BREAKING NEWS

১৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

‘চিকিৎসকদের পাশে আছে সরকার’, বৈঠকে নিরাপত্তার আশ্বাস স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: April 22, 2020 1:27 pm|    Updated: April 22, 2020 1:31 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: লকডাউনের মধ্যে ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশনের (Indian Medical Association IMA) চিকিৎসকদের সঙ্গে বৈঠক সারলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে হওয়া বৈঠকে তাঁদের পাশে থাকার আশ্বাস দিলেন তিনি। এই বৈঠকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডঃ হর্ষবর্ধনও। লকডাউনে চিকিৎসকদের হেনস্তার প্রতিবাদে প্রতীকী প্রতিবাদ প্রত্যাহার  করে নেওয়ারও অনুরোধ করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

প্রত্যহ বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। এই সংকটের সময় করোনা প্রতিরোধে দিন-রাত এক করে কাজ করে চলেছেন স্বাস্থ্যকর্মী-সহ চিকিৎসকরা। কিন্তু বারংবার হেনস্তা হতে হয় তাঁদেরই। জনতার রোষের মুখে পড়ে কোথাও চরম অপমানিত হচ্ছেন, কোথাও বা বেঘোরে প্রাণ হারাচ্ছেন। তাই আজ একটি ‘হোয়াইট অ্যালার্ট’ ‘শ্বেত সতর্কতা’-র আহ্বান জানিয়ে একটি প্রতীকী প্রতিবাদের ডাক দেন ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশনের চিকিৎসকরা। এই প্রতিবাদে অংশ নেওয়ার জন্য আহ্বান জানান সমস্ত সরকারি ও বেসরকার সংগঠনের চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের। এই ধরনের হামলার প্রতিবাদে আইএমএ সমস্ত চিকিৎসক এবং হাসপাতালগুলির উদ্দেশে বার্তা দেয়, “সাদা রঙের একটি মোমবাতি জ্বালিয়ে এই হোয়াইট অ্যালার্ট দিন যাতে সবাই সতর্ক হয়।” তবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বৈঠকে তাঁদের সেই প্রতীকী প্রতিবাদ প্রত্যাহার করে নেওয়ার অনুরোধ করেন। পাশাপাশি তাঁদের সমস্ত সুরক্ষার দেওয়ার আশ্বাসও দেন তিনি। স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডঃ হর্ষবর্ধনকে সঙ্গে নিয়ে ওই ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে অমিত শাহ জানান, “সরকার চিকিৎসক এবং স্বাস্থ্যকর্মীদের পাশেই আছে।” তাঁদের সুরক্ষার জন্যে সর্বাত্মক চেষ্টা চালাবে বলেও আশ্বাস দেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

[আরও পড়ুন:ত্রাণ বিলি নিয়ে ধুন্ধুমার বাদুড়িয়ায়, জনতার হামলায় মাথা ফাটল ওসির]

দেখা গেছে দেশের বিভিন্ন রাজ্য যেমন মধ্যপ্রদেশ, উত্তরপ্রদেশ, বিহার এবং বেঙ্গালুরুতে করোনার সংক্রমণ রুখতে যেসব স্বাস্থ্যকর্মী এবং পুলিশরা পথে নেমেছেন তাঁদের উপর একাধিকবার হামলার ঘটনা ঘটেছে। দেশের চিকিৎসক-সহ স্বাস্থ্যকর্মীর বিরুদ্ধে এই ক্রমবর্ধমান হিংসার ঘটনার জেরে ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন তাঁদের সুরক্ষার জন্যে সরকারকে জরুরি ভিত্তিতে একটি আইন করার দাবি জানায়। তাঁরা এই হুঁশিয়ারিও দেয় যে, সরকারের পক্ষ থেকে কোন পদক্ষেপ না করা হলে তাঁরা “কালা দিবস” পালন করবে। ২৩ এপ্রিল সারা দেশে চিকিৎসকরা কালো ব্যাজ পড়ে কাজ করবেন বলেও হুঁশিয়ারি দেয় চিকিৎসকদের ওই সংগঠনটি। তবে বৈঠকের পর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী দাবি মেনে প্রতীকী প্রতিবাদের সিদ্ধান্ত বাতিল করে ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশনের চিকিৎসকরা।

[আরও পড়ুন:করোনা আক্রান্ত বিআর সিং হাসপাতালের চিকিৎসক, বিক্ষোভ কর্মীদের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement