৬ ফাল্গুন  ১৪২৬  বুধবার ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সাধারণতন্ত্র দিবসের অনুষ্ঠান নিয়ে ফের বিতর্ক। ২৬ জানুয়ারি সাধারণতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে ব্রাত্য আজাদ হিন্দ ফৌজের প্রাক্তন সেনারা। টুইট করে এই খবরটি জানিয়েছেন বিজেপি সাংসদ সুব্রক্ষ্মণ্যম স্বামী। টুইটার হ্যান্ডেলে তিনি লেখেন, “২৬ জানুয়ারির সাধারণতন্ত্র দিবসে কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে আজাদ হিন্দ ফৌজের প্রাক্তন সেনাদের যোগ দেওয়ার অনুমতি দেয়নি মোদি সরকার। এটা বিস্ময়কর।” এ নিয়ে পালটা টুইট করে সরকারের বিবৃতি দাবি করেছেন আরেক বিজেপি নেতা তথা নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসুর পরিবারের সদস্য।

[আরও পড়ুন : নির্ভয়া কাণ্ড: পাতিয়ালা হাউস কোর্টে তিন ধর্ষকের আরজি খারিজ]

রাত পোহালেই ৭১তম সাধারণতন্ত্র দিবস। তার আগে কড়া নিরাপত্তায় মুড়েছে দিল্লির রাজপথ। এবার প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকছেন ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জাইরে বলসেনারো। তাঁর উপস্থিতি নিয়েও বিতর্ক তৈরি হয়েছে। আমাজনের অরণ্যে দাবানলের সময় তিনি নিষ্ক্রিয় ছিলেন বলে অভিযোগ তুলে বিক্ষোভ দেখানোর পরিকল্পনা নিয়েছে দেশের বিভিন্ন পরিবেশবিদ ও সমাজকর্মী। বামদলগুলিও তাদের ছাত্র এবং গণ সংগঠনের সদস্যদের ব্রাজিলের রাষ্ট্রপতির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতে উৎসাহিত করছে। বিক্ষোভের কর্মসূচি বাস্তবায়িত করার জন্য কোমর বাঁধছে সর্বভারতীয় কিষাণ সভাও। এর আগে ট্যাবলো নিয়েও বিতর্ক তৈরি হয়েছিল।

[আরও পড়ুন : পাকিস্তান-বাংলাদেশ থেকে আসা মুসলিমদের তাড়ানো উচিত, মন্তব্য শিব সেনার]

এবার অনুষ্ঠানে আজাদ হিন্দ ফৌজের প্রাক্তনীদের অনুপস্থিতি নিয়ে বিতর্ক তুঙ্গে উঠেছে। সুব্রক্ষ্মণ্যম স্বামীর টুইটের পর পালটা টুইট করেন চন্দ্র বসুও তাতে লেথেন, “যদি এটা সত্য হয়ে থাকে, তাহলে কেন তাঁদের বাদ দেওয়া হল, তা নিয়ে দেশবাসী প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য জানতে চায়।”

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং