২ কার্তিক  ১৪২৬  রবিবার ২০ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অবিলম্বে সন্ত্রাসবাদে মদত দেওয়া বন্ধ না করলে পাকিস্তানকে আর জল দেবে না ভারত। বুধবার অমৃতসরে জনসভা করতে গিয়ে ফের এই হুঁশিয়ারিই দিলেন কেন্দ্রীয় জলসম্পদ মন্ত্রী নীতীন গড়করি। পাকিস্তানের জায়গায় এই জল হরিয়ানা, রাজস্থান ও পাঞ্জাবে পাঠানো হবে বলেও জানান তিনি। এর জন্য সিন্ধু জল চুক্তি ফের খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলেও উল্লেখ করেন।

এপ্রসঙ্গে তিনি বলেন, “ভারতের তিনটি নদী থেকে পাকিস্তান জল পৌঁছায়। আমরা এটা বন্ধ করতে চাই না। তবে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে জল চুক্তি হয়েছিল বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক ও শান্তিপূর্ণ সহাবস্থানের ভিত্তিতে। যা আজ আর নেই। ফলে জল চুক্তির শর্ত মানতে আর বাধ্য নই আমরা।”

[আরও পড়ুন- ট্রেনের টিকিট বাতিল করে দু’বছর পর যাত্রী ফেরত পেলেন ৩৩ টাকা!]

পাকিস্তানের আক্রমণ করে তিনি অভিযোগ করেন, “পাকিস্তান ক্রমাগত জঙ্গিদের মদত দিয়ে যাচ্ছে। যদি পাকিস্তান সন্ত্রাসবাদে মদত দেওয়া বন্ধ না করে, তাহলে তাদের জল দেওয়া বন্ধ করা ছাড়া আমাদের কাছে কোনও উপায় থাকবে না। এই জন্য ওই জল চুক্তি ফের খতিয়ে দেখে পাকিস্তানের জায়গায় হরিয়ানা, পাঞ্জাব ও রাজস্থানে জল পাঠানোর পরিকল্পনা নেওয়া হচ্ছে।”

[আরও পড়ুন- নাগরিকপঞ্জি চূড়ান্ত জুলাই ৩১-এর মধ্যে, নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের]

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি জম্মু ও কাশ্মীরের পুলওয়ামায় সিআরপিএফ কনভয়ের উপর আত্মঘাতী হামলা চালায় জইশ-ই-মহম্মদ জঙ্গিরা। এরপর পাকিস্তানের আশ্রয়ে থাকা ওই জঙ্গি সংগঠনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া দাবি জানায় ভারত। কিন্তু, পাকিস্তান কোনও পদক্ষেপ না নেওয়ায় ১৯৬০ সালে দু’দেশের মধ্যে হওয়া সিন্ধু জল চুক্তি বাতিল করার হুঁশিয়ারি দেন নীতীন গড়করি। এই চুক্তির পিছনে থাকা পটভূমিকা বিশ্লেষণ করে দাবি করেন, পারস্পারিক ভালবাসা ও সম্প্রীতির উপর ভিত্তি করেই তৈরি হয়েছিল এই চুক্তি। কিন্তু, বর্তমানে প্রতিবেশী দেশের তরফে তা রক্ষা করার কোনও ইচ্ছাই দেখা যাচ্ছে না। তাই পাকিস্তানকে জল দেওয়া বন্ধ করার কথা ভাবছে ভারত।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং