BREAKING NEWS

৪ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘বিজেপির পতাকা-ব্যানার লাগান, কিন্তু বাস ঢুকতে দিন’, যোগীকে কাতর আরজি প্রিয়াঙ্কার

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: May 19, 2020 8:44 pm|    Updated: May 19, 2020 8:44 pm

An Images

সোমনাথ রায়, নয়াদিল্লি: পরিযায়ী শ্রমিকদের বাস নিয়ে যোগী-প্রিয়াঙ্কা গান্ধী (Priyanka Gandhi) তরজা অব্যাহত। উত্তরপ্রদেশ সরকারের বিরুদ্ধে রাজনীতির অভিযোগে সরব কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াঙ্কা গান্ধী। টুইট করে অভিযোগ করলেন, সকাল থেকে আগ্রা শহরের বাইরে পরিযায়ী শ্রমিকদের একাধিক বাস আটকে রয়েছে। জেলা প্রশাসনের আধিকারিকদের হাজার কাকুতি মিনতি করেও বাস নিয়ে ঢোকার অনুমতি মেলেনি। এই নিয়ে পুলিশ ও আধিকারিকদের এক্তিয়ারে হস্তক্ষেপ করার অভিযোগে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অজয় লালুকে আটক করা হয়েছে বলে অভিযোগ। প্রিয়াঙ্কা টুইটে আরও লিখেছেন, ‘যখন শ্রমিকদের একটু সাহায্য করার সুযোগ পাওয়া গেল তখন একের পর এক বাধা আসছে। সেরকম মনে হলে, বাসের সামনে বিজেপির পতাকা-ব্যানার লাগিয়ে দিন। কিন্তু দয়া করে বাসা ঢোকার অনুমতি দিন।’

প্রসঙ্গত, এদিন বিজেপির অভিযোগ কংগ্রেস যে তথাকথিত ১ হাজার বাস দেওয়ার দাবি জানাচ্ছে, সেই তালিকায় শুধু বাস নেই। যে গাড়ির কাগজপত্র জমা দেওয়া হয়েছে, তা খতিয়ে দেখা গিয়েছে এর মধ্যে ছোট গাড়ি, অ্যাম্বুল্যান্স, এমনকী ট্রাক্টর এবং টু-হুইলারও আছে। রাজ্যের মন্ত্রী তথা বর্ষীয়ান বিজেপি নেতা সিদ্ধার্থনাথ সিং বলছেন, ”আমরা প্রাথমিক তদন্ত করে দেখেছি। যে বাসের তালিকা দেওয়া হয়েছে তার সব বাস নয়। এর মধ্যে বহু টু-হুইলার, অটো, ট্রাক্টর, ছোট গাড়ি এবং অ্যাম্বুল্যান্স আছে। এবার সোনিয়া গান্ধীকে উত্তর দিতে হবে, কেন তাঁরা এমন প্রতারণা করছেন।” আরেক বিজেপি নেতা সম্বিত পাত্রর (Sambit Patra) আবার দাবি, এই গাড়িগুলি যে শুধু বাস নয় তাই নয়। এর মধ্যে অনেক গাড়ি আবার আনফিট।

[আরও পড়ুন: উত্তরপ্রদেশের রাস্তায় ফেলে মার পরিযায়ী শ্রমিকদের! বরখাস্ত অভিযুক্ত কনস্টেবল]

প্রিয়াঙ্কা পালটা টুইট করেছেন, ‘উত্তরপ্রদেশ সরকারের দাবি, আমাদের নাকি ১০৪৯টি বাসের মধ্যে ৮৭৯টি বাস ঠিকঠাক। তাহলে সীমান্তে আমাদের ৫০০’র বেশি বাস প্রশাসন আটকে রেখেছে। দিল্লি সীমান্তে আরও ৩০০টি বাস আসছে। দয়া করে, এই ৮৭৯টি বাস তো ঢুকতে দিন।’ উল্লেখ্য, প্রিয়াঙ্কা গান্ধী পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্য এক হাজার বাস পাঠাতে চাইলে প্রথমে রাজি হয়ে যায় উত্তরপ্রদেশ সরকার। জানিয়ে দেওয়া হয় প্রিয়াঙ্কা যে বাসগুলি পাঠাতে চাইছেন তা রাজ্যে ঢুকতে পারে। কিন্তু মঙ্গলবার গভীর রাতে হঠাৎ নিজেদের অবস্থান থেকে সরে আসে উত্তরপ্রদেশ প্রশাসন।

[আরও পড়ুন: ‘বাসের নামে ট্রাক্টর-অটো পাঠাচ্ছেন প্রিয়াঙ্কা’, বিজেপির অভিযোগের পালটা দিল কংগ্রেস]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement