৭ আষাঢ়  ১৪২৮  মঙ্গলবার ২২ জুন ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

শিশুমৃত্যুর প্রতিবাদের মাশুল! বিহারে এফআইআর দায়ের ৩৯ জন সন্তানহারার বিরুদ্ধে

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: June 25, 2019 7:32 pm|    Updated: June 25, 2019 7:32 pm

Bihar govt sinks deeper into apathy as 39 parents booked for protesting.

ফাইল ফটো

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এনসেফালাইটিসের পাশাপাশি রাজ্যজুড়ে বাড়ছে জলের সমস্যা। পরিস্থিতি এমন জায়গায় পৌঁছেছে যে শিশুমৃত্যু নিয়ে বিহার সরকারকে ভর্ৎসনা করেছে সুপ্রিম কোর্ট। কিন্তু, তারপরও তাদের যে কোনও হেলদোল নেই তা ফের প্রমাণ হল! শিশুমৃত্যুর প্রতিবাদ ও জলের দাবিতে বিক্ষোভ দেখানোর জেরে এফআইআর দায়ের করা হল ৩৯ জন অভিভাবকের নামে।

[আরও পড়ুন- মহিলার মোবাইল চুরি সরকারি ক্লার্কের! ভাইরাল বেধড়ক মারের ভিডিও]

গত কয়েকদিনে বিহারের মুজফ্ফরপুরে এনসেফালাইটিসের জেরে প্রাণ হারিয়েছে ১৩১ জন মানুষ। এর মধ্যে শ্রীকৃষ্ণ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে মৃত্যু হয়েছে ১১১ জনের। আর বেসরকারি কেজরিওয়াল হাসপাতালে মারা গিয়েছে ২০ জন। পুরো বিহারে মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ১৮০। এই মৃত্যু মিছিলের পাশাপাশি মুজফ্ফরপুর ও বৈশালী এলাকায় গত দু’মাস ধরে জলকষ্টে ভুগছেন সাধারণ মানুষ। বারবার প্রশাসনকে জানিয়েও কোনও লাভ হয়নি। তাই বাধ্য হয়ে বিক্ষোভ দেখানোর পথে হাঁটেন তাঁরা। রাস্তা অবরোধও করেন। আর সেটাই কাল হয়ে দেখা দিল! সমস্যার সমাধান তো হলই না উলটে এফআইআর দায়ের করা হল তাঁদের একাংশের নামে।

স্থানীয়দের অভিযোগ, “গত দু’মাস ধরে অতিরিক্ত গরম পড়েছে। বর্ষা ঢুকতে দেরি হওয়ায় বৃষ্টিও হয়নি। তাই জীবন দুর্বিষহ হয়ে উঠেছে। বিষয়টি বারবার স্থানীয় জনপ্রতিনিধিকে জানিয়েও কোনও লাভ হয়নি। উলটে তিনি আর কোনও ফোন কল ধরছেন না। আবেদন জানাতে গেলেও নিচ্ছেন না। বাধ্য হয়ে বিক্ষোভ দেখাতে হয়েছে।” কিন্তু, বিক্ষোভ দেখানোর জেরে যে এই অবস্থা হবে তা বুঝে উঠতে পারেননি কেউ।

[আরও পড়ুন- মন্দিরে ঢুকে পড়ল আস্ত কুমির, ভয় না পেয়ে দেবজ্ঞানে পুজো করলেন গ্রামবাসীরা]

বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পরে সমালোচনার ঝড় উঠেছে। বিহার সরকারের অমানবিকতার বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন বিভিন্ন ক্ষেত্রের বিশিষ্টরা। আর বিরোধীরা বলছেন, মূল সমস্যার সমাধান না করে সাধারণ মানুষের উপর আক্রমণ স্বেচ্ছাচারী শাসনের উদাহরণ!

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement