২ কার্তিক  ১৪২৬  রবিবার ২০ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভোটের আগে জঙ্গি হামলার অশনি সংকেত। ভারতের যে কোনও প্রান্তে ভয়াবহ জঙ্গি হামলার আশঙ্কা রয়েছে। এর মধ্যে সবচেয়ে বড় জঙ্গি হামলার সম্ভাবনা রয়েছে দিল্লি, মুম্বই ও গোয়ায়। নিজস্ব নেটওয়ার্কের মাধ্যমে জঙ্গিদের এই পরিকল্পনা জানতে পেরেছেন ভারতীয় গোয়েন্দারা। এই সতর্কতা জারি হতেই দিল্লি, মুম্বই গোয়া, দেশের এই তিন এলাকায় সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

[আরও পড়ুন: যুদ্ধের অভিমুখ বদলাবে চিনুক, বায়ুসেনার হাতে ‘হেভি লিফ্ট’ হেলিকপ্টার

সোমবার একটি সর্বভারতীয় সংবাদপত্রের ওয়েবসাইটে ওই তিন এলাকায় জঙ্গি হামলার আশঙ্কার কথা জানিয়ে খবর প্রকাশ করা হয়। পুলিশ ও গোয়েন্দা সূত্র উদ্ধৃত করে জানানো হয়েছে, নিউজিল্যান্ডের মসজিদে হামলার বদলা নিতে ভারতে ইহুদিদের ধর্মস্থান ও পরিকাঠামোগুলিতে আত্মঘাতী হামলার ছক কষেছে ইসলামিক স্টেট ও আল কায়দা জঙ্গিরা। হামলা হতে পারে গির্জাগুলিতেও। গোয়েন্দাদের দাবি, সেই মতো ওই তিন জায়গার পুলিশকে সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে। তার পরই দেশের সর্বত্র ইহুদি ও খ্রিস্ট ধর্মাবলম্বীদের উপাসনার জায়গাগুলিতে নিরাপত্তা ব্যবস্থা কঠোর করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

গোয়েন্দা সূত্রে জানা গিয়েছে, ব্রেন্টন ট্যারান্টের হামলায় নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে সম্প্রতি প্রাণ হারিয়েছেন ৫০ জন। তার পর থেকে বদলা নিতে ফুঁসছে জঙ্গি সংগঠন আল কায়দা ও ইসলামিক স্টেট (আইএস)। বিশেষ করে ইহুদিদের নিশানা করে ভারতে বড়সড় নাশকতা চালানোর পরিকল্পনা রয়েছে তাদের। অন্য দিকে, পুলওয়ামার জবাবে ফেব্রুয়ারি মাসে পাকিস্তানের বালাকোটে জইশ জঙ্গিদের শিবিরে অভিযান চালিয়েছে ভারতীয় বায়ুসেনা। এর বদলা নিতে মরিয়া আল কায়দা। ইন্টারনেটে, টেলিগ্রাম মেসেজিং অ্যাপে এবং তাদের কথোপকথনে ভারতে হামলা চালানোর স্পষ্ট ইঙ্গিত মিলেছে। ভারতীয় গোয়েন্দাদের দাবি, গত কয়েকদিন ধরে ইন্টারনেটে জঙ্গিদের কথোপকথনে আড়ি পাতা হচ্ছিল। তাতে ২০-২৩ ফেব্রুয়ারির মধ্যে দুটি বার্তা ধরা পড়ে। যার মধ্যে প্রথম বার্তাটি ধরা পড়ে গত ২০ মার্চ। সেখানে বিভিন্ন চ্যাটগ্রুপে আইএস-এর সঙ্গে যুক্ত সংগঠনগুলিকে ক্রাইস্টচার্চের বদলা নেওয়ার পরিকল্পনা করতে শোনা যায়। অডিও রেকর্ডিংয়ের মাধ্যমে অনুরাগীদের বার্তা দেয় আইএস মুখপাত্র আবু হাসান আল-মুহাজির। ক্রাইস্টচার্চের বদলা নিতে জেহাদিদের ডাক দিয়েছে সে। দ্বিতীয় বার্তাটি ধরা পড়ে ২৩ মার্চ। নিউজিল্যান্ডে মসজিদে হামলার বদলা নিতে তাতে ইহুদিদের বাসভবন এবং উপাসনাগৃহ সিনাগগে হামলা চালানোর পরিকল্পনা করতে শোনা যায় আল কায়দা সদস্যদের। তাতে উঠে আসে ভারতের মুম্বই, দিল্লি ও গোয়ার কিছু জায়গার নামও।

গোয়ার পাশাপাশি ইহুদিদের নিশানা করতে দিল্লি এবং মুম্বইয়ে হামলা চালানো হতে পারে বলে জানিয়েছেন গোয়েন্দারা। তাই দিল্লিতে ইজরায়েলি দূতাবাস এবং মুম্বইয়ে ইজরায়েলি কনসুলেট জেনারেলের বাসভবনের বাইরে নিরাপত্তা আঁটসাট করার পরামর্শ দেন তাঁরা। নিরাপত্তা বাড়াতে বলা হয় দক্ষিণ মুম্বইয়ে ইহুদিদের উপাসনাগৃহ এবং চাবাদ হাউসেরও। ইতিমধ্যে তা শুরুও হয়ে গিয়েছে। ইজরায়েলি দূতাবাসের বাইরে নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে। বসানো হয়েছে পুলিশি নজরদারিও। এ ছাড়াও সমস্ত গাড়ির উপর নজর রাখা হচ্ছে। দিল্লি, মুম্বই, গোয়া ছাড়াও বিভিন্ন রাজ্যের জনবহুল এলাকাগুলির নিরাপত্তা আরও কঠোর করা হয়েছে। উল্লেখ্য, ২৬/১১ কাণ্ডে মুম্বই লস্কর জঙ্গিদের হামলার সময়ও ছাবাড হাউসে ঢুকে ইহুদিদের পণবন্দি করে ছ’জনকে খুন করেছিল পাক মদতপুষ্ট জঙ্গিরা।

[আরও পড়ুন: রাজনীতিতে নামছেন সঞ্জয় দত্ত! জল্পনার মধ্যেই মুখ খুললেন অভিনেতা

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং