১৬ ফাল্গুন  ১৪২৬  শনিবার ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 

পুজোর পরেই কল্পতরু কেন্দ্র! ডিএ বাড়ল সরকারি কর্মচারীদের

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: October 9, 2019 3:53 pm|    Updated: October 9, 2019 4:18 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পুজোর পরেই কল্পতরু হয়ে উঠল কেন্দ্র। বুধবার একদিকে কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীদের পাঁচ শতাংশ মহার্ঘ ভাতা বাড়ানো হল। এর ফলে প্রায় ৫০ লক্ষ মানুষ উপকৃত হবেন। অন্যদিকে জম্মু ও কাশ্মীর থেকে বিতাড়িত ৫,৩০০ পরিবারকে সাড়ে পাঁচ লক্ষ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কথা ঘোষণা করা হল। আজ সাংবাদিক বৈঠক করে এই ঘোষণা করেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকর। পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী কৃষক সম্মান নিধি প্রকল্পের সুবিধা পাওয়ার জন্য গত ১৫ আগস্টের মধ্যে যে আধার সংযুক্তিকরণের সময়সীমা ছিল। তা ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত বাড়ানো হল।

[আরও পড়ুন: মন্দার প্রভাব আরও দীর্ঘস্থায়ী হবে, বলছেন IMF-এর নয়া প্রধান]

বুধবার দুপুরে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার অর্থ সংক্রান্ত কমিটির বৈঠকের পর সাংবাদিক বৈঠক করেন পরিবেশ মন্ত্রী। সেখানেই কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীদের জন্য এই সুখবর দেন তিনি। জানান, সপ্তম বেতন কমিশন অনুযায়ী কেন্দ্রীয় কর্মচারীরা এখন ১২ শতাংশ হারে মহার্ঘ ভাতা পাচ্ছেন। আজকের বৈঠকে তা আরও পাঁচ শতাংশ বাড়িয়ে ১৭ শতাংশ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। গত জুলাই মাস থেকে এই বকেয়া ডিএ দেওয়া হবে। এর জন্য বছরে ১৬ হাজার কোটি অতিরিক্ত খরচ হবে কেন্দ্রের।

এর পাশাপাশি জম্মু ও কাশ্মীর থেকে বিতাড়িত হওয়া ৫,৩০০টি পরিবারকে সাড়ে পাঁচ লক্ষ টাকা করে দেওয়া হবে। এর মধ্যে পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীর থেকে পালিয়ে ভারতে আশ্রয় নেওয়া অনেকগুলি পরিবারও আছে। ওই পরিবারগুলিকে প্রধানমন্ত্রী উন্নয়ন প্রকল্প থেকে টাকা দেওয়া হবে বলে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

[আরও পড়ুন:হাড় কাঁপানো ঠান্ডায় বরফের উপর সেনা জওয়ানদের গরবা, ভাইরাল ভিডিও]

এপ্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘ওই পরিবারগুলি জম্মু ও কাশ্মীর থেকে বিতাড়িত হওয়ার পর দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে পড়েছিল। এর ফলে বিতাড়িত পরিবারের তালিকায় তাদের নাম ওঠেনি। এর জেরে এতদিন কোনও ক্ষতিপূরণও পায়নি তারা। কিন্ত, কেন্দ্রীয় সরকার কাশ্মীরের ঐতিহাসিক ভুল সংশোধন করার পাশাপাশি ওই পরিবারগুলিকেও ক্ষতিপূরণ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীর থেকে এদেশে পালিয়ে আসা অনেক পরিবারকেও এই ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে।’

An Images
An Images
An Images An Images