BREAKING NEWS

২০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ৭ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

ভাঁড়ারে টান, আয় বাড়াতে শতাব্দী এক্সপ্রেসের সিটকভারেও বিজ্ঞাপন রেলের

Published by: Paramita Paul |    Posted: October 23, 2021 5:39 pm|    Updated: October 23, 2021 5:39 pm

Indian Railways allows advertisement on seat cover of Shatabdi express | Sangbad Pratidin

সুব্রত বিশ্বাস: ভাঁড়ারে অর্থ আনতে এবার যাত্রীদের সিটের কভারও ভাড়া দিচ্ছে রেল (Indian Railways)। শুক্রবার এই সংক্রান্ত আয়ের প্রস্তাবে সিলমোহর দেয় হাওড়া ডিভিশন। প্রাথমিকভাবে হাওড়া-রাঁচি শতাব্দী এক্সপ্রেসকে (Howrah-Ranchi Shatabdi Express)  এজন্য নির্বাচন করা হয়েছে।

হাওড়ার ডিআরএম মণীশ জৈন বলেন, “শতাব্দী এক্সপ্রেসের মধ্যে আমাদের আওতায় হাওড়া-রাঁচি শতাব্দী এক্সপ্রেস রয়েছে। ট্রেনটির সব কোচই চেয়ারকার। এই চেয়ারের উপরে যে ছোট কভার থাকে তার উপর এবার বিজ্ঞাপন দেওয়া হবে।” এজন্য বিজ্ঞাপন সংস্থার প্রস্তাবে সিলমোহর দেওয়া হয়েছে বলে খবর। খুব শিগগির এই বিজ্ঞাপন যাত্রীরা দেখতে পাবেন। কভারে বিজ্ঞাপন দেওয়ার জন্য বিজ্ঞাপন সংস্থা রেলকে টাকা দেবে। এমনকী, সিট রক্ষণাবেক্ষণও করবে ওই সংস্থা। ফলে রেলের আর্থিক সাশ্রয়ও হবে।

[আরও পড়ুন: ‘আরএসএসের বহু ভাবধারাই বামপন্থী’, বক্তব্য সংঘের শীর্ষনেতার]

করোনা কালে রেল যাত্রীবাহী ট্রেন চালাতে পারেনি। এজন্য পঞ্চাশ হাজার কোটি টাকার উপরে রেলের আর্থিক ক্ষতিও হয়েছে। এখনও সব ট্রেন চলছে না। ফলে রেল বোর্ড নির্দেশ দিয়েছে ভাড়া না বাড়িয়ে আয় বাড়ানোর জন্য যাবতীয় পদক্ষেপ নিতে। এজন্য বিজ্ঞাপনের উপর জোর দিয়েছে রেল।

সম্প্রতি হাওড়া স্টেশনে যাত্রীদের সিটের অবস্থান জানার জন্য চার্ট বোর্ডটি ডিজিটালে পরিবর্তন ঘটিয়েছে। সেই বোর্ডও বিজ্ঞাপন সংস্থাকে দেওয়া হয়েছে। এজন্য বাৎসরিক ৪৩ লক্ষ টাকাও দেবে সংস্থাটি। ওই বোর্ডে বিজ্ঞাপন দেখাবে সংস্থাটি। ডিজিটাল বোর্ডের পর এবার শতাব্দী এক্সপ্রেসের সিট কভারে বিজ্ঞাপন রেলের আয়ের নতুন আঙ্গিক।

[আরও পড়ুন :নাম বদলের ধারা অব্যাহত যোগীরাজ্যে, নতুন পরিচয় পেল ফৈজাবাদ স্টেশন]

এদিকে রেলের গুরুত্বপূর্ণ স্টেশনগুলির উন্নয়নের দায়িত্ব ছিল ‘রেল স্টেশন ডেভলপমেন্ট কর্পোরেশন লিমিটেডের’ হাতে। এবার তাদের হাত থেকে সেই দায়িত্ব ফিরিয়ে নিয়েছে রেল।  রেল বোর্ড জানিয়েছে, সংস্থা যে সব স্টেশন উন্নয়নের কাজ করছে, বা পরিকল্পনা নিয়েছে তার সব নথি রেলের জিএমদের কাছে জমা দিতে হবে। এবার থেকে সব দায়িত্ব আবার সামলাবে রেলের জোনগুলি। অর্থাৎ সৌন্দর্যায়নের দায়িত্ব ফিরল সরকারের হাতে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে