BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

মোবাইল চুরির অভিযোগে হেনস্তা! থানার মধ্যে শরীরে আগুন দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা যুবকের

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: July 21, 2020 2:37 pm|    Updated: July 21, 2020 2:50 pm

An Images

ছবি: প্রতীকী

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফোন চুরির ঘটনায় থানায় ডেকে হেনস্তা করা হয়েছিল অভিযোগ। এর জেরে পুলিশ স্টেশনের মধ্যেই শরীরে আগুন দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করল এক মদ্যপ যুবক। তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে। সোমবার সন্ধ্যায় চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে তেলেঙ্গানার রাজধানী হায়দরাবাদের চন্দ্রনারায়ণগুট্টা (Chandrayangutta) পুলিশ স্টেশনে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, সোমবার সন্ধ্যায় চন্দ্রনারায়ণগুট্টা থানায় এসে তাঁর মোবাইল ছিনতাই করা হয়েছে বলে অভিযোগ জানান নরেশ গৌড়া নামে এক ব্যক্তি। তার কিছুক্ষণ বাদে ওই এলাকার কিছু মানুষ মহম্মদ সাবির নামে এক মদ্যপ যুবককে পাকড়াও করে থানায় নিয়ে আসেন। জানান, নরেশ গৌড়ার মোবাইল যারা ছিনতাই করেছিল তাদের মধ্যে ওই যুবকও ছিল। যদিও যুবকটির শরীরে তল্লাশি চালানোর পরেও কোনও মোবাইল পাওয়া যায়নি। এরপর থানার মধ্যে তাকে হেনস্তা করা হয়েছে এই অভিযোগ তুলে চেঁচামেচি করতে থাকে ওই মদ্যপ। সেসময় কোনও রকমে তাকে বুঝিয়ে থানার বাইরে বের করে দেন কর্তব্যরত পুলিশকর্মীরা।

[আরও পড়ুন: ‘জাঠদের চেহারা ভাল, বুদ্ধি কম’, ফের বেফাঁস মন্তব্য বিপ্লব দেবের, চাপে পড়ে চাইলেন ক্ষমা ]

কিন্তু, কিছুক্ষণ বাদেই ফের চন্দ্রনারায়ণ গুট্টা থানায় এসে চিৎকার করতে থাকে ওই যুবক। তারপর আচমকা হাতে থাকা একটি বোতল থেকে নিজের শরীরে পেট্রল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। প্রথমে বিষয়টি দেখে হকচকিয়ে গেলেও পরে আগুন নিভিয়ে সাবিরকে ওসমানিয়া হাসপাতালে ভরতি করেন ওখানে উপস্থিত পুলিশকর্মীরা। যুবকটিকে বাঁচাতে গিয়ে কে এন প্রসাদ নামে একজন পুলিশকর্মী শরীরে আগুন ধরে গিয়েছিল বলে জানা গিয়েছে। পরে এই ঘটনার জেরে সাবিরের নামে একটি মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। ওই যুবকের নামে হায়দরাবাদ শহরের বিভিন্ন থানায় মোট আটটি ফৌজদারি (criminal) মামলা আছে বলেও জানা গিয়েছে।

[আরও পড়ুন: রেল স্টেশনগুলিকে আধুনিক করে নিলামে তোলার পরিকল্পনা কেন্দ্রের, জানালেন পীযূষ গোয়েল]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement