BREAKING NEWS

২৮ শ্রাবণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১৩ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

নায়ডুর শ্বশুর আর মোদির স্ত্রী, রাজনীতির ময়দানে হাতিয়ার পরিবার

Published by: Bishakha Pal |    Posted: February 11, 2019 10:12 am|    Updated: February 11, 2019 10:17 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ইংরেজিতে একটি প্রবাদ আছে- ‘tit for tat’।  রাজনীতির ময়দানে এটি বরাবরই প্রধানতম অস্ত্র। একদল অন্যদলকে এভাবেই আক্রমণ করে। আবারও তেমনই একটি ঘটনা ঘটল গেরুয়া আর বিরোধী শিবিরের মধ্যে। তবে এবার বিষয়টি ব্যক্তিগত। ব্যক্তিগত আক্রমণের পালটা ব্যক্তিগত আক্রমণ। একবার অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নায়ডুকে তাঁর পারিবারিক ইস্যু নিয়ে কটাক্ষ করলেন নরেন্দ্র মোদি, আর একবার মোদিকেই পালটা দিলেন নায়ডুও।

ঘটনার সূত্রপাত রবিবার সকালে অন্ধ্রপ্রদেশের গুন্টুরে এক জনসভায় নরেন্দ্র মোদি বলেন, “উনি নিজেকে প্রবীণ বলে দাবি করেন। কিন্তু উনি আসলে রাজনীতিতে সঙ্গী বদলানোর ব্যাপারেই প্রবীণ ও অভিজ্ঞ। সময় মতো তিনি এক গোষ্ঠী ছেড়ে অন্য গোষ্ঠীতে যোগ দেন। এমনকী নিজের শ্বশুরকে পিছন থেকে ছুরি মারার ব্যাপারেও বেশ দক্ষ উনি। একের পর এক নির্বাচনে পরাজয়ের অভিজ্ঞতাও ওনার কম নেই।” মোদি প্রশ্ন তোলেন, নিজের ছেলে নাকি অন্ধ্রপ্রদেশ কার জন্য রাজনীতি করছেন চন্দ্রবাবু? উনি প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন যে, তাঁর জমানায় অন্ধ্রপ্রদেশে সূর্যোদয় হবে। কিন্তু উনি সান (সূর্য) ছেড়ে নিজের সানকেই (ছেলে) সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিয়েছেন। স্বজনপোষণের গুরু উনি। পাশাপাশি মোদির অভিযোগ, অন্ধ্রপ্রদেশের পুনর্গঠনে কেন্দ্র বিপুল পরিমাণ টাকা দিয়েছে। কিন্তু চন্দ্রবাবু সরকার সেই টাকা খরচ করতে ব্যর্থ হয়েছে।

“রাহুল ফেল করা ছাত্র, ‘টপার’ মোদিকে হিংসা করে”, কটাক্ষ জেটলির ]

এর পরই মোদির বিরুদ্ধে আক্রমণ শানান নায়ডু। ব্যক্তিগত আক্রমণের পালটা যে ব্যক্তিগত আক্রমণই হবে, সে বিষয়ে নিজের বক্তব্যের মধ্যেই জানিয়ে দেন নায়ডু। স্পষ্ট বলেন, “আমি সচরাচর ব্যক্তিগত আক্রমণ করি না। কিন্তু এখন মোদি আমায় এটা করতেই বাধ্য করছে। তিনি তিন তালাক বিল নিয়ে কথা বলছেন। মুসলিম মহিলাদের সাহায্য করতে চাইছেন। স্বামীদের পরিত্যক্তা হওয়া থেকে বাঁচাতে চাইছেন। অথচ মোদিকে তাঁর স্ত্রী যশোদা বেনকে নিয়ে কেউ প্রশ্ন করুক। তাঁর কাছে কোনও উত্তর নেই।” এরপর মোদির প্রশ্নের জবাবও দেন তিনি। ছেলের প্রসঙ্গ তুলে বলেন, লোকেশের বাবা হিসেবে তিনি গর্বিত। নিজের পরিবারকে মূল্য দেন তিনি। কিন্তু মোদির কোনও পরিবার নেই। তিনি এর মর্ম বুঝবেন না।

মোদি-নায়ডুর এই বাগবিতন্ডা শেষ হলেও রাজনৈতিক তরজা এখনও মেটেনি। অন্ধ্রপ্রদেশকে বিশেষ রাজ্যের মর্যাদা দেওয়া দাবি নিয়ে দিল্লিতে ধরনায় বসেছেন টিডিপি সাংসদ ও বিধায়করা। প্রতীকী অনশন শুরু করেছেন চন্দ্রবাবু নায়ডু।

মহাজোটের সম্ভাব্য প্রধানমন্ত্রীর তালিকা দিলেন অমিত শাহ, নাম নেই মমতার ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement