BREAKING NEWS

১০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৬ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘বিজেপির আমলে পানের দোকানে পরিণত হয়েছে CBI’, কটাক্ষ মহারাষ্ট্রের মন্ত্রীর

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: November 20, 2020 9:45 am|    Updated: November 20, 2020 9:49 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কোথাও তদন্ত করতে গেলে সেই রাজ্যের ক্ষমতাসীন সরকারের অনুমতি নিতে হবে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সিবিআইকে। বৃহস্পতিবার এই রায়ই দিয়েছে ভারতের সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রিম কোর্ট। সেই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে বিজেপি সরকারের আমলে সিবিআই পানের দোকানে পরিণত হয়েছে বলে কটাক্ষ করলেন মহারাষ্ট্রের একজন মন্ত্রী আসলাম শেখ ( Aslam Shaikh)।

এপ্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘সিবিআই (CBI) তদন্তের বিষয়ে সুপ্রিম কোর্ট (Supreme Court) যে রায় দিয়েছে তা অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ। কারণ, যেখানেই যান না কেন দেখবেন অবিজেপিশাসিত রাজ্যগুলিতে মুখ্যমন্ত্রী ও অন্যান্য মন্ত্রীর বিরুদ্ধে নানা পদক্ষেপ নিচ্ছে সিবিআই। তাঁদের বিভিন্ন উপায়ে হেনস্তা করছে। আসলে বিজেপি সরকারের আমলে পানের দোকানে পরিণত হয়েছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থাটি।’

[আরও পড়ুন: উত্তরপ্রদেশের প্রতাপগড়ে ভয়াবহ দুর্ঘটনা, ৬ শিশু-সহ ১৪ জনের মৃত্যু, দুঃখপ্রকাশ যোগীর]

সুপ্রিম কোর্টের এই সিদ্ধান্তের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন মহারাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অনিল দেশমুখও। তিনি টুইট করেন, একটি রাজ্যের কোনও মামলার ক্ষেত্রে সিবিআই তদন্তের নির্দেশের বিষয়টি সংশ্লিষ্ট সরকার প্রয়োজনে বাতিল করতে পারে। কারণ রাজনৈতিক স্বার্থের জন্য অনেক ক্ষেত্রেই সংস্থাটির অপব্যবহার করা হচ্ছে। মূলত অবিজেপি রাজ্যগুলির মুখ্যমন্ত্রী ও অন্য মন্ত্রীদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিচ্ছে তারা। তাই সম্মানীয় সুপ্রিম কোর্টের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাচ্ছি আমরা। একটি রাজ্যে যেকোনও তদন্তের প্রয়োজনে সেখানকার সরকারের অনুমতি লাগবে সিবিআইয়ের।

বৃহস্পতিবার দিল্লির বিশেষ পুলিশ আইন নিয়ে একটি মামলার শুনানি ছিল শীর্ষ আদালতে। সেই প্রেক্ষিতেই সিবিআই নিয়ে রায় দিয়েছে সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতিরা। দিল্লির বিশেষ পুলিশ আইনে (১৯৪৬) বলা হয়েছিল, সিবিআই তদন্তের ক্ষেত্রে দিল্লি ছাড়া অন্য রাজ্যগুলির সম্মতি নেওয়া জরুরি। তবে সেই সময় কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল ছিল দিল্লি। তাই সিবিআই তদন্তের ক্ষেত্রে তার সম্মতির প্রয়োজন হত না। কিন্তু, দিল্লি এখন রাজ্যে রূপান্তরিত হয়েছে, তাই সেখানে তদন্তের ক্ষেত্রেও এই সম্মতি নিতে হবে সিবিআইকে।

[আরও পড়ুন: মুম্বইয়ে করাচি সুইটসের নাম বদলের দাবি, দোকানের মালিককে হুমকি শিব সেনা নেতার]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement