BREAKING NEWS

২৯ শ্রাবণ  ১৪২৭  শনিবার ১৫ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

CAA’র অধীনে কতজন নাগরিকত্ব পাওয়ার আবেদন করেছেন? তথ্যই নেই কেন্দ্রের কাছে

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: March 3, 2020 8:53 am|    Updated: March 3, 2020 8:53 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দেশজুড়ে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন চালু হওয়া প্রায় ২ মাস হতে চলল। অথচ, এই আইনের অধীনে এখনও পর্যন্ত কতজন নাগরিকত্বের জন্য আবেদন করেছেন, সে তথ্যই নাকি কেন্দ্রের কাছে নেই। একটি আরটিআইয়ের জবাবে এমনটাই জানিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক।

CAA-Notice
দীনেশ চড্ডা নামের চণ্ডিগড়ের এক সমাজকর্মী তথ্যের অধিকার আইনে জানতে চেয়েছিলেন, এখনও পর্যন্ত ঠিক কতজন মানুষ সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের (Citizenship Amendment Act) অধীনে নাগরিকত্বের জন্য আবেদন করেছেন। এবং সেই আবেদনকারীদের মধ্যে কোন ধর্মের মানুষের সংখ্যা বেশি। ধর্মের ভিত্তিতে আবেদনকারীদের সংখ্যাটাও জানতে চান দীনেশ। আবেদনকারীদের মধ্যে কোন দেশের শরণার্থী সংখ্যা সবচেয়ে বেশি? তাঁর প্রশ্নের তালিকায় ছিল সেটিও। কিন্তু, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক দীনেশের কোনও প্রশ্নেরই সদুত্তর দিতে পারেনি। মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে, সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের অধীনে ঠিক কতজন আবেদন করেছেন, তার সর্বশেষ তথ্য তাঁদের কাছে নেই। তাছাড়া ১৯৫৫-র নাগরিকত্ব আইন অনুযায়ী এই ধরনের হিসেব রাখারও কোনও প্রয়োজন নেই।

[আরও পড়ুন: ‘চুড়ি পরে নেই, চাইলেই নষ্ট করতে পারি শান্তি’, হুমকি AIMIM বিধায়কের]

এ প্রসঙ্গে দীনেশ চড্ডা বলছেন, “আমি শুধু জানতে চেয়েছিলাম এতে কত মানুষ উপকৃত হবে। কারণ, সরকার শুরু থেকেই বিভ্রান্তিকর তথ্য ছড়িয়ে চলেছে। এমনকী, রবিরারও কলকাতার জনসভায় অমিত শাহ দাবি করেন সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের (CAA) অধীনে লক্ষ লক্ষ মানুষ উপকৃত হবেন। কিন্তু, এখন তো দেখছি অমিতের মন্ত্রকের কাছেই কোনও তথ্য নেই ঠিক কত মানুষ উপকৃত হবেন।”

Amit Shah

[আরও পড়ুন: ট্রাম্পের সফরের সময় অশান্তি পূূর্বপরিকল্পিত, ভিডিও পোস্ট করে অভিযোগ বিজেপির]

উল্লেখ্য, গত বছর ডিসেম্বর মাসে সংসদে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন পাশ হয়। আইনটি পাশ হওয়ার পর থেকেই দেশজুড়ে বিক্ষোভ, হিংসার ছবি ধরা পড়েছে। এমনকী, এই সংক্রান্ত হিংসায় বহু মানুষের প্রাণও গিয়েছে। সেসব উপেক্ষা করেই গত ১০ জানুয়ারি দেশজুড়ে নতুন আইনটি কার্যকর করে দেয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। কিন্তু, কার্যকর করার প্রায় দু’মাস পরও মোট আবেদনকারীর সংখ্যাটা বলতে পারছে না কেন্দ্র.

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement