BREAKING NEWS

১৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

লক্ষ্যমাত্রা ছুঁয়ে ফেলল সরকার, একদিনে দেশে করোনা পরীক্ষা ১০ লাখের বেশি মানুষের

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: August 22, 2020 10:13 am|    Updated: August 22, 2020 10:29 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মাসখানেক আগেই কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক নিজেদের জন্য একটি লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছিল। সেটা হল দৈনিক ১০ লক্ষের বেশি করোনা পরীক্ষা করা। এবং নমুনা পরীক্ষার সংখ্যাটাকে এমন একটা পর্যায়ে নিয়ে যাওয়া যাতে পজিটিভিটি রেট ৫ শতাংশে নামিয়ে আনা যায়। শুক্রবার এই দুটির মধ্যে প্রথম লক্ষ্যে পৌঁছে গেল ভারত। দ্বিতীয়টিরও বেশ কাছাকাছি পৌঁছে গিয়েছে স্বাস্থ্যমন্ত্রক।

শনিবার সকালে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের (Ministry of Health and Family Welfare) দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে মোট ১০ লক্ষ ২৩ হাজার ৮৩৬ জনের নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। এই প্রথম একদিনে দশ লক্ষের বেশি নমুনা পরীক্ষা করা হল। এখনও পর্যন্ত দেশে মোট ৩ কোটি ৪৪ লক্ষ ৯১ হাজার ৭৩ জনের নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। ভারতের প্রতি ১০ লক্ষ জনসংখ্যা পিছু এই সংখ্যাটা এখনও বেশ খানিকটা কম হলেও সরকার দ্রুত WHO’র বেঁধে দেওয়া লক্ষ্যমাত্রার দিকে এগোচ্ছে। সরকার জানিয়েছে এই মুহূর্তে দেশজুড়ে প্রায় দেড় হাজার ল্যাবে করোনা পরীক্ষা হচ্ছে। এবং গত কয়েক দিন ধরে নিয়মিত ৮ লক্ষের বেশি নমুনা পরীক্ষা হচ্ছিল। গত ২ দিন তা হয়েছে ৯ লক্ষের বেশি।

[আরও পড়ুন: তিরুবন্তপুরম বিমানবন্দরের হস্তান্তর রুখতে মরিয়া চেষ্টা, আদালতের দ্বারস্থ কেরল সরকার]

কেন্দ্রের দাবি, পরীক্ষার পরিমাণ এভাবে বাড়ার ফলেই ক্রমশ সুস্থতার হার বাড়ানো সম্ভব হচ্ছে এবং নতুন সংক্রমণের গতিতে রাশ টানা যাচ্ছে। কারণ, বেশি বেশি পরীক্ষা হওয়ায় ফলে করোনা রোগীদের একদিকে যেমন দ্রুত চিকিৎসা দেওয়া সম্ভব হচ্ছে, অন্যদিকে তেমনি তাঁদের আইসোলেট করা যাচ্ছে। যাতে অন্যদের মধ্যে এই ভাইরাস ছড়ানোর সম্ভাবনা কমছে। কেন্দ্রের দাবি, এই মুহূর্তে দেশে সুস্থতার হার প্রায় ৭৫ শতাংশ। গত ৩ সপ্তাহে এই সুস্থতার হার প্রায় দ্বিগুণ হয়েছে। যা সম্ভব হয়েছে পরীক্ষার পরিমাণ বাড়ার ফলেই।

অথচ, এই মহামারীর শুরুর দিক দেশে মাত্র ২-৩টি ল্যাবে দৈনিক কয়েক হাজার করোনা পরীক্ষা হত। আগে থেকে সরকার বেশি বেশি পরীক্ষার ব্যবস্থা করেনি কেন? তা নিয়ে বিরোধীদের বহু প্রশ্নের মুখে পড়তে হয়েছে কেন্দ্রকে। বস্তুত, করোনা মোকাবিলায় টেস্টিংয়ের গুরুত্ব যে অপরিসীম তা দেরিতে হলেও টের পেয়েছে কেন্দ্র। এবং তাঁর সুফল দেখা যাচ্ছে দেশজুড়ে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement