২০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ৭ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

ভারতে ঢোকার চেষ্টা করলে আর নিস্তার নেই চিনের, অরুণাচলে মোতায়েন বোফর্স কামান

Published by: Paramita Paul |    Posted: October 21, 2021 11:26 am|    Updated: October 21, 2021 11:26 am

Army Missile squad practices to kill 'Enemy Tank' hiding in fog in Arunachal | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আলোচনার টেবিলে সীমান্ত সমস্যা মেটানোর চেষ্টা করছে ভারত-চিন। তবু নিজেদের আগ্রাসী মনোভাব থেকে সরে আসতে নারাজ চিন। কখনও লাদাখ তো কখনও অরুণাচল (Arunachal) নিয়ন্ত্রণরেখায় বারবার অনুপ্রবেশ ঘটাচ্ছে লালফৌজ। তাদের পালটা জবাব দিতে অরুণাচলে ট্যাংক, কামান মোতায়েন করল ভারতীয় সেনা। সঙ্গে চলছে শত্রু ট্যাংক ধ্বংসের সেনা মহড়া। যেন চিনকে বুঝিয়ে দেওয়ার চেষ্টা, এবার নিয়ন্ত্রণরেখা পার করার চেষ্টা করলেই যোগ্য জবাব দেবে ভারত।

অরুণাচলের তাওয়াং সীমান্তে ট্যাংক এবং কামান মোতায়েন করেছে ভারতীয় সেনা। সংবাদ সংস্থা এনএনআই সূত্রে খবর, সীমান্তে আনা হয়েছে এম-৭৭৭ আলট্রা লাইট হাউৎজার (M-777 Ultra-Light Howitzers)। যা চোখের নিমেষে শত্রু ট্যাংককে নিশানা করতে প্রস্তুত। আবার ওজনে হালকা হওয়ায় প্রয়োজনে যে কোনও এলাকায় বহন করতে সুবিধা পাওয়া যায়। সঙ্গে রয়েছেন বোফর্স (Bofors) কামান। এর আগে একাধিক যুদ্ধে তাদের কার্যকারিতা প্রমাণ করেছে এই কামান।

 

[আরও পড়ুন: টিকাকরণে বিশ্বরেকর্ড ভারতের, মাত্র ২৭৯ দিনে ১০০ কোটি ভ্যাকসিনের গণ্ডি পেরল দেশ]

শুধু সমরাস্ত্র মজুত করাই নয়। চিন সীমান্তের খুব কাছেই চলছে সামরিক মহড়া। বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই তাওয়াং সেক্টরে যুদ্ধের মহড়া চলছে। সংবাদ সংস্থা এনএনআইয়ের ভিডিওতে দেখা গিয়েছে, কুয়াশায় মোড়া পাহাড়ি অঞ্চলে দু’দলে ভাগ হয়ে চলছে অনুশীলন। একদল পাহাড়ের আড়ালে লুকিয়ে শত্রুদের গতিবিধির উপর নজর রাখছে। তাদের কাছ থেকে সিগন্যাল পেলেই আরেক দল তৈরি করে ফেলছে শত্রু ট্যাংক ধ্বংসের মালমশলা। চোখের নিমেষে বোফর্স বা হাউৎজার থেকে ছুটে যাচ্ছে গোলা। গুড়িয়ে যাচ্ছে ট্যাংক, সমরাস্ত্র। সাম্প্রতিক সময় অরুণাচলের তাওয়াং সেক্টরে এই অনুশীলন যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

 

[আরও পড়ুন: Petrol-Diesel Prices: দেড় মাসে ২০ বার! ফের বাড়ল পেট্রল-ডিজেলের দাম, নির্বিকার প্রশাসন]

সূত্রের খবর, কয়েকদিন আগে তাওয়াং সেক্টরে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখার অত্যন্ত কাছাকাছি চলে আসে চিনা ফৌজের একটি বাহিনী। তবে ভারতের সতর্ক রক্ষীরা তাদের আটকে দেয়। ফলে আবারও মুখোমুখি চলে আসে দুই দেশের ফৌজ। ক্রমে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে পরিস্থিতি। শুরু হয় বাকবিতণ্ডা, যা ধাক্কাধাক্কি পর্যন্ত গড়ায়। গত সপ্তাহে হওয়া এই সংঘাত চলে বেশ কয়েক ঘণ্টা। কিন্তু সঠিক সময়ে স্থানীয় কমান্ডারদের হস্তক্ষেপে আপাতত পরিস্থিটি নিয়ন্ত্রণে এসেছে। জানা গিয়েছে, এই ঘটনায় কোনও ভারতীয় সৈনিক আহত হননি।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে