২১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  বুধবার ৮ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

মাসুদকে অতিথির মতো রেখে এখন তার নামে ভোট চাইছে, বিজেপিকে কটাক্ষ মায়াবতীর

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: May 2, 2019 4:24 pm|    Updated: May 2, 2019 4:24 pm

BJP treated Azhar as guest, now wants votes in his name: Mayawati

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: “একসময়ে মাসুদ আজহারকে অতিথির মতো রেখেছিল বিজেপি। আর এখন তাঁর নামে ভোট চাইছে।” বৃহস্পতিবার একটি সংবাদসংস্থাকে সাক্ষাৎকার দেওয়ার সময় এই মন্তব্যই করলেন বিএসপি সুপ্রিমো মায়াবতী। বিজেপিকে কটাক্ষ করে ১৯৯৯ সালের ডিসেম্বর মাসে ইন্ডিয়ান এয়ারলাইন্সের বিমান হাইজ্যাকের কথা উল্লেখ করেন তিনি। বলেন, “কয়েক বছর আগে মাসুদ আজহারকে অতিথির মতো সেবা করেছিল বিজেপি। পরে বিদেশে গিয়ে ছেড়ে দিয়ে আসে। আর এখন নির্বাচনের সময় তার নাম ব্যবহার করে ভোট জোগাড়ের চেষ্টা করছে। এটা অত্যন্ত নিন্দনীয়।”

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ভারতের জেলে বন্দি থাকা মাসুদকে ছাড়াতে ১৯৯৯ সালের ডিসেম্বর মাসে ইন্ডিয়ান এয়ারলাইন্সের কাটমান্ডু থেকে দিল্লিগামী বিমান হাইজ্যাক করে জঙ্গিরা। পরে সেটিকে আফগানিস্তানের কান্দাহারে নিয়ে যায়। বিমানযাত্রীদের জীবনের বিনিময়ে মাসুদকে কান্দাহরে নিয়ে গিয়ে ছেড়ে আসে ভারত। এই ঘটনার সময় দেশের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন প্রয়াত অটলবিহারী বাজপেয়ী। বৃহস্পতিবার সেই বিষয়ের কথাই উল্লেখ করেন উত্তরপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মায়াবতী।

[আরও পড়ুন- ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তৃতীয়বার মাওবাদী হামলা, সুকমায় নিহত দুই গ্রামবাসী]

তবে শুধু তিনিই নন, এপ্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী ও বিজেপিকে কটাক্ষ করেছেন সমাজবাদী পার্টির সুপ্রিমো অখিলেশ যাদব থেকে ভোপালের কংগ্রেস প্রার্থী দিগ্বিজয় সিং। বিজেপির তরফে কেন্দ্রীয় সরকার বা প্রধানমন্ত্রীকে কৃতিত্ব দেওয়ার চেষ্টা হলেও, এটাকে দেশের কূটনৈতিক মহলের জয় বলে উল্লেখ করেছে বিরোধীরা। মধ্যপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী দিগ্বিজয় সিং বলেন, “পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী যখন গর্ব করে মোদিজির সঙ্গে নিজের বন্ধুত্বের কথা প্রচার করে তখন মাসুদ আজহারকে আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদী ঘোষণা করে কী লাভ করে হবে? আমার দাবি, দাউদ ইব্রাহিম, মাসুদ আজহার ও হাফিজ সইদকে এখনই ভারতের হাতে তুলে দেওয়া হোক।”

[আরও পড়ুন- অসময়ের বৃষ্টির জের, হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ল চারমিনারের একাংশ]

বুধবার জইশ-ই-মহম্মদ প্রধান মাসুদ আজহারকে আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদী ঘোষণা করে রাষ্ট্রসংঘ। এরপরই প্রতিরক্ষা মন্ত্রী নির্মলা সীতারামন টুইট করে রাষ্ট্রসংঘের এই ঘোষণার জন্য প্রধানমন্ত্রী মোদির নেতৃত্বের ভূয়সী প্রশংসা করেন। অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলিও এই ঘটনার জন্য কেন্দ্রীয় সরকার এবং প্রধানমন্ত্রীকে তারিফ করা উচিত বলে মন্তব্য করেন। যদিও জয়পুরে সভা করতে গিয়ে এই জয় সমস্ত ভারতবাসীর বলে উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। পাশাপাশি বিরোধীদের কটাক্ষ করে বলেন, “এই জয়ের পরও দেশে কেউ কেউ প্রশ্ন তুলছেন। আমাদের ব্যঙ্গ করেছেন। কিন্তু, আমরা  কাজ করে গিয়েছি। তবে এখন আমি তাঁদের বলতে চাই, এই জয় মোদির নয়  ১৩০ কোটি ভারতবাসীর। নতুন ভারতের ক্ষতি করার চেষ্টা যে দেশই করবে তার ঘরে ঢুকে মারব আমরা। ওরা গুলি ছুঁড়লে বোমা ফেলে জবাব দেওয়া হবে।”

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে