১৩ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ৩০ নভেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

প্রায় অকেজো কিডনি, লালুপ্রসাদের শারীরিক অবস্থা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ চিকিৎসকের

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: December 12, 2020 9:39 pm|    Updated: December 12, 2020 9:39 pm

Lalu Yadav’s Kidney Functioning at 25%, Situation Alarming: Doctor | Sangbad Pratidin

ছবি:‌ প্রতীকী

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রবল সংকটে রাষ্ট্রীয় জনতা দল বা RJD (‌Rashtriya Janata Dal )‌ সুপ্রিমো লালুপ্রসাদ যাদব (Lalu Prasad Yadav)। বিহারের (Bihar) প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর শারীরিক পরিস্থিতি মোটেই ভাল নয়। বিশেষ করে তাঁর কিডনি যেকোনও সময়ই কাজ করা বন্ধ করে দিতে পারে। শনিবার এমনটাই জানালেন লালুপ্রসাদের চিকিৎসক ডাঃ উমেশ যাদব। আর এরপরই দুশ্চিন্তায় আরজেডি নেতা–কর্মীরা। পশুখাদ্য কেলেঙ্কারিতে এমনিতেই লালুপ্রসাদ সাজা ভোগ করছেন। তার উপর বিহার নির্বাচনে হেরে গিয়েছে দল। এই অবস্থায় এবার তাঁর শারীরিক পরিস্থিতিরও অবনতি ঘটছে।

রাঁচির (Ranchi) রাজেন্দ্র ইনস্টিটিউট অফ মেডিক্যাল সায়েন্সে (Rajendra Institute of Medical Sciences) বিহারের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর চিকিৎসা চলছে। সেই হাসপাতালেরই চিকিৎসক ডাঃ উমেশ যাদব তাঁর চিকিৎসা করছেন। তিনিই জানান, লালু প্রসাদের শারীরিক অবস্থা খুবই খারাপ। তাঁর কথায়, ‘‌‘‌আমি আগেও এটা বলেছি যে, সত্যি লালুপ্রসাদ যাদবের কিডনি যেকোনও সময় বিকল হতে পারে। সেটির মাত্র ২৫ শতাংশ কাজ করছে। যা খুবই চিন্তার। তবে কতদিন সেটি ঠিকমতো কাজ করবে তা বলা যাচ্ছে না।’‌’‌

‌[আরও পড়ুন:‌ এই নিয়ম ভাঙলে ডাক্তারদের জরিমানা ১ কোটি টাকা! উত্তরপ্রদেশে জারি কড়া নির্দেশিকা]

এর সঙ্গেই তিনি যোগ করেন, ‘‌‘‌লালুপ্রসাদের রোগ যে হারে বাড়ছে এবং গত ২০ বছর ধরে যেহেতু তিনি ডায়বেটিসের রোগী, ওঁর শরীর আরও দ্রুত খারাপ হচ্ছে। সত্যিই এটা রোগীর স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর।’‌’ তবে লালুপ্রসাদকে অন্য কোনও জায়গায় স্থানান্তরিত করার প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সেটার কোনও প্রয়োজন নেই। কারণ ডায়বেটিসের কারণেই আরও দ্রুত খারাপ হচ্ছে তাঁর শরীর। এর কোনও ওষুধ নেই। নেফ্রোলজিস্টের সঙ্গে পরামর্শ করেই, লালুপ্রসাদের পরবর্তী চিকিৎসা কীভাবে হবে?‌ সেটা ঠিক করবেন তিনি।‌

এদিকে, পশুখাদ্য কেলেঙ্কারি মামলায় সাজাপ্রাপ্ত লালুপ্রসাদ যাদবের সম্প্রতি দুমকায় ৩.১৩ কোটি টাকার একটি প্রতারণা মামলায় জামিন নিয়ে একটি শুনানি ছিল। সেই শুনানির দিন আপাতত ছয় সপ্তাহ পিছিয়ে দিয়েছে আদালত। ফলে চলতি বছরে লালু জামিন পাবেন কি না, তা নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে।

‌[আরও পড়ুন:‌ ‘প্রেম ভাঙার পর অধিকাংশ মেয়ে ধর্ষণের মামলা করে’, মহিলা কমিশনের সম্পাদকের মন্তব্যে বিতর্ক]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে