BREAKING NEWS

২ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

দাঙ্গায় উসকানি দেওয়ার অভিযোগ, দেশদ্রোহিতার মামলায় চার্জশিট শারজিল ইমামের বিরুদ্ধে

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: April 18, 2020 3:49 pm|    Updated: April 18, 2020 5:11 pm

An Images

ফাইল ফটো

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: উসকানিমূলক বক্তব্যের মাধ্যমে সাম্প্রদায়িক অশান্তি বাঁধানোর চেষ্টা করেছিল। এই অভিযোগে জেলবন্দি থাকা জেএনইউ (JNU) – এর প্রাক্তন পড়ুয়া শারজিল ইমামের বিরুদ্ধে দেশদ্রোহিতার মামলায় চার্জ গঠন করল দিল্লি পুলিশ। শনিবার দিল্লির সাকেত কোর্টে জমা দেওয়া চার্জশিটে উল্লেখ করা হয়েছে, নিজের বক্তব্যের মাধ্যমে সাধারণ মানুষের মধ্যে বিভাজনের শিকড় পুঁতে ছিল শারজিল। এর ফলেই ডিসেম্বরের ১৫ তারিখ দিল্লির জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়ারা রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ দেখায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে কড়া হাতে তা দমন করে দিল্লি পুলিশ। যদিও এর ফাঁকে বিক্ষোভকারীরা চারটে বাসে আগুনও ধরিয়ে দেয়।

এর মাঝেই প্রকাশ্যে আসে সিএএ (CAA) বিরোধী জমায়েতে দেওয়া শারজিল ইমামের বক্তব্যের একটি ভিডিও। যেখানে দেখা যায়, অসমকে গোটা ভারত থেকে আলাদা করার আহ্বান জানাচ্ছে সে। জানা যায়, সিএএ বিরোধী বিক্ষোভের আড়ালে শারজিল দিল্লিজুড়ে অশান্তি ছড়ানোর চেষ্টা করেছে। মুসলিমদের সংগঠিত করতে সিএএ ও এনআরসি বিরোধী লিফলেট তৈরি করে চারিদিকে ছড়িয়ে দিয়েছে।

[আরও পড়ুন: করোনা মোকাবিলায় হাসপাতালের দুর্দশার তথ্য সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট, বরখাস্ত চিকিৎসক ]

 

বিলি করা লিফলেটে লেখা ছিল, ‘ভারতীয় মুসলিমদের এনআরসি ও সিএএ-র বিরুদ্ধে একজোট হয়ে রুখে দাঁড়াতে হবে। কারণ, এর মাধ্যমে কেন্দ্রীয় সরকার মুসলিমদের বিতাড়িত করার জন্য চিহ্নিত করছে। এর বিরুদ্ধে জামিয়ার পড়ুয়ারা জামিয়া জামে মসজিদ থেকে একটি প্রতিবাদ মিছিলের আয়োজন করেছে। আমরা জেএনইউয়ের মুসলিম পড়ুয়ারা তাদের পাশে থেকে সবাইকে এই কর্মসূচিতে পালন করার অনুরোধ জানাই।’ এরপরই দিল্লির রাস্তায় নেমে প্রবল বিক্ষোভ দেখাতে থাকে জামিয়ার পড়ুয়ারা।

দিল্লিতে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে আন্দোলন করার সময় অসম নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করেছিল শারজিল। অভিযোগ জানিয়েছিল, সেখানে মুসলিমদের আটকে রেখে হত্যা করা হচ্ছে। তাই বাকি ভারত থেকে অসমকে আলাদা করার আহ্বান জানিয়েছিল। এমনকী তার বক্তব্য ও লিফলেটের বিলির জেরে দিল্লির জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা রাস্তায় নেমে বিক্ষোভও দেখান। আর তাঁদের ছত্রভঙ্গ করতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিতরে ঢুকে কাঁদানে গ্যাস ছোঁড়ে পুলিশ। নির্বিচারে লাঠিচার্জ করে বলেও অভিযোগ।

[আরও পড়ুন: করোনা মোকাবিলায় কেন্দ্র সরকারি কর্মীদের বেতনে কাটছাঁট, বাতিল মহার্ঘ্য ভাতা বৃদ্ধিও]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement