির্বাচন কমিশনের নিয়ম অনুযায়ী, টাকার বিনিময়ে ভোট দেওয়া এবং নেওয়া, দুটোই বেআইনি। অথচ, হায়দরাবাদের সাংসদ ওই জনসভা থেকেই ভোটারদের কংগ্রেসের কাছে থেকে নগদ টাকা নেওয়ার পরামর্শ দেন। তাঁর কথায়, “কংগ্রেসে অনেক ধনী লোক আছে। ওদের কাছ থেকে আপনারা টাকা নিন। কিন্তু, ভোটটা আপানারা আমাকেই দেবেন। কারণ, এই টাকা আপনারা পাচ্ছেন আমার জন্যই।” ওয়েইসির এই মন্তব্যে তীব্র বিতর্ক তৈরি হয়েছে রাজনৈতিক মহলে।

ওয়েইসির সঙ্গে কংগ্রেসের শত্রুতা নতুন কিছু নয়। তেলেঙ্গানায় কংগ্রেস এবং ওয়েইসির এআইএমআইএম পরস্পরের বিরোধী দল। বিশেষ করে হায়দরাবাদে। নিজামের শহর থেকেই লোকসভায় নির্বাচত হন এআইএমআইএম প্রধান। আর সেখানে তাঁর প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী এই কংগ্রেসই। তাই, ভোটের ময়দানে কংগ্রেসকে এক ইঞ্চি জমিও ছাড়তে রাজি নন আসাদুদ্দিন। আপাতত তেলেঙ্গানায় স্থানীয় পুর নির্বাচনের প্রস্তুতি চলছে। এই নির্বাচনের প্রচারে গিয়েই কংগ্রেসকে একহাত নিয়েছেন আসাদুদ্দিন।

[আরও পড়ুন: ভরতুকি বাতিলের পর এবার সংসদের খাবারের মেনুতে বদল! মিলবে শুধু নিরামিষ পদ]

গত ১৩ জানুয়ারি তেলেঙ্গানায় এক জনসভায় তিনি বলেন, “কংগ্রেসের লোকজনের অনেক টাকা আছে। ওঁরা যদি আপনাদের টাকা দিতে চায়, তাহলে আপনারা নিয়ে নেবেন। কিন্তু, ভোট আমাকেই দেবেন। মনে রাখবেন, এই টাকা কিন্তু আমার জন্যই পাচ্ছেন। আর, কংগ্রেসের লোকজনকে বলুন ভোটের দামটা আরেকটু বাড়াতে। আমার দাম মাত্র ২ হাজার টাকা নয়। আমি আরও বেশি দামী।” ওয়েইসির এই মন্তব্যে বিতর্ক ছড়িয়েছে। ওয়েইসিকে বিজেপির দালাল বলে আগেই কটাক্ষ করেছে কংগ্রেস। এদিন তাঁদের অভিযোগ, গেরুয়া শিবিরের সুবিধা করে দিতেই কংগ্রেসকে দুর্বল করার চেষ্টা করছেন হায়দরাবাদের সাংসদ।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং