২৪  মাঘ  ১৪২৯  বুধবার ৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

CAA বিরোধী নাটকের জেরে দেশদ্রোহিতার মামলা, প্রতিবাদ জানাতে গিয়ে আটক সিদ্দারামাইয়া

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: February 15, 2020 3:50 pm|    Updated: February 15, 2020 3:51 pm

Bidar sedition case: Siddaramiah protests, detained in Bengaluru

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (CAA)’র বিরোধিতায় কর্ণাটকের বিদার জেলার একটি স্কুলে নাটক মঞ্চস্থ হয়েছিল। আর তাতে ছিল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিরোধিতা করে কিছু ডায়ালগ। যার জেরে স্কুল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে দেশদ্রোহিতার মামলা দায়ের করে ইয়েদুরাপ্পা প্রশাসন। শুধু তাই নয়, ওই স্কুলের অধ্যক্ষা ফরিদা বেগম এবং এক পড়ুয়ার মাকে গ্রেপ্তার করে জেলেও পাঠায়। গত বৃহস্পতিবার প্রায় দু সপ্তাহ বাদে জামিন পেয়েছেন তাঁরা। শনিবার এই মামলার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতে কর্ণাটকের রাজধানী বেঙ্গালুরুতে একটি কর্মসূচির আয়োজন করা হয়েছিল বিরোধী দল কংগ্রেসের তরফে। মুখ্যমন্ত্রী বিএস ইয়েদুরাপ্পার বাড়ির সামনে পর্যন্ত মিছিল করে গিয়ে প্রতিবাদ জানানোর কথা ছিল। সেই কর্মসূচির সময় প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী সিদ্দারামাইয়া-সহ একাধিক কংগ্রেস নেতাকে আটক করল প্রশাসন। বিষয়টি নিয়ে তীব্র উত্তেজনা দেখা দিয়েছে কর্ণাটকে।

ঘটনাটির সূত্রপাত হয় গত ২১ জানুয়ারি। বিদার জেলায় শাহিন গ্রুপ অব ইনস্টিটিউটের অনুদানে চলা ওই স্কুলে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরোধিতা একটি নাটক মঞ্চস্থ করা হয়। তাতে অংশ নিয়েছিল চতুর্থ থেকে ষষ্ঠ শ্রেণির বেশ কয়েকজন পড়ুয়া। নাটক মঞ্চস্থ হওয়ার দিন এই বিষয়টি নিয়ে কোনও উত্তেজনা তৈরি হয়নি। কিন্তু, পরে এর ভিডিও প্রকাশ্যে আসতেই একজন স্থানীয় পুলিশের কাছে একটি অভিযোগ দায়ের করেন। এতেই নড়েচড়ে বসে প্রশাসন। অভিযোগ ছিল, ওই নাটকের সংলাপে না থাকলেও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নামে নিজের ছেলেকে দিয়ে বাজে মন্তব্য করান এক মহিলা। বিষয়টি জানা সত্ত্বেও তাতে মদত দেন ওই স্কুলের অধ্যক্ষা। এর জেরে ওই দুজনকে গ্রেপ্তার করে জেলে পাঠানো হয়।

[আরও পড়ুন: সাফাইকর্মী থেকে অটোচালক, ‘আম আদমি’দের নিয়েই শপথ নেবেন কেজরিওয়াল ]

 

এই ঘটনার কথা জানাজানি হতেই কর্ণাটকের অন্যান্য স্কুলের অভিভাবকরা বিষয়টির নিন্দা করে প্রতিবাদে সরব হয়েছিলেন। স্থানীয় পুলিশ কমিশনারকে খোলা চিঠিও পাঠিয়েছিলেন। বিরোধী কংগ্রেসের তরফে কর্ণাটক পুলিশের DIG ও IG’র সঙ্গে দেখা করে তদন্ত প্রক্রিয়া নিয়েও উদ্বেগপ্রকাশ করা হয়েছিল। গত বৃহস্পতিবারও টুইট করে এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করেন রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ও কংগ্রেস নেতা সিদ্দারামাইয়া। তাঁর অভিযোগ ছিল, এইভাবে একজন মায়ের গ্রেপ্তারির ঘটনা অসাংবিধানিক ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। একজন মায়ের থেকে তাঁর সন্তানকে দূরে সরিয়ে রাখার এই ঘটনার জন্য রাজ্যের মানুষ মুখ্যমন্ত্রী বিএস ইয়েদুরাপ্পাকে কোনওদিন ক্ষমা করবেন না।

[আরও পড়ুন: শাহিনবাগ নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্যের জের, গিরিরাজ সিংকে জরুরি তলব জেপি নাড্ডার ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে