BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

আগাম দিতে হবে ৪ লক্ষ টাকা, করোনা চিকিৎসায় বিতর্কিত নির্দেশিকা দিল্লির হাসপাতালের

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: June 9, 2020 2:29 pm|    Updated: June 9, 2020 2:29 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা মহামারীর আবহে ফের প্রকাশ্যে এল হাসপাতালগুলির যথেচ্ছাচার। এবার করোনা রোগীদের ভরতির আগেই ৪ লক্ষ টাকা জমা দেওয়ার ফরমান জারি করল রাজধানীর একটি সরকার ঘোষিত কোভিড-১৯ হাসপাতাল। শুধু তাই নয়, ন্যূনতম ৩ লক্ষ টাকার বিলও ধার্য করেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

[আরও পড়ুন: এবার দিল্লির হাসপাতালে বেডের ‘কালোবাজারি’, চটে লাল কেজরি]

জানা গিয়েছে, সম্প্রতি একটি নির্দেশিকা জারি করেছে দিল্লির রোহিণী এলাকার সরোজ সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতাল। সেখানে সাফ বলা হয়েছে, করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসার জন্য ন্যূনতম বিল হবে ৩ লক্ষ টাকা। এছাড়া ভরতির আগে রোগীর পরিবারকে ৪ লক্ষ টাকা আগাম জমা দিতে হবে। আগাম টাকা না দিলে ভরতি নেওয়া হবে না। এছাড়াও, করোনা চিকিৎসায় একাধিক প্যাকেজ ঘোষণা করেছে হাসপাতালটি। সেখানে প্রতিদিন ৪০ হাজার টাকা থেকে শুরু করে ভেন্টিলেটর পরিষেবা দিলে এক দিনে ১ লক্ষ টাকা পর্যন্ত আদায় করা হবে।

কয়েকদিন আগেই হাসপাতালটিকে করোনা চিকিৎসা কেন্দ্রে পরিণত করে দিল্লি সরকার। তারপর এহেন বিলের বহর দেখে রীতিমতো চোখ কপালে উঠেছে অনেকেরই। এনিয়ে শুরু হয়েছে তুমুল বিতর্ক। এই বিষয়ে তোপ দেগেছেন বিজেপির ন্যাশনাল সেক্রেটারি আরপি সিং। উল্লেখ্য, দিল্লিতে হাসপাতালে বেডের কালোবাজারি রীতিমতো ভাবিয়ে তুলছে জনতা ও প্রশাসন উভয়কেই। কোভিড আক্রান্ত রোগীদের পরিষেবা না দেওয়ার জন্য রাজধানী দিল্লির একাধিক হাসপাতাল বেডের সংখ্যা গোপন করছে বলে অভিযোগ। গত শনিবার ভিডিও বার্তায় দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী বেডের ‘কালোবাজারি’ নিয়ে সরব হয়েছেন, তিনি সাফ জানিয়েছেন, দিল্লির একাধিক বেসরকারি হাসপাতাল বেডের সংখ্যা গোপন করছে। ফলে সেখানে করোনা আক্রান্তের চিকিৎসা হচ্ছে না। দোষীদের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ নেওয়ার হুঁশিয়ারিও দিয়েছেন তিনি। 

[আরও পড়ুন: তবলিঘিদের ‘ভুল’ থেকে শিক্ষা! সরকারি অনুমতি মিললেও খুলছে না দিল্লির নিজামুদ্দিন দরগা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement