৩ শ্রাবণ  ১৪২৬  শুক্রবার ১৯ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সুব্রত বিশ্বাস: ‘রামায়ণের’ পর এবার ‘পঞ্জ তখত এক্সপ্রেস’ চালাবে রেল। শিখ ভক্তদের পাঁচ তখত ভ্রমণের সুবিধা দিতে রেলের এই সিদ্ধান্ত। আইআরসিটিসি এই ভ্রমণের পুরো প্যাকেজটি এমনভাবে সাজিয়েছে, যাতে নানা প্রান্তের শিখ ভক্তরা দিল্লির সফদরজং স্টেশনে আসার সুযোগ পান। সারাদিন রাত এই ধর্মীয় ট্রেনটি ওখানেই ভক্তদের অপেক্ষায় দাঁড় করিয়ে রাখা হবে।

[দ্রুত উন্নয়নে বিশ্বসেরা দেশের দশ শহর, তালিকায় নেই কলকাতা-দিল্লি-মুম্বই]

সফদরজং থেকে যাত্রা শুরু ১৪ জানুয়ারি। আইআরসিটিসি ট্রেন যাত্রাকে যেভাবে সাজিয়েছে, প্রথমে অমৃতসরের অকাল তখত, ভাটিন্দার দমদমা সাহিব, পাটনার হরমন্দিরজি সাহিব, নানদেদের হাজুর সাহিব, আনন্দপুরের কেশগড় সাহিব। নয় রাত, দশ দিনের সফর শেষ হবে দিল্লির সফদরজং-এ। পঞ্জ তখত এক্সপ্রেসের সব কোচই এসি থ্রি-টিয়ার। ৮০০ জন ভক্ত এই ট্রেনটিতে সফর করতে পারবেন। সফরসূচি ও সময় এমনভাবে রাখা হয়েছে যে ভক্তরা সব তখতে গিয়ে গুরুদ্বার দেখার সুযোগ পাবেন। পুরো ভ্রমণে সব ক’টি সাহিবে যাতায়াতের সব খরচই বহন করবে আইআরসিটিসি। খাওয়া-দাওয়ার জন্য আলাদা চার্জ লাগবে না। খাবারও হবে পুরো শিখ ধর্মীয় ভাবাবেগ মেনেই। এজন্য মাথাপিছু ভক্তদের গুনতে হবে ১৫,৭৫০ টাকা।

[জলাশয়ে আত্মহত্যা এইডস আক্রান্ত মহিলার, সংক্রমণের ভয়ে জলবদল গ্রামবাসীর]

এই ধর্মীয় ট্রেনটিতে যেহেতু শিখ ভক্তরাই যাবেন সেকথা মাথায় রেখে রেকটিকে সেইভাবে সাজানো হচ্ছে। ভিনাইল র‌্যাপিংয়ে সব সাহিবের ছবি, ধর্মগুরুদের ছবি থেকে স্বর্ণমন্দিরের ছবি ট্রেনটির গায়ে লেগে থাকবে। যাত্রীরা যে বয়স্ক হবেন সেকথা মাথায় রেখে শৌচালয় থেকে আলো-বাতাসের উপযুক্ত ব্যবস্থা রাখা হবে ট্রেনে। গাইড থেকে ক্যাটারিং কর্মী সবাই যাতে ভাল পাঞ্জাবি ভাষা জানেন সেদিকেও লক্ষ্য রাখছে এই কর্পোরেট সংস্থাটি বলে উত্তর রেল সূত্রে জানা গিয়েছে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং