BREAKING NEWS

২৭ আষাঢ়  ১৪২৭  রবিবার ১২ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

করোনার কোপে এবছর বাতিল মুম্বইয়ের সবথেকে বড় গণেশ উৎসব লালবাগের পুজো

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: July 1, 2020 3:39 pm|    Updated: July 1, 2020 4:16 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মুম্বইয়ের সবচেয়ে বড় গণেশ উৎসব। দাদরের সেই লালবাগের পুজোয় এবার থাবা বসাল করোনা। করোনাতঙ্কে এবছর বাতিল মুম্বইয়ের সবচেয়ে বড় গণেশ উৎসব লালবাগের পুজো। ‘লালবাগচা রাজা’ নামে বিখ্যাত সেই গণেশ পুজো। মহামারীর আবহে ১১ দিন ব্যাপী চলা সেই পুজো বন্ধ করতে চান আয়োজকরা। পরিবর্তে জনসেবায় রক্তদান ও প্লাজমা থেরাপির শিবির গড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তাঁরা।

করোনার জেরে সবথেকে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত মহারাষ্ট্র (Maharashtra)। প্রতিবছরই ভারতের এই পশ্চিমের রাজ্যে ধূমধাম করে গণেশ পুজোর আয়োজন করা হয়। বারোয়ারি পুজোগুলি ১১ দিন ধরে চলে। তবে এই বছরটা অন্যরকম। তাই নিজেদের ৮৪ বছরের পুজোর ইতিহাসে প্রথমবার বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিলেন ‘লালবাগচা রাজা’ (Lalbaugcha Raja) পুজোর আয়োজকরা। এই বছর পুজোর পরিবর্তে রক্তদান শিবির এবং প্লাজমা থেরাপি ক্যাম্পের ব্যবস্থা হবে বলে বুধবার জানান তাঁরা। আয়োজকদের কথায়, “এ বছরের পরিস্থিতি বিবেচনা করে এটাই উৎসব হিসেবে আয়োজন করা হবে।” গণেশ উৎসবের সেক্রেটারি সুধীর সালভে বলেন, “এই বছর আমরা কোনও মূর্তি রাখব না, কারণ মানুষ দেখার জন্য ভিড় করবেন। করোনা আবহে সেই ঝুঁকি নেওয়া ঠিক হবে না। করোনা পরিস্থিতি সামাল দিতে আমরা মুখ্যমন্ত্রীর আপৎকালীন তহবিলে ২৫ লক্ষ টাকা অনুদান দিয়েছি।”

[আরও পড়ুন: চিনকে ভাতে মারার কাজ শুরু, চিনা সংস্থার বরাত বাতিল করল BSNL]

সম্প্রতি করোনার কারণে মহারাষ্ট্রে একাধিক উৎসব বাতিল হয়েছে। গোটা দেশের মধ্যে এই রাজ্যের মানুষ সবচেয়ে বেশি সংক্রমিত হয়েছে। এই অবস্থায় সহযোগিতার জন্য সমস্ত উৎসব কমিটিগুলিকে দিন কয়েক আগেই অভিনন্দন জানিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে। লালবাগের গণেশ উৎসব প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “কোভিড পরিস্থিতি মোকাবিলায় মহারাষ্ট্র ক্রমেই ভাল ফল করছে, কিন্তু এখনও সংকট কাটেনি। সকলকেই নিয়ম মেনে চলতেই হবে।”

[আরও পড়ুন: দেশজুড়ে বাড়ছে সংক্রমণ, করোনা নিয়ে বিদেশে কর্মরত চিকিৎসাকর্মীদের সঙ্গে কথা রাহুলের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement