২৮ কার্তিক  ১৪২৬  শুক্রবার ১৫ নভেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সুপ্রিম কোর্টের রায় নিয়ে মুখ খুলেই বিস্ফোরণ ঘটালেন এআইএমআইএম সুপ্রিমা আসাদুদ্দিন ওয়াইসি। হায়দরাবাদের সাংসদের দাবি, “সুপ্রিম কোর্টের রায়ে বাস্তব সত্যির জয় হয়নি। জয় হয়েছে আস্থার।”


ওয়াইসি বলছেন, সুপ্রিম কোর্টের রায় শিরোধার্য্য কিন্তু, অকাট্য নয়। একই সঙ্গে তিনি সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, সুপ্রিম কোর্ট মুসলিমদের যে খয়রাতির ৫ একর জমি দিতে চেয়েছে, তা তাঁদের চায় না। ওয়াইসির দাবি, এমনি মানুষের কাছে চাইলেই মুসলিমরা ৫ একর পেয়ে যাবে। সরকারের খয়রাতির প্রয়োজন নেই। হায়দরাবাদের সাংসদের বক্তব্য, “আমরা আমাদের আইনি অধিকারের জন্য লড়ছি। ভারতের মুসলমানদের এতটা খারাপ দিনও আসেনি যে খয়রাতির জমি নিতে হবে। আমরা যদি এভাবেই ভিক্ষা করতে থাকি তাহলে তাহলে এগোতে পারব না। মুসলিম বোর্ড কি সিদ্ধান্ত নেবে সেটা তাঁদের সিদ্ধান্ত। আমার ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত আমাদের এই ৫ একরের প্রস্তাব খারিজ করা উচিত।”

[আরও পড়ুন: শতাব্দী প্রাচীন অযোধ্যা বিতর্কের নিষ্পত্তি, কঠিন চ্যালেঞ্জে সফল সুপ্রিম নায়ক গগৈ]


এদিকে, অযোধ্যার রায়কে স্বাগত জানিয়েছে কংগ্রেস। শনিবার রায়ের আগেই দিল্লিতে কংগ্রেস ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠক হয়। সেই বৈঠকেই ঠিক হয় দলের পার্টি লাইন। রায় ঘোষণার পর কংগ্রেসের তরফে দলের প্রধান মুখপাত্র রণদীপ সিং সূরজেওয়ালা বলেন, “কংগ্রেস দল সুপ্রিম কোর্টের রায়কে স্বাগত জানায়। কংগ্রেস পার্টি দ্রুত রাম মন্দির তৈরির পক্ষে। সুপ্রিম কোর্টের এই রায়ে একদিকে যেমন মন্দির তৈরির রাস্তা খুলে গেল, অন্যদিকে তেমনি বিজেপির জন্য এই ইস্যু নিয়ে রাজনীতি করার রাস্তা বন্ধ হয়ে গেল। আদালতের এই রায়ে যাতে কোনওভাবেই কোনও ব্যক্তি, কোনও সংগঠন, কোনও রাজনৈতিক দল বা কোনও সম্প্রদায়ের রাজনৈতিক লাভ না হয় সেদিকে নজর রাখতে হবে।” একই সঙ্গে দেশবাসীকে শান্তি এবং সৌহার্দ্য বজায় রাখার বার্তাও দিয়েছে দেশের সবচেয়ে পুরনো রাজনৈতিক দল।

[আরও পড়ুন: অযোধ্যার রায়কে স্বাগত জানিয়ে টুইট অমিতের, সৌহার্দ্যের বার্তা দিলেন মোদি]

রায় ঘোষণার পর প্রাক্তন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীও মুখ খুলেছেন। তিনি বলছেন, “সুপ্রিম কোর্টের এই রায়কে সম্মান জানিয়ে, আমাদের নিজেদের মধ্যে সদ্ভাব বজায় রাখতে হবে। এটা সব ভারতীয়র মধ্যে বন্ধুত্ব, প্রেম আর ভ্রাতৃত্বের সময়।”

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং