BREAKING NEWS

১৯ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  সোমবার ৬ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

Kiran Gosavi: আরিয়ান খান মামলায় চাঞ্চল্যকর মোড়, এনসিবির সাক্ষী কিরণ গোসাভিকে গ্রেপ্তার করল পুণে পুলিশ

Published by: Paramita Paul |    Posted: October 28, 2021 9:47 am|    Updated: October 28, 2021 3:45 pm

Aryan Khan case 'Witness' detained in Pune in Fraud case | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আরিয়ান খান (Aryan Khan) গ্রেপ্তারি মামলায় চাঞ্চল্যকর মোড়। শাহরুখপুত্রের মাদক যোগ কাণ্ডে এনসিবির অন্যতম সাক্ষী কিরণ গোসাভিকে (Kiran Gosavi) আটক করল পুণে পুলিশ। পরে তাকে গ্রেপ্তার করে আদালতে তোলা হয়। পুরনো একটি প্রতারণা মামলায় বুধবার রাতে তাঁকে আটক করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন পুণের পুলিশ কমিশনার অমিতাভ গুপ্ত। সম্প্রতি আরিয়ান কাণ্ডে ঘুষের লেনদেন সংক্রান্ত বিতর্কে নাম জড়িয়েছিল এই কিরণের। কিন্তু কে এই কিরণ গোসাভি?

২ অক্টোবর রাতে মুম্বইয়ের প্রমোদতরীতে এনসিবি (NCB) কর্তারা যখন হানা দেয় সেই সময় সেখানে হাজির ছিলেন কিরণ। সেই পার্টিতে শাহরুখপুত্রের সঙ্গে তাঁর ছবিও রয়েছে। এমনকী, আরিয়ানের গ্রেপ্তারির পরও তাঁর সঙ্গে সেলফি তুলেছিলেন এই কিরণ। এই দুই ছবি-ভিডিও একাধিক প্রশ্ন তুলে দেয়। প্রমোদতরীতে এনসিবির হানার সময় একজন ‘স্বাধীন সাক্ষী’ হাজিরা নিয়ে প্রশ্ন ওঠে। এনসিবি তাঁকে সাক্ষীও করেছে। তা নিয়েও বিতর্ক কম হয়নি। কিরণের নিরপেক্ষতা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন মহারাষ্ট্রের একাধিক নেতা। এবার পুরনো এক মামলায় পুণে পুলিশ তাঁকে আটক করায় বেড়েছে বিতর্ক।

[আরও পড়ুন: Petrol Diesel Price: কলকাতায় সেঞ্চুরি পেরিয়ে গেল ডিজেল, রুটিন মেনে বাড়ল পেট্রলের দামও]

পুণের পুলিশ কমিশনার অমিতাভ গুপ্ত জানিয়েছেন, চাকরির নামে প্রতারণা মামলায় ২০১৮ সালে কিরণ গোসাভির বিরুদ্ধে লুক আউট নোটিস জারি করেছিল পুলিশ। কিন্তু তিনি নিখোঁজ ছিলেন। এনসিবি আরিয়ান খানের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করতেই ফের কিরণের হদিশ মেলে। তার পরই এনসিবির অন্যতম সাক্ষীকে আটক করা হল বলে নিশ্চিত করেছেন অমিতাভ গুপ্ত।

 

[আরও পড়ুন: বিশ্বকাপে পাকিস্তানের জয়ে উচ্ছ্বাস করলেই রাষ্ট্রদ্রোহের মামলা, হুমকি যোগী আদিত্যনাথের]

এ প্রসঙ্গে বলে রাখা দরকার, দিন কয়েক ধরেই আতঙ্কে ভুগছিলেন কিরণ। তিনি মহারাষ্ট্রে আতঙ্কে রয়েছেন বলেও জানিয়েছিলেন। এর মাঝেই তাঁকে আরিয়ান মামলায় ঘুষ নিয়ে কথা বলতে শোনেন বলে দাবি করেন প্রভাকর সইল। তিনি নিজেকে কিরণের দেহরক্ষী বলে দাবি করে বলেছিলেন, ফোনে আরিয়ান মামলা নিয়ে ২৫ কোটি টাকা ঘুষের কথা বলছিলেন কিরণ। ১৮ কোটি টাকায় রফারও পরমার্শ দিয়েছিলেন তিনি। তার মধ্যে ৮ কোটি টাকা এনসিবি কর্তা সমীর ওয়াংখেড়ের জন্য। যদিও তাঁর অভিযোগ অস্বীকার করে কিরণ পালটা প্রভাকরের কল রেকর্ড এবং চ্যাট প্রকাশ্যে আনার দাবি জানান। পাশাপাশি, মহারাষ্ট্রের বিরোধী অর্থাৎ বিজেপি বিধায়কদের তাঁর পাশে দাঁড়ানোর আবেদন জানিয়েছেন কিরণ।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে