১৪ চৈত্র  ১৪২৬  শনিবার ২৮ মার্চ ২০২০ 

Advertisement

‘প্রকৃত ধর্মনিরপেক্ষ হলে অমিত শাহর বৈঠক বয়কট করুন’, মমতাকে চ্যালেঞ্জ অধীরের

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: February 27, 2020 5:44 pm|    Updated: February 27, 2020 5:44 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দিল্লির হিংসাকে হাতিয়ার করে এবার এরাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বিঁধলেন লোকসভার কংগ্রেস দলনেতা অধীর চৌধুরি। রাজধানীর হিংসা নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Mamata Banerjee) অবস্থানে ক্ষুব্ধ অধীরবাবু। তাঁর দাবি, মুখ্যমন্ত্রী যদি প্রকৃত ধর্মনিরপেক্ষ হন, তাহলে অমিত শাহর ডাকা বৈঠক বয়কট করবেন। কারণ, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর অকর্মণ্যতার জন্যই দিল্লিতে এতগুলি মানুষের প্রাণহানি হয়েছে। অধীরের (Adhir Ranjan Chowdhury) কথায়, “দিল্লিতে যখন হিংসা চলছে, তখন এই অমিত শাহ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন না করে আহমেদাবাদে বসে ছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে খাতির করার জন্য।”

amit-shah CAA rally
ফাইল ফটো

উল্লেখ্য, শুক্রবার ভুবনেশ্বরে পূর্বাঞ্চলীয় নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠক রয়েছে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর পৌরহিত্যে আয়োজিত হতে চলা এই বৈঠকে যোগ দিতে দিন তিনেক আগেই ভুবনেশ্বরে গিয়েছেন এরাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাছাড়া, দিল্লির হিংসা নিয়ে অন্য বিরোধীদের মতো বিজেপিকে তেড়েফুঁড়ে আক্রমণও করেননি মমতা। বরং, কথা বলেছে মুখ্যমন্ত্রীর কলম। কবিতা লিখে হিংসা থামানোর আরজি জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। মমতার এই ভূমিকায় ক্ষোভপ্রকাশ করে লোকসভার কংগ্রেস দলনেতা বলছেন, “দিল্লি যখন জ্বলছে, রাজধানীতে যখন মৃত্যুমিছিল চলছে, হাজার হাজার মানুষ দিল্লি ছেড়ে পালাচ্ছেন, যাঁদের মধ্যে একটা বড় অংশ বাংলার, তখন কিনা মুখ্যমন্ত্রী চারদিন ধরে ভুবনেশ্বরে পড়ে আছেন। পুজো দিয়ে বিশ্বশান্তির কথা বলছেন, কিন্তু দাঙ্গার কোনও নিন্দা পর্যন্ত করছেন না। বড় অবাক হয়ে লক্ষ্য করছি, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ভুবনেশ্বরে গিয়ে অমিত শাহর জন্য অপেক্ষা করছেন।”

Mamata at Puri
পুরীতে মমতা

[আরও পড়ুন: ‘৪৮ ঘণ্টার মধ্যে শান্ত হবে দিল্লি’, হিংসা নিয়ে ‘দূরদর্শী’ দিলীপের ভবিষ্যদ্বাণী]

অধীরের দাবি, অমিত শাহ যদি সময়মতো হিংসা রোখার চেষ্টা করতেন, তাহলে দিল্লিতে এত মানুষের প্রাণ যেত না। এরপরই বহরমপুরের সাংসদ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্দেশ্যে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে বলেছেন, “আপনি যদি মন থেকে ধর্মনিরপেক্ষ হন, তাহলে অমিত শাহর (Amit Shah) সঙ্গে এই বৈঠক বাতিল করুন।” দিল্লির হিংসা নিয়ে বিজেপির বিরুদ্ধে এর আগেও সরব হয়েছেন অধীর। কিন্তু, তৃণমূলকে এভাবে আক্রমণ এই প্রথম। আসলে রাজ্যের পুর নির্বাচনের আগে অধীরবাবু নিজের জেলা মুর্শিদাবাদের সংখ্যালঘুদের মধ্যে মমতাকে নিয়ে আর সন্দেহ ঢুকিয়ে দিতে চাইছেন। বোঝাতে চাইছেন, তৃণমূলনেত্রী আর আগের মতো সংখ্যালঘুদের জন্য ভাবিত নন, এখন তিনি বিজেপির সঙ্গে বন্ধুত্ব বজায় রেখে চলতে চাইছেন।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement