Advertisement
Advertisement
Galwan

চিনা সংঘর্ষে লাদাখে শহিদ ২০ জওয়ানের স্মৃতিতে তৈরি হল ওয়ার মেমোরিয়াল

ওয়ার মেমোরিয়াল বা যুদ্ধের স্মৃতি সৌধে রয়েছে ২০ জন শহিদ জওয়ানের নামও।

New war memorial built for 20 Indian soldiers who martyred in clash with Chinese at Galwan‌ | Sangbad Pratidin

ছবি: প্রতীকী

Published by: Abhisek Rakshit
  • Posted:October 3, 2020 7:25 pm
  • Updated:October 3, 2020 7:25 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: লাদাখের (Ladakh) গালওয়ান (Galwan) উপত্যকায় শহিদ ২০ জন ভারতীয় জওয়ানের স্মৃতিতে এবার তৈরি করা হল ওয়ার মেমোরিয়াল বা যুদ্ধের স্মৃতি সৌধ। চলতি বছরের ১৫ জুন লাদাখে চিনা সেনার সঙ্গে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে শহিদ জওয়ানদের প্রত্যেকেরই নাম রয়েছে ওই স্মৃতি সৌধে। দুর্বুক–শিয়ক–দৌওলতাবাগ ওলদি স্ট্র্যাটেজিক রোডে অবস্থিত K‌M‌–‌১‌২০ পোস্টের কাছে এই স্মৃতি সৌধটি তৈরি করা হয়েছে।

[আরও পড়ুন:‌ হাথরাসের পথে হাজার হাজার কংগ্রেস কর্মী! রাহুল-প্রিয়াঙ্কাকে প্রবেশের অনুমতি দিল যোগী প্রশাসন]

ওই স্মৃতি সৌধে শহিদ সেনাদের ‘‌‌Gallants of Galwan’ আখ্যা দিয়ে লেখা হয়েছে, ‘‌‘১৫ জুন, ২০২০ তারিখে চিনা সেনা (Chinese Army) ভারতীয় সীমান্তে অনুপ্রবেশ করে। ১৬ বিহার রেজিমেন্টের কমান্ডিং অফিসার কর্নেল বি সন্তোষ বাবুর নেতৃত্বে জওয়নারা চিনা সেনার সেই প্রয়াস ব্যর্থ করে পিপি ১৪ পয়েন্টে পৌঁছায়। সেখানে দু’‌পক্ষের মধ্যে রক্তক্ষয়ী হাতাহাতি হয়‌। এরপরই চিনা সেনাকে পিছু হটতে বাধ্য করেন ভারতীয় জওয়ানরা। সংঘর্ষে চিনের বহু সেনা মারা গিয়েছেন। তবে ভারতের ২০ জন জওয়ানও শহিদ হয়েছেন।’‌’‌

Advertisement

[আরও পড়ুন:‌ ‘আমরা কৃষকদের কথা ভাবি, আগের সরকার বুঝত কেবল ভোট’, কংগ্রেসকে খোঁচা প্রধানমন্ত্রীর]

তবে এই ঘটনার পরই গোটা দেশ গর্জে ওঠে। চিনের বিরুদ্ধে পালটা প্রতিবাদে মুখর হন প্রত্যেকে। দেশজুড়ে চিনা পণ্য বয়কটের ডাক ওঠে। অন্যদিকে, সীমান্তে এরপরও অনুপ্রবেশের চেষ্টা জারি রাখে চিন। এমনকী কয়েকদশক পর প্রথমবার এলএসিতে গুলিও চলে। এরপর আগস্ট মাসে নতুন করে আগ্রাসন দেখায় লাল চিন (China)। লাদাখের প্যাংগং লেকের অন্যদিক থেকে ফের অনুপ্রবেশের চেষ্টা করে PLA। তবে তৎপরতার সঙ্গে চিনের সেই চেষ্টাও রুখে দেয় ভারতীয় সেনা (Indian Army)।

Advertisement

এদিকে, দেশের সাধারণ মানুষের তথ্য চুরি হয়ে পৌঁছে যাচ্ছে বেজিংয়ের হাতে। এই অভিযোগে ২০০টিরও বেশি অ্যাপের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে মোদি সরকার। কিন্তু ডিজিটাল স্ট্রাইকের পরেও সীমান্তে উত্তেজনা কমানোর জন্য কোনও পদক্ষেপই করেনি চিন। বর্তমান পরিস্থিতিতে এখনও উত্তপ্ত দু’‌দেশের সম্পর্ক।

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ