১২ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘আমিও যৌন হেনস্তার শিকার’, সংসদে সরব ডেরেক ও’ব্রায়েন

Published by: Tanumoy Ghosal |    Posted: July 25, 2019 9:41 am|    Updated: July 25, 2019 9:41 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:  স্রেফ মহিলাদেরই নয়, পথে-ঘাটে অনেক সময় যৌন হেনস্তার শিকার হতে হয় পুরুষদেরও। সংসদে দাঁড়িয়ে তেমনই অভিজ্ঞতার কথা শোনালেন তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েন। সাংসদের দাবি, মাত্র তেরো বছর বয়সে ভিড় বাসে তিনি নিজেও যৌন হেনস্তার শিকার হয়েছিলেন। এই ধরণের ঘটনা নিয়ে সকলেই সোচ্চার হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন এ রাজ্যের শাসকদলের সাংসদ।

[আরও পড়ুন: ‘মানুষ কীভাবে এত বর্বর হতে পারে’, তৃণমূলকে তোপ সুষমার]

দীর্ঘ আলোচনার পর বুধবার পকসো আইনে সংশোধনী বিল পাশ হয়ে গেল রাজ্যসভায়। এই বিলে যৌন হেনস্তার শাস্তির মেয়াদ ১০ থেকে বাড়িয়ে ২০ বছরের কারাদণ্ড করার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। এদিন রাজ্যসভায় পকসো আইনে সংশোধনীর পক্ষে সওয়াল করেন ২৭ জন সাংসদ। সেই তালিকায় ছিলেন এ রাজ্য থেকে মনোনীত তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েনও। শুধু সংশোধনীর পক্ষে সওয়াল করাই নয়, যৌন হেনস্তা নিয়ে নিজের অভিজ্ঞতার কথা শোনালেন তিনি। ডেরেক ও’ব্রায়েন বলেন, ‘১৩ বছর বয়সে টেনিস প্র্যাকটিস শেষে শর্ট প্যান্ট ও টি-শার্ট পরে আমি ভিড় বাসে উঠেছিলাম। আমাকে যৌন হেনস্তা করা হয়েছিল। একজন অপিরিচিত ব্যক্তি শর্টসের উপর বীর্যপাত করেছিল। তখন আমি এই ঘটনা নিয়ে কাউকে কিছু বলতে পারিনি। পরে অনেক বড় হয়ে বাবা-মাকে এই ঘটনার কথা বলি।’  সাংসদের আরও বক্তব্য, ‘যত মানুষ এ বিষয়ে কথা বলবেন, ততবেশি শিশুরা এই ধরনের ঘটনার হাত থেকে বাঁচবে। আসুন, সকলে মিলে এই ঘৃণ্য অপরাধের প্রতিরোধের সচেষ্ট হই।’

এদিকে নিজের যৌন হেনস্তার কথা সর্বসমক্ষে আনার পর সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েনকে হাততালি দিয়ে তাঁকে অভিবাদন জানান কেন্দ্রীয় নারী ও শিশুকল্যাণ মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি।  তাঁর মতে, শৈশব বা কিশোরে এই ধরনের ঘটনা মনে ছাপ ফেলে যায়। ঘটনায় ৪৬ বছর পর বিষয়টি সকলের সামনে এনেছেন ডেরেক। তাঁকে অভিবাদন জানানো উচিত।

 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement