BREAKING NEWS

২৪  মাঘ  ১৪২৯  বৃহস্পতিবার ৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

বিজেপি বিধায়করাই খরচ করেননি তহবিলের টাকা, গুজরাটে নয়া অস্বস্তিতে গেরুয়া শিবির

Published by: Kishore Ghosh |    Posted: December 4, 2022 12:11 pm|    Updated: December 4, 2022 3:43 pm

BJP MLA's lad funds unspent and set to lapse in Gujarat | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আর কিছু দিন পরেই গুজরাটে (Gujarat) গঠিত হবে নতুন বিধানসভা, নতুন সরকার। তার আগে রাজ্য সরকারের প্রকাশিত রিপোর্টেই অস্বস্তিতে পড়ল সে রাজ্যে প্রায় তিন দশক ধরে ক্ষমতায় থাকা বিজেপি (BJP)। রিপোর্ট বলছে, সে রাজ্যের অধিকাংশ জনপ্রতিনিধি বিধায়ক উন্নয়ন তহবিলের টাকাই খরচ করতে পারেননি। যা মোট বরাদ্দ হওয়া অর্থের প্রায় এক-চতুর্থাংশ।

গত পাঁচ বছরে মোট বরাদ্দ হয়েছিল ১,০৭৬ কোটি টাকা। এখনও থেকে গিয়েছে ২৭২ কোটি টাকা! নিজ নিজ এলাকায় বিভিন্ন উন্নয়নমূলক প্রকল্পে যা খরচ হওয়ার কথা ছিল। সরকারের প্রশাসনিক দপ্তরের অনলাইন রিপোর্ট বলছে, ২০১৭ সাল থেকে ২০২২ সাল পর্যন্ত পাঁচ বছরে বিধায়ক তহবিলের মধ্যে ৮০৩.৯৮ কোটি টাকার কাজ হয়েছে। মোদির রাজ্যে ৪৬,০৬৮টি প্রকল্পের কাজ শেষ হয়েছে। ৯,৮১৫টি উন্নয়নমূলক কাজ শুরুই করা যায়নি। অসম্পূর্ণ থেকে গিয়েছে ৬,৬৮৮টি কাজ। আর মাঝপথেই কাজ থামিয়ে দেওয়া হয়েছে ৫,২১২টি প্রকল্পের।

[আরও পড়ুন: বৈঠকে যোগ দিতে দেশে জি২০ প্রতিনিধিরা, ডালবাটি চুড়মা থেকে যোধপুরি পোলাও, আয়োজন রকমারি]

রাজ্য সরকারের বিড়ম্বনা আরও বেড়েছে কারণ, উন্নয়ন প্রকল্পে অর্থ খরচে ব্যর্থ বিধায়কদের মধ্যে রয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী ভূপেন্দ্র প্যাটেলও (Bhupendrabhai Patel)। ঘাটলোড়িয়া কেন্দ্রের এই বিধায়ক তাঁর বিধায়ক তহবিলের ২৭ শতাংশই খরচ করতে পারেননি। রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রুপানির রাজকোট (পশ্চিম) কেন্দ্রে খরচ হয়নি বিধায়ক তহবিলের ৪২ শতাংশ টাকাই। যদিও এর প্রভাব ভোটে কতটুকু পড়বে তা নিয়ে প্রশ্ন রয়ছে।

[আরও পড়ুন: দেশভাগের সময়ই পাকিস্তানে চলে যাওয়া উচিত ছিল মুসলিমদের, বিস্ফোরক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী]

ফলে যখন নিজের গড়ে উদয়অস্ত পরিশ্রম করছেন ভূপেন্দ্রভাই প্যাটেল (Bhupendra Bhai Patel)। তখন বিরোধীদের অনীহা দেখা যাচ্ছে প্রচারে। এমনিতেই দৌড়ে পিছিয়ে দুই প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী কংগ্রেসের (Congress) রাজ্যসভার সাংসদ আমেবেন ইয়াগনিক ও আম আদমী পার্টির (Aam Aadmi Party) বিজয় প্যাটেল। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর একটাই চিন্তা। প্যাটেল সম্প্রদায়ের ভোট। আপের প্রার্থীও যে প্যাটেল সম্প্রদায়ের। প্যাটেল ভোটে কতটা ভাগ বসায় তার ওপর নির্ভর করছে প্রথম ও দ্বিতীয়র ব্যবধান। তবে এবার মুখ্যমন্ত্রীকে রেকর্ড ভোটে জেতানোর পন করেছেন স্বরাষ্টমন্ত্রী অমিত শাহ (Amit Shah)। দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর মুখ রক্ষাই চ্যালেঞ্জ ভূপেন্দ্রভাই প্যাটেলের।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে