BREAKING NEWS

১৪  আশ্বিন  ১৪২৯  বুধবার ৫ অক্টোবর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

আমফানের জেরে ওড়িশায় ব্যাপক ঝড়বৃষ্টি, উপকূল এলাকা থেকে সরানো হল বাসিন্দাদের

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: May 20, 2020 3:38 pm|    Updated: May 20, 2020 3:38 pm

NDRF Teams evacuating people from coastal villages of Odisha

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ঘূর্ণিঝড় আমফানের প্রভাবে প্রবল ঝড়বৃষ্টি শুরু হয়েছে ওড়িশা ও বাংলা উপকূলবর্তী এলাকায়। শক্তি বাড়িয়ে প্রথমে সুপার সাইক্লোনের রূপ ধারণ করেছিল আমফান। পরে কিছুটা দূর্বল হয়ে সিভিয়ার সাইক্লোনিক স্টর্মে পরিণত হয়েছে আমফান। প্রবল তাণ্ডব শুরু হয়েছে ওড়িশা ও বাংলা উপকূলে। বুধবার বিকেলে পশ্চিমবঙ্গের উপকূলে আছড়ে পড়ার কথা ঘূর্ণিঝড়ের। কিন্তু তার আগেই প্রবল ঝড়বৃষ্টি শুরু হয়েছে।

জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা দল বা ন্যাশনাল ডিজাস্টার রেসপন্স ফোর্সের প্রধান এসএন প্রধান জানিয়েছেন, ‘বাংলা ও ওড়িশায় ৪০টি এনডিআরএফ দল মোতায়েন রাখা হয়েছে। প্রতি মুহূর্তের উপর নজর রাখা হচ্ছে। দুই রাজ্যের উপকূল অঞ্চল থেকে বহু মানুষকে নিরাপদ স্থানে সরানো হয়েছে।’ যুদ্ধকালীন পরিস্থিতিতে ওড়িশা উপকূলের ভদ্রক, বালেশ্বরের বিভিন্ন জায়গা থেকে বাসিন্দাদের সরিয়ে আনছে এনডিআরএফ। মূলত আমফানের অভিমুখ এখন বাংলার দিকে। তবুও ওড়িশাতেও এর প্রভাব ব্যাপক ভাবে নজরে পড়ছে।

ইতিমধ্যেই দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার সুন্দরবন এলাকায় আমফানের ব্যাপক প্রভাব পড়েছে। দফায় দফায় বৃষ্টি চলছে। সঙ্গে ঝড়ের দাপট রয়েছে বকখালি, ফ্রেজারগঞ্জ, নামখানা, সাগরদ্বীপ, কাকদ্বীপ, ডায়মন্ড হারবার এলাকায়। আমফানের প্রভাবে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কাও করা হচ্ছে। আর তাই সাধারণ মানুষের জীবনহানি ও ক্ষয়ক্ষতি আটকাতে ব্যবস্থা নিয়েছে জেলা প্রশাসন। ইতিমধ্যেই কয়েক লক্ষ মানুষকে দক্ষিণ ২৪ পরগনার উপকূল এলাকা থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে বিভিন্ন স্কুল বাড়ি ও বহুমুখী ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রগুলিতে।

[আরও পড়ুন: বিশ্বের ২৬ ভয়ঙ্কর ঘূর্ণিঝড়ের উৎপত্তিস্থল বঙ্গোপসাগরই, জানেন কেন?]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে