BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

মহামারী আবহে আরও দামি হচ্ছে হ্যান্ড স্যানিটাইজার! ১৮ শতাংশ GST চাপাল কেন্দ্র

Published by: Paramita Paul |    Posted: July 15, 2020 6:53 pm|    Updated: July 15, 2020 7:15 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অন্ন-বস্ত্র-বাসস্থানের মতো এখন অতিপ্রয়োজনীয় হ্যান্ড স্যানিটাইজার। করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করতে প্রতিটি মূহুর্তে এটার প্রয়োজন। অথচ সেই নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য অ্যালকোহল ভিত্তিক স্যানিটাইজারের দাম বাড়তে চলেছে। একধাক্কায় তার উপর ১৮ শতাংশ জিএসটি চাপিয়েছে সরকার। স্বভাবতই এর ফলে হ্যান্ড স্যানিটাইজারের দাম হবে আকাশ ছোঁয়া। ফলে দিন আনা দিন খাওয়া মানুষগুলি কীভাবে হ্যান্ড স্যানিটাইজার কিনবেন, তা চিন্তা বিষয় হয়ে দাঁড়াতে চলেছে।

Authority for Advance Ruling বা এএআর জানিয়েছে, সমস্ত অ্যালকোহল-ভিত্তিক হ্যান্ড স্যানিটাইজারের উপর ১৮ শতাংশ জিএসটি প্রয়োগ করা হবে। কারণ এগুলি অ্যালকোহল ভিত্তিক ‘হাইজিন প্রোডাক্ট’র অধীনে পড়ছে। তাই এটা অতিপ্রয়োজনীয় বা এসেনসিয়াল কমোডিটিস হলেও জিএসটি থেকে ছাড় পাবে না। গোয়ার স্প্রিংফিল্ড ইন্ডিয়া ডিস্টিলারিজের একটি আবেদনের জবাবেই এই কথা জানিয়েছে AAR। কেন্দ্রের আগেই সিদ্ধান্ত নিয়েছিল যে, হ্যান্ড স্যানিটাইজারের উপর ১৮ শতাংশ কর চাপানো হবে। তার বিরুদ্ধে Authority for Advance Ruling-এর দ্বারস্থ হয়েছিল সংশ্লিষ্ট সংস্থা। তাঁদের দাবি ছিল, এটা স্বাস্থ্য ব্যবস্থার সঙ্গে জড়িত পণ্য। তাই এটার উপর ১২ শতাংশ জিএসটি চাপানো হোক। সে আরজি খারিজ হয়ে গিয়েছে। 

[আরও পড়ুন : ফোনের ওপারের ব্যক্তি জীবন্ত হয়ে উঠবে চোখের সামনে, অত্যাধুনিক ‘Jio Glass’ আনল রিলায়েন্স]

হ্যান্ড স্যানিটাইজারের শ্রেণিবদ্ধকরণের বিষয়ে স্পষ্ট জানতে এবং এই স্যানিটাইজারগুলিকে জিএসটি থেকে ছাড় দেওয়া হবে কিনা তা জানতে স্প্রিংফিল্ড ইন্ডিয়া ডিস্টিলারিজ AAR-এর গোয়া বেঞ্চের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিল। কারণ গ্রাহক বিষয়ক মন্ত্রক হ্যান্ড স্যানিটাইজারকে কিন্তু প্রয়োজনীয় পণ্য হিসাবেই শ্রেণিবদ্ধ করেছে। কর্তৃপক্ষ বলেছে, “আবেদনকারীর দ্বারা উৎপাদিত হ্যান্ড স্যানিটাইজারগুলি অ্যালকোহল-ভিত্তিক স্যানিটাইজারের বিভাগে পড়ে এবং এইচএসএন-এর ৩৮০৮ বিভাগের অধীনে শ্রেণিবদ্ধ করা আছে যেখানে জিএসটি প্রয়োগের হার ১৮ শতাংশ হবে।” কর্তৃপক্ষ আরও জানিয়েছে, জিএসটি আইনে ছাড়যোগ্য পণ্যের পৃথক তালিকা রয়েছে। সেই তালিকায় অ্যালকোহলভিত্তিক হ্যান্ড স্যানিটাইজারের নাম নেই। 

[আরও পড়ুন : দু’মুখো নীতি! বিধায়ক পদ খারিজের নোটিসের পরও পাইলটের জন্য দরজা খোলা কংগ্রেসের]

মহামারী কালে হ্যান্ড স্যানিটাইজার অতিপ্রয়োজনীয় পণ্য। যতক্ষণ না ভ্যাক্সিন মিলছে, ততক্ষণ এই ভাইরাসকে ঠেকাতে একমাত্র উপায় অ্যালকোহলভিত্তিক হ্যান্ড স্যানিটাইজার। কিন্তু তার দামও বেড়ে গেলে, আদও দিন আনা, দিন খাওয়া মানুষজন হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করবেন তো, উঠছে প্রশ্ন। 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement