১২ মাঘ  ১৪২৮  বুধবার ২৬ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

১০৬ দিন পর স্বস্তি, আইএনএক্স মিডিয়া মামলায় জামিন চিদম্বরমের

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: December 4, 2019 11:02 am|    Updated: December 4, 2019 2:57 pm

Chidambaram gets bail in INX Media case after 105 days

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অবশেষে আইএনএক্স মিডিয়া মামলায় স্বস্তি পেলেন প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী পি চিদম্বরম। ১০৬ দিন পর তিহাড় জেল থেকে মুক্তি পেতে চলেছেন প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী। টুইট করে এ খবর জানিয়েছেন খোদ চিদম্বরমের ছেলে কার্তি। গত ২৮ নভেম্বর চিদম্বরমের জামিনের আবেদনের চূড়ান্ত শুনানি হয়। সেদিন রায়দান স্থগিত রেখেছিল সুপ্রিম কোর্টের ৩ সদস্যের ডিভিশন বেঞ্চ। বুধবার সর্বোচ্চ আদালত প্রাক্তন অর্থমন্ত্রীকে স্বস্তি দিল। এই মামলায় সিবিআইয়ের করা মামলায় আগেই জামিন পেয়েছিলেন চিদম্বরম। এবার ইডির মামলাতেও জামিন পেলেন। ফলে, তাঁর আর জেল থেকে বেরতে কোনও বাধা রইল না।


জামিন দিলেও চিদম্বরমের উপর বেশ কয়েকটি শর্ত আরোপ করেছে ইডি। চিদম্বরমকে আদালতে ২ লক্ষ টাকার বন্ড জমা দিতে হবে। তাঁকে আইএনএক্স মিডিয়া মামলার তদন্তে সবরকমভাবে সহযোগিতা করতে হবে। তদন্ত চলাকালীন দেশ থেকে বাইরে যেতে পারবেন না প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী। সংবাদ মাধ্যমে এ নিয়ে মুখ খোলা যাবে না। এই মামলার কোনও সাক্ষ্য বা প্রমাণকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করতে পারবেন না। ইডি বা সিবিআই চাইলেই তাঁকে তলব করতে পারবে।

[আরও পড়ুন: প্রিয়াঙ্কার সুরক্ষায় গাফিলতিতে সাসপেন্ড ৩ আধিকারিক, রাজ্যসভায় পাশ SPG সংশোধনী বিল]


সওয়াল জবাবের সময় ইডি দাবি করেছিল, চিদম্বরম এখনও যথেষ্ঠ প্রভাবশালী। তাই তিনি জেলের বাইরে গেলে তদন্তকে প্রভাবিত করতে পারেন। পালটা চিদম্বরমের আইনজীবীদের যুক্তি ছিল, এটা দীর্ঘদিনের পুরনো মামলা। তাই এতদিন বাদে তদন্তকে প্রভাবিত করার কোনও প্রশ্নই ওঠে না। তাছাড়া, এতদিন পর্যন্ত জেলে চিদম্বরমকে নতুন কোনও বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদও করেনি ইডি। নতুন কোনও প্রমাণ বা তথ্যও জোগাড় করতে পারেনি তারা। তাছাড়া নতুন কোনও সাক্ষীর মুখোমুখি বসিয়ে তাঁকে জেরাও করা হয়নি। তাহলে, কোন যুক্তিতে তাঁকে জেলে আটকে রাখা হচ্ছে? চিদম্বরমের আইনজীবীদের যুক্তি মেনে নেয় আদালত। এবং, প্রাক্তন অর্থমন্ত্রীর জামিনের আবেদন মঞ্জুর করা হয়।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে