২১ আষাঢ়  ১৪২৭  মঙ্গলবার ৭ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

‘লকডাউনে বাড়িতে থাকুন’, মানুষকে সচেতন করতে গিয়ে গুলিবিদ্ধ যুবক

Published by: Sulaya Singha |    Posted: April 3, 2020 5:09 pm|    Updated: April 3, 2020 5:09 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: লকডাউন মেনে চলুন। নিয়ম ভেঙে অকারণ রাস্তায় ভিড় করবেন না। করোনা ভাইরাসকে দূর করতে লকডাউন মেনে বাড়িতে থাকা অত্যন্ত জরুরি। দায়িত্ববান নাগরিক হিসেবে ৩০ বছরের এক যুবক রাস্তায় জমায়েত হওয়া একদল মানুষকে এভাবেই সচেতন করার চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু সুশিক্ষা দেওয়ার করুন পরিণতি হল। গুলিবিদ্ধ হলেন তিনি।

উত্তরপ্রদেশের মুজাফ্ফরনগরের কাকরোলি গ্রামের ঘটনা। পুলিশ সূত্রে খবর, আহতের নাম জাভেদ। বৃহস্পতিবার তাঁকে স্থানীয় হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে। আপাতত মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন তিনি। SHO বিজয় বাহাদুর সিং জানান, ইতিমধ্যেই এই ঘটনায় ছ’জনের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। তারা প্রত্যেকেই পলাতক। পুলিশ তাদের দ্রুত খুঁজে বের করার চেষ্টা চালাচ্ছে।

[আরও পড়ুন: রবিবার রাত ন’টায় ৯ মিনিট মোমবাতি জ্বালিয়ে আত্মশক্তি জাগরণের চেষ্টা করুন: প্রধানমন্ত্রী]

রাস্তায় একদল মানুষ জটলা করেছেন দেখে তাঁদের সচেতন করার চেষ্টা করেছিলেন ওই যুবক এবং তাঁর ভাই দিলশাদ। কিন্তু ভাবতেও পারেননি, পথে ঘুরে-বেড়ানো লোকগুলির থেকে এমন প্রতিক্রিয়া পাবেন। অভিযোগ, তাঁদের বাড়িতে থাকার পরামর্শের কথা শুনে মেজাজ হারায় ওই দল। প্রথমে জাভেদ এবং দিলশাদকে মারধর করা হয়। তারপরই ওই দলের মধ্যে থেকে একজন গুলি চালায় জাভেদের দিকে। আহত হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন তিনি। তাঁকে উদ্ধার করে নিয়ে যাওয়া হয় স্থানীয় হাসপাতালে।

দেশে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি থেকে প্রতিটি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীরা বারবার বলে চলেছেন, মারণ ভাইরাস (CoronaVirus) থেকে মুক্তি পাওয়ার একমাত্র উপায় বাড়িতে থাকা। তা সত্ত্বেও অনেকেই নিয়ম ভেঙে অকারণে রাস্তায় ঘুরে বেড়াচ্ছেন। সেই সমস্ত দায়িত্বজ্ঞানহীন মানুষদের সতর্ক করতে একাধিক জায়গায় আক্রান্ত হতে হয়েছে পুলিশকেও। এবার যোগীর রাজ্যে গুলিবিদ্ধ হলেন ওই যুবক। লকডাউন সফল না হলে করোনার কবল থেকে রক্ষা পাবে তো ভারত? এই ঘটনা নতুন করে সে প্রশ্নই তুলে দিল।

[আরও পড়ুন: করোনার চিকিৎসা নিয়ে জুনিয়র ডাক্তারদের ‘উসকানি’, বিক্ষোভে উত্তাল বাঙুর হাসপাতাল

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement