BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

বর্ষায় সংক্রমণের দ্বিতীয় ইনিংসের সম্ভাবনা, আশঙ্কা বিজ্ঞানীদের একাংশের

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: April 24, 2020 3:35 pm|    Updated: April 24, 2020 3:35 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বর্ষায় ফের বাড়তে পারে করোনার সংক্রমণ। ভারতে দ্বিতীয় দফায় প্রভাব বাড়িয়ে শক্তিশালী হয়ে উঠতে পারে এই মারণ ভাইরাস। এমনটাই আশঙ্কা প্রকাশ করছেন বিজ্ঞানীরা। জুলাই থেকে অগাস্টে বাড়তে পারে এই সংক্রমণের মাত্রা।

ভারতীয়দের কপালে চিন্তার ভাঁজ ফেলে সংক্রমণের দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করতে পারে করোনা ভাইরাস। বর্ষার আবহে শুরু হতে পারে এই সংক্রমণ। এমনটাই জানাচ্ছেন উত্তরপ্রদেশের শিব নদর বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ সমিত ভট্টাচার্য্য। তিনি জানান, “জুলাই থেকে অগাস্টের মধ্যেই বাড়তে পারে সংক্রমণের মাত্রা। ফলে দেশে এই সময় ফের ভাইরাসের সংক্রমণ মহামারির আকার নিতে পারে। আর এই সংক্রমণকেই দ্বিতীয় অধ্যায় বলে ধরা হবে।” বেঙ্গালুরুর আইআইএসসি-র (IISc) অধ্যক্ষ রাজেশ সুন্দরেসানও বঙ্গ বিজ্ঞানী সমিত ভট্টাচার্য্যর সঙ্গে করোনা সংক্রমণ নিয়ে সহমত পোষণ করেছেন। সুন্দরেসান জানান, “দেশ থেকে একবার লকডাউন উঠে গেলে সবাই ফের পুরোন ছন্দে জীবন শুরু করতে চাইবে ফলে সেই সময় কারোনা শরীরে ভাইরাস থেকে থাকলে তা নতুন করে সংক্রমণ ছড়াবে। আর সেই সময় সংক্রমণের আশঙ্কা থাকবে সবথেকে বেশি। চিনে দেখা গেছে যাঁরা সুস্থ হয়ে উঠেছেন তাঁরা বাড়ি ফেরার পরও তাঁদের শরীরে নতুন করে সংক্রমণ দেখা গেছে। তাই ফের তাদের ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।”

[আরও পড়ুন:প্লাজমা থেরাপির পরীক্ষামূলক প্রয়োগে সুস্থ ২ করোনা আক্রান্ত, দাবি কেজরিওয়ালের]

দেশে একটানা লকডাউনের জেরে ক্রমশ ক্ষোভ বাড়ছে মানুষের মধ্যে। চাকরি হারিয়ে বৃদ্ধি পেয়েছে বেকারত্ব। ফলে একবার লকডাউন তুলে দিলে মানুষ কতটা নিজেদের ঘরে আটকে রাখতে পারবেন বা সচেতনতা বজায় রাখতে পারবেন তা নিয়ে সন্দেহ রয়েছে। অন্যদিকে বর্ষায় জলীয় হাওয়ায় ভর করে করোনা আরও বেশি আক্রমণাত্মক হয়ে উঠলে দেশ সবদিক থেকেই ক্ষতিগ্রস্ত হবে বলে মত চিকিৎসকদের। ২৫ মার্চ থেকে শুরু করে ৩ মে পর্যন্ত চলবে এই লকডাউন। তবে বর্ষার সঙ্গেই করোনার দাপট বৃদ্ধির আশঙ্কা এখন থেকেই ভয় দেখাচ্ছে বিশেষজ্ঞদের।

[আরও পড়ুন:গ্রামবাসীদের দুশ্চিন্তা দূর করতে জোড়া অ্যাপ ঘোষণা মোদির, জেনে নিন খুঁটিনাটি]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement