২০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ৭ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

গরু পাচারকারী সন্দেহে উলঙ্গ করে গণপিটুনি, মূত্রপান করানোর অভিযোগ

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: June 10, 2019 11:58 am|    Updated: June 10, 2019 11:58 am

Haryana: 4 men thrashed by locals on suspicion of cow smuggling

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: গরু পাচারকারী সন্দেহে ফের গণপিটুনির ঘটনা ঘটল হরিয়ানায়। বেধড়ক মারধরের পর চার ব্যক্তিকে জোর করে মূত্র পান করানোর অভিযোগ উঠেছে। রবিবার ঘটনাটি ঘটেছে হরিয়ানার ফতেহাবাদ এলাকার দায়র গ্রামে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে উত্তেজিত জনতার হাত থেকে ওই ব্যক্তিদের উদ্ধার করে পুলিশ। চিকিৎসার জন্য তাদের হাসপাতালে ভরতিও করা হয়। পরে গ্রামবাসীদের চাপে ওই ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে গরু পাচারের অভিযোগও দায়ের করা হয়েছে।

[আরও পড়ুন- পোশাক খুলে নাচার দাবি-মহিলাদের মারধর, অসমে ইদের অনুষ্ঠান ঘিরে তুলকালাম]

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, রবিবার দায়র গ্রামে গরু পাচারকারী সন্দেহে ওই ব্যক্তিদের আটক করে স্থানীয় বাসিন্দাদের একাংশ। শুরু হয় জিজ্ঞাসাবাদ। কিছুক্ষণ বাদে কথায় অসংগতি পেয়ে চারজনকে বেধড়ক মারধর করা হয়। খবর পেয়ে পুলিশ এসে তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভরতি করে। আক্রান্তদের বিরুদ্ধে গরু পাচারের অভিযোগ দায়ের করে তদন্তও শুরু হয়েছে।

এপ্রসঙ্গে স্থানীয় থানার এক আধিকারিক সুরজমল বলেন, “রবিবার ফোনে ঘটনাটির কথা জানতে পেরেই ঘটনাস্থলে যাই। সেখানে গিয়ে দেখতে পাই চারজনকে গরু পাচারকারী সন্দেহে বেধড়ক মারধর করে বেঁধে রাখা হয়েছে। তাদের পাশে একটি গরু ও বাছুরের মৃতদেহের পাশাপাশি গরুর চামড়াও পড়েছিল। মৃতদেহদুটি বাজেয়াপ্ত করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। তদন্ত চলছে।”

[আরও পড়ুন- সুখোই-ব্রহ্মস যুগলবন্দিতে আরও ঘাতক হতে চলেছে বায়ুসেনা]

এদিকে তাদের বিরুদ্ধে ওঠা গরু পাচারের অভিযোগ মিথ্যে বলে দাবি করেছে আক্রান্তরা। তাদের মধ্যে একজন দাবি করে, “আমরা পশুদের মৃতদেহ ভাগাড়ে ফেলার কাজ করি। রবিবার দুটি মৃতদেহ নিয়ে দায়র গ্রামে দিয়ে যাওয়ার সময় ৩০ জন গ্রামবাসী আচমকা আক্রমণ করে। লাঠি দিয়ে আমাদের মারধর করে সব জামাকাপড় খুলে নেয়। জোর করে মূত্র খাইয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে। ওরা আমাদের বিরুদ্ধে গো-হত্যার অভিযোগ তুলছে। কিন্তু, আমরা কোনও গরুকে মারিনি।”

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে