BREAKING NEWS

১ আশ্বিন  ১৪২৭  শুক্রবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

মেলেনি সরকারি সাহায্য, বিজেপি শাসিত রাজ্যেই খিদের জ্বালায় প্রাণ গেল ৮০টি গরুর!

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: June 12, 2020 9:33 am|    Updated: June 12, 2020 9:33 am

An Images

ছবিটি প্রতীকী

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: একটি-দু’টি নয়, যত্রতত্র ছড়িয়ে রয়েছে ৮০টি গরুর মৃতদেহ। আর সেগুলি ছিঁড়ে খাচ্ছে কাক-কুকুর। ভয়ংকর এই দৃশ্য দেখা দিয়েছে বিজেপি শাসিত হরিয়ানায়। যে রাজ্য সরকার কিনা ‘গোরক্ষা’র স্বার্থে একাধিক আইন প্রণয়ন করেছে। শত অনুরোধ সত্ত্বেও সরকারের তরফে সাহায্য মেলেনি। অতঃপর খিদের জ্বালা নিয়েই মারতে হল ৮০টি গরুকে। অসুস্থ আরও বহু গরু। তাই গোশালায় মৃতের সংখ্যা বাড়ার আশঙ্কাও রয়েছে। বিগত কয়েক বছর ধরে ‘গোরক্ষা’ যেখানে ভোটের ইস্যু হয়ে দাঁড়িয়েছে, সেখানে খোদ বিজেপির রাজ্যেই এমন মর্মান্তিক ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই নেটদুনিয়ায় সমালোচনার ঝড়।

কেরলে হাতি মৃত্যুর পর থেকেই পশুদের ওপর নির্মম অত্যাচার কিংবা পশু সুরক্ষা আইনকে আরও জোরদার করার দাবি নিয়ে সরব হয়েছে গোটা দেশ। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে অবলা প্রাণীদের হত্যা করার খবর মিলছে। তার মাঝেই প্রকাশ্যে এল হরিয়ানার শ্রীকৃষ্ণ গোশালায় ৮০টি গরুর মৃত্যুর খবর। শত অনুরোধ সত্ত্বেও সরকারি সাহায্য মেলেনি। না খেতে পেয়ে তিল তিল করে অনাহারে মারা গেল গরুগুলি। এখানেই শেষ নয়! কর্তৃপক্ষের অভিযোগ, মৃত গরুগুলির সৎকারের জন্যও কোনও জায়গা পাচ্ছেন না তাঁরা। তাই গোশালার ভিতরেই পচছে গরুগুলির মৃতদেহ। আর সেগুলি ছিঁড়ে-খুবলে খাচ্ছে কাক।

[আরও পড়ুন: করোনা আতঙ্কে জঞ্জাল ফেলার গাড়িতে সরানো হল মৃতদেহ, উত্তরপ্রদেশের ঘটনায় নিন্দার ঝড়

প্রায় সাড়ে তিন একর জমির উপর তৈরি শ্রীকৃষ্ণ গোশালায় থাকত মোট ১ হাজার ৮৫০টি গরু। সেখানেই এই মর্মান্তিক ঘটনা ঘটল। না গোশালার মালিক পক্ষের দাবি, দীর্ঘদিন লকডাউন থাকার জেরে মালিক পক্ষ খাবার জোগাড় করতে পারছিল না। উপরন্তু বহু গরু অসুস্থ হলেও চিকিৎসা করানো সম্ভব হয়নি লকডাউনের জেরে। সরকারের কাছে বারবার সাহায্য চাওয়া হয়েছে। কিন্তু প্রশাসন কোনও কর্ণপাতই করেনি। ফলে গরুগুলি না খেতে পেয়ে চোখের সামনেই মারা গেল। আর এই ঘটনার জন্য হরিয়ানা সরকারকেই দুষছেন মালিকপক্ষ-সহ স্থানীয়রা। তাঁদের কথায়, গরুর স্বার্থরক্ষায় যেখানে একাধিক আইন প্রণয়ণ হয়েছে, সেখানে এই রাজ্যেই কিনা অনাহারে কষ্ট পেয়ে মরতে হল এতগুলি গরুকে!

গোশালায় গরুদের রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্বে থাকা মনজের কুলদীপ বলেছেন, এখনও অনেক গরু অসুস্থ। দ্রুত তাদের চিকিত্সা করানো প্রয়োজন। না হলে গরু মৃত্যুর সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। মনজ আরও জানিয়েছেন, অনেক গরু এতটাই দুর্বল হয়ে পড়েছে যে খাবার দিলে উঠে খাওয়ার মতো বল নেই তাদের শরীরে। অনেকে খেতেও পারছে না। আর গোশালার সেসব ছবি প্রকাশ্যে আসার পর থেকেই সরব হয়েছেন পশুপ্রেমীরা।
দেশের রাজনীতিতে ‘গরু’র ভূমিকা বেশ উল্লেখযোগ্য এখন। প্রাণ দিতে হয়েছে বহু মানুষকেও। আর সেই এদেশে কিনা গরুর এমন পরিণতি হচ্ছে? প্রশ্ন তুলেছেন অনেকে।

[আরও পড়ুন: সংরক্ষণ মৌলিক অধিকার নয়, তাৎপর্যপূর্ণ পর্যবেক্ষণ সুপ্রিম কোর্টের

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement