Advertisement
Advertisement

রাজস্থানে সরকার ফেলার ‘ষড়যন্ত্র’! কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর বিরুদ্ধে এবার FIR কংগ্রেসের

দুই বিদ্রোহী বিধায়ক ভাঁওয়ার লাল শর্মা এবং বিশ্বেন্দ্র সিংকে বরখাস্ত করেছে কংগ্রেস।

Congress files FIR Against Union Minister Gajendra Singh Shekhawat
Published by: Subhamay Mandal
  • Posted:July 17, 2020 12:54 pm
  • Updated:July 17, 2020 12:54 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রাজস্থানে সরকার ফেলার চেষ্টা করছে বিজেপি। গেরুয়া শিবিরের দিকে অভিযোগের আঙুল তুলে এবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রী গজেন্দ্র সিং শেখাওয়াত (Gajendra Singh Shekhawat) ও বিদ্রোহী কংগ্রেস বিধায়ক ভাঁওয়ার লাল শর্মার বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করল কংগ্রেস। অভিযোগ, বিদ্রোহী বিধায়কের সঙ্গেই কেন্দ্রীয় মন্ত্রী টাকা লেনদেন করে রাজস্থানে অশোক গেহলটের (Ashok Gehlot) গদি ফেলতে চেয়েছিল। ইতিমধ্যেই কংগ্রেস দুই বিদ্রোহী বিধায়ক ভাঁওয়ার লাল শর্মা এবং বিশ্বেন্দ্র সিংকে পার্টি থেকে বরখাস্ত করেছে। একটি অডিও ক্লিপকে সামনে রেখে বিদ্রোহী বিধায়কদের সঙ্গে বিজেপির লেনদেনের দাবি জানিয়েছে কংগ্রেস। যদিও এ অভিযোগ অস্বীকার করেছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। সবরকম তদন্তের জন্য প্রস্তুতও রয়েছেন বলে জানিয়েছেন।

শুক্রবার কংগ্রেস মুখপাত্র রণদীপ সিং সুরজেওয়ালার (Randeep Singh Surjewala) দাবি, দুটি অডিও বার্তায় স্পষ্ট প্রমাণ পাওয়া গিয়েছে যে, রাজস্থানের এক শীর্ষ বিজেপি নেতা এবং কেন্দ্রীয় জলশক্তি মন্ত্রীর সঙ্গে সরকার ফেলার দর কষাকষি করছে দুই দলীয় বিধায়ক। এর ভিত্তিতেই দুই বিধায়ককে সাসপেন্ড করা হয়েছে এবং কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর নামে এফআইআর করা হয়েছে। তবে সাংবাদিক সম্মেলনে সেই অডিও বার্তা প্রকাশ করেনি কংগ্রেস। এদিকে, শচীন পাইলট (Sachin Pilot) দলের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে হাই কোর্টের দ্বারস্থ হতেই শীর্ষ কংগ্রেস নেতারা একের পর এক তাঁকে ফোনে যোগাযোগ চেষ্টা করছেন বলে সূত্রের খবর। শীর্ষ কংগ্রেস নেতা পি চিদম্বরম বৃহস্পতিবার দাবি করেছেন, পাইলটকে তিনি ফোন করে দেখা করে দলীয় স্তরে আলোচনায় বিবাদ মেটানোর প্রস্তাব দিয়েছেন। সুযোগ কাজে বাগানোর পরামর্শ দিয়েছেন প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী।

Advertisement

[আরও পড়ুন: করোনার মারে বেকায়দায় অর্থনীতি, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে ‘স্পেশ্যাল ৫০’]

শচীন পাইলট বনাম অশোক গেহলট লড়াই এবার গড়াল আদালত পর্যন্ত। বিধানসভার স্পিকার সিপি জোশীর (CP Joshi) দেওয়া বিধায়কপদ খারিজের নোটিসের বিরুদ্ধে রাজস্থান হাই কোর্টে মামলা দায়ের করেছেন পাইলট এবং তাঁর ঘনিষ্ঠরা। কিন্তু সেখানেও বিবাদের কোনও সুরাহা এখনও হয়নি। নিজেরাই মামলার দ্রুত শুনানির আরজি জানিয়ে আবার নিজেরাই পিছিয়ে এসেছেন পাইলট শিবিরের আইনজীবীরা।

Advertisement

[আরও পড়ুন: বিহারের নির্বাচনে ৬৫’র ঊর্ধ্বে ভোটারদের জন্য পোস্টাল ব্যালট নয়, সিদ্ধান্ত বদল কমিশনের]

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ