BREAKING NEWS

১২  আষাঢ়  ১৪২৯  সোমবার ২৭ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

করোনা মোকাবিলায় নয়া পন্থা, কিয়স্কের মাধ্যমে নমুনা সংগ্রহ হবে কেরলে

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: April 6, 2020 7:47 pm|    Updated: April 6, 2020 7:49 pm

Govt made Corona test kiosks in Kerala inspired by South Korea

ফাইল ছবি

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের একধাপ এগিয়ে কেরল সরকার। দক্ষিণ কোরিয়ার আদলে কেরলে তৈরি করা হল করোনা কিয়স্ক। এখানেই করোনা সন্দেহভাজনদের থেকে নমুনা সংগ্রহ করা হবে। কেরলের এর্নাকুলামে ৪টি হাসপাতালের তত্ত্বাবধানে এই কিয়স্কগুলি তৈরি করা হবে। কিয়স্কগুলিতে থাকবে আইসোলেশন ওয়ার্ড ও সোয়াব পরীক্ষার ল্যাব।

দক্ষিণ কোরিয়ার আদলে দেশে প্রথমবার নির্মাণ করা হচ্ছে করোনা কিয়স্ক। কেরল সরকার পিনারাই বিজয়নের অনুপ্রেরণায় এই উইস্ক(Walk-in Sample Kiosk) তৈরি করা হচ্ছে কেরলের এর্নাকুলামে। এর্নাকুলামের চারটি হাসপাতালের প্রত্যেকটিতেই থাকবে এই কিয়স্ক। কাঁচ ঘেরা কিয়স্কগুলিতে দাঁড়িয়ে স্বাস্থ্যকর্মীদের নমুনা সংগ্রহ করার একটি করে আলাদা স্থানও রয়েছে। এমনকি করোনা আক্রান্ত ও সন্দেহভাজনদের নমুনা সংগ্রহের সময় স্বাস্থ্যকর্মীরা যাতে সরাসরি সংস্পর্ষে না আসেন সেই ব্যবস্থাও রয়েছে কিয়স্কে। আক্রান্তদের থেকে লালার নমুনা সংগ্রহের পর স্বাস্থ্যকর্মীদের হাতের দস্তানা কিয়স্কের বাইরে থেকে স্যানিটাইজ করিয়ে আনা হবে। কেরলের জেলা স্বাস্থ্য আধিকারিক এস সুধাস জানান,”করোনা মোকাবিলায় ভারতে এই ব্যবস্থা প্রথম। আর এই পদ্ধতিতে গণ স্ক্রিনিং-এর ব্যবস্থা থাকবে। ফলে দ্রুত চিহ্নিত করা যাবে করোনা সংক্রমিতকে, কমবে পিপিই কিটের চাহিদা। এতে অল্প সময়েই অনেক পরীক্ষা করা সম্ভব হবে।” এরকম প্রতিটি উইস্ক (Walk-in Sample Kiosk) তৈরি করতে সরকারের তরফে চল্লিশ হাজার টাকা খরচ পড়বে বলে জানান হয়। প্রতিটি কিয়স্কে ৪০ থেকে ৫০টি নমুনা রাখার ও জায়গা থাকবে। কলামেসারি মেডিক্যাল কলেজের চিকিৎসক গণেশ মোহন জানান,”কিয়স্কের ভাবনা টি খুবই ভাল। এতে স্বাস্থ্যকর্মীদের সুরক্ষাও বজায় থাকবে পাশাপাশি দেশজুড়ে পিপিই কিটের এই হাহাকার ও কমবে। দেশে কমিউনিটি সংক্রমণের পরিস্থিতি দেখা গেলে তখন এই ধরণের ২০ থেকে ৩০টি কিয়স্কের প্রয়োজবন হবে রাজ্যে।”

[আরও পড়ুন:‘মানুষ বোমা ফাটিয়ে যদি আনন্দ করে অন্যায়টা কী?’, সমালোচনায় পালটা প্রশ্ন দিলীপের]

দক্ষিণ কোরিয়াতে এই ধরণের কিয়স্ক তৈরি করা হয় করোনায় গণ সংক্রমণ পরীক্ষার জন্য। ফলে দেশে সংক্রমিতদের দ্রুত চিহ্নিত করে আতঙ্ক দূর করা যাবে। ভারত কয়েকদিন ধরেই করোনা সংক্রমিতদের পরীক্ষার গতি বৃদ্ধি করা চেষ্টা করছিল। কিয়স্ক তৈরির মাধ্যমে সেই চেষ্টায় গতি আসবে বলেই মত বিশেষজ্ঞদের।

[আরও পড়ুন:আমেরিকায় করোনা ভাইরাসের প্রকোপে মৃত ৭৬ জন বাংলাদেশি]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে