BREAKING NEWS

১৪ কার্তিক  ১৪২৭  শনিবার ৩১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

বানচাল বড়সড় জঙ্গি হামলার পরিকল্পনা, দিল্লিতে ধৃত আল কায়দার মদতপুষ্ট ৪ কাশ্মীরি যুবক

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: October 4, 2020 1:38 pm|    Updated: October 4, 2020 1:38 pm

An Images

ছবি: প্রতীকী

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনার সংক্রমণ বৃদ্ধির মধ্যেই খোদ দেশের রাজধানীতে জঙ্গি হামলা চালানোর ছক কষেছিল কাশ্মীরের চার যুবক। কিন্তু, তাদের সেই পরিকল্পনা বানচাল করে দিল দিল্লি পুলিশের স্পেশাল সেল। হামলা চালানোর আগে গ্রেপ্তার করা হয় তাদের। ধৃতদের মধ্যে একজন আবার আল কায়দা (Al Qaeda)’র জম্মু ও কাশ্মীর শাখা আনসার গজওয়াত উল হিন্দের প্রাক্তন প্রধান বুরহান কোকার ছোট ভাই।

শনিবার দিল্লি পুলিশের তরফে প্রকাশিত একটি বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়েছে, গোপন সূত্রে খবর পেয়ে মধ্য দিল্লির আইটিও (ITO) এলাকায় তল্লাশি চালাচ্ছিলেন স্পেশাল সেলের আধিকারিকরা। সেসময় চারটি অত্যাধথুনিক পিস্তল ও ১২০ রাউন্ডের বেশি কার্তুজ সমেত ওই চার জন কাশ্মীরি যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়। ধৃতরা হল পুলওয়ামার বাসিন্দা আলতাফ আহমেদ দার (২৫) ও সোপিয়ানের বাসিন্দা মুস্তাক আহমেদ গনি (২৭), ইশফাক মাজিদ কোকা (২৮) ও আকিব সফি(২২)। এর মধ্যে ইশফাক হল আল কায়দার জম্মু ও কাশ্মীর শাখা আনসার গজওয়াত উল হিন্দ (Ansar Ghajwat Ul Hind) -এর প্রাক্তন প্রধান বুরহান কোকার ছোট ভাই। এই বছরের ২৯ এপ্রিল সোপিয়ানের মেলহোরা এলাকায় হওয়া এনকাউন্টারে আরও দুই সঙ্গী-সহ খতম হয়েছিল বুরহান। তারপরই আনসার উল হিন্দের সদস্য হিসেবে কাজ শুরু করেছিল তার ছোট ভাই ইশফাক।

[আরও পড়ুন: উত্তর-পূর্ব ভারতে বড় নাশকতার ছক! মায়ানমার থেকে চিনে ঘাঁটি সরিয়েছে উলফা ]

পুলিশ সূত্রে আরও খবর পাওয়া গিয়েছে, গত শুক্রবার বিশেষ সূত্রে জানা যায় কাশ্মীরের কয়েকজন যুবক প্রচুর অস্ত্র নিয়ে দিল্লির আইটিও এবং দারেয়াগঞ্জ এলাকায় হামলা চালানোর ছক কষেছে। এরপরই ওই এলাকায় ফাঁদ পেতে চার যুবককে অস্ত্র-সহ গ্রেপ্তার করা হয়। ধৃতদের জেরা করে জানা গিয়েছে, আনসার গজওয়াত উল হিন্দের বর্তমানের প্রধানের নির্দেশে ইশফাক বাকি তিন জনকে জেহাদের জন্য অনুপ্রাণিত করে। তারপর চার জন গত ২৭ সেপ্টেম্বর কাশ্মীর থেকে দিল্লি এসে পাহাড়গঞ্জ এলাকায় আশ্রয় নেয়।

[আরও পড়ুন: কোচিতে পাওয়ার গ্লাইডার ভেঙে মর্মান্তিক দুর্ঘটনা, মৃত্যু দুই নৌসেনা আধিকারিকের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement